১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

নীলফামারীতে সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল


স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ সপ্তম শ্রেনীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে জোড় করে বাল্য বিয়ে দিতে গিয়ে আটক হয়েছে ছাত্রীটির বাবা বিশাদু মামুদ(৫০) সহ ৫ জন। অন্যান্য আটককৃতরা হলো ছাত্রীটির দুলাভাই ফারুক(২৪) বরের চাচা সুমন(২৮) বরের ভাই মাহাবুব(২৪) ও আয়নাল(২২)। সোমবার রাতে এই ঘটনাটি ঘটে নীলফামারীর ডোমার উপজেলার কেতকীবাড়ি ইউনিয়নের উত্তর কেতকীবাড়ি গোলাবাড়ি গ্রামে। আটক ব্যাক্তিদের ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবিহা সুলতানা এক হাজার করে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা ও মেয়েটির বাল্য বিয়ে দিবে না মর্মে মুছলেকা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছে।

আজ মঙ্গলবার সকালে ডোমারের চিলাহাটি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই আবু সুফিয়ান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান ঘটনার দিন রাতে উক্ত গ্রামের বিশারু মামুদের কন্যা চিলাহাটি সুন্নি দাখিল মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী জহুরা খাতুন(১৩) সাথে পাশ্ববর্তী দক্ষিণ চান্দখানা গ্রামের মমিনুল ইসলামের ছেলে মতিয়ার রহমান(১৭) সাথে জোড়পূর্বক বিয়ের আয়োজন করা হয়। সন্ধ্যায় বরযাত্রী মেয়ের বাড়ীতে এলে ভ্রাম্যমান আদালতের আদেশে সেখানে পুলিশ গেলে বর পালিয়ে যায়। এ সময় বাল্য বিয়ে বন্ধ করে ওই ৫ জন কে আটক করা হয়। এরপর ভ্রাম্যমান আদালতে রাতেই হাজির করলে আদালত উত্ত জরিমানা আদায় করে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: