১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ডাচ্ কোচ ক্রুইফ আসছেন আজ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নতুন বোতলে পুরনো শরবত, তেমনি নতুন করে ফিরছেন পুরনো কোচ। বলা হচ্ছে লোডভিক ডি ক্রুইফের কথা। আগামী ২ ও ৭ জুন এএফসি এশিয়ান কাপের প্লে অফ ম্যাচে তাজিকিস্তানের বিরুদ্ধে খেলবে বাংলাদেশ। কোয়ালিফাই করার জন্য তাই এই ম্যাচ দুটি বাংলাদেশের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই গত ৭ মে বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়Ñ পুরনো হেড কোচ হিসেবে ক্রুইফই আবার কাজ করবেন। তার সঙ্গে বাফুফের ন্যাশনাল টিমস ম্যানেজমেন্ট কমিটির এ প্রসঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনাও হয়। বাফুফের ইচ্ছেÑ ১৫-২০ দিনের জন্য একটি অনুশীলন ক্যাম্প হবে, সেখানে ক্রুইফের অধীনে নিজেদের প্রস্তুত করে বাংলাদেশের ফুটবলাররা ম্যাচ দুটি খেলবেন। সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় দল যেভাবে ব্যর্থ হয়েছে, বাফুফে আশা প্রকাশ করে ক্রুইফের দায়িত্ব নেয়ার মধ্য দিয়ে সেই ব্যর্থতা যেন জাতীয় দল আবারও কাটিয়ে উঠতে পারে।

সেই লক্ষ্যেই এই ডাচম্যান বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখছেন আজ ভোরে। ক্র্ইুফের এবারের দায়িত্ব স্বল্পমেয়াদের জন্য। সময়টা এক মাস। এর কারণ হচ্ছেÑ বাফুফে ইচ্ছে করেই নতুন কোচ আনছে না। কারণ নতুন কোচ আসলে খেলোয়াড় চিনতেই তার একমাস লেগে যাবে। বাফুফে চাচ্ছিলো এমন কাউকে, যিনি খেলোয়াড়দের ভালমতো চেনেন, এখানকার আবহাওয়াসহ সবকিছু যার নখদর্পণে ... ক্রুইফ হচ্ছেন তেমনই একজন। এ জন্যই ক্রুইফকে বেছে নেয়া।

এই দুই ম্যাচ শেষ হলে ন্যাশনাল টিম ম্যানেজমেন্ট কমিটি দীর্ঘমেয়াদে একজন কোচ নিয়োগ দেবে। সেই দীর্ঘমেয়াদী কোচ ক্রুইফও হতে পারেন।

ক্রুইফের অধ্যায়ে বাংলাদেশের পারফর্মেন্স ছিল মোটামুটি মানের। বাংলাদেশের ফুটবলপ্রেমীদের অনেকেই বলছেন, ক্রুইফ হচ্ছেন সবদিক থেকেই ব্যতিক্রম একজন কোচ। বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ইতিহাসে তিনিই প্রথম বিদেশী কোচ, যিনি দ্বিতীয় দফায় কাজ করার সুযোগ পান। গত ৮ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক ফুটবল আসর ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে’ তার অধীনে খেলে রানার্সআপ হয় স্বাগতিক বাংলাদেশ।