১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

চলে গেলেন অভিষেকে সেঞ্চুরিয়ান দীপক


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ তিন টেস্টের ক্যারিয়ারে ১৮১ রান (১৯৫২-১৯৫৩)। বড় গলায় বলার মতো কিছু নয়। তবে দীপক সোধানকে ভারতবাসী মনে রাখবে বিশেষ কারণে। তিনিই দেশটির প্রথম ক্রিকেটার যিনি অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। সোমবার ৮৭ বছর ২১১ দিন বয়সে আহমেদাবাদের নিজ বাসায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সোধান। দীর্ঘদিন যাবত ফুসফুসের ক্যান্সারে ভুগছিলেন। কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে চিরশত্রু পাকিস্তানের বিপক্ষে ঐতিহাসিক এক সেঞ্চুরি করেই ইতিহাসে ঠাঁই করে নিয়েছেন। ১৭৯ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে লালা অমরনাথের দল যখন ধুঁকছিল ঠিক তখন আট নম্বরে নেমে অভিষেক টেস্টেই সেঞ্চুরি। ম্যাচটা ড্র হয়েছিল। সময় ১৯৫২ সালের ১৩ ডিসেম্বর। মাত্র ২৫ বছর বয়সে শোধানের কীর্তিতে বিশ্ব ক্রিকেটে হৈচৈ পড়ে গিয়েছিল। ফলশ্রুতিতে জায়গা করে নিয়েছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ভারতীয় দলে। কিন্তু চোট কেড়ে নেয় তাকে। কিংস্টনে সিরিজের শেষ টেস্ট খেলতে নেমে ১০ নম্বরে ব্যাট করে ম্যাচ বাঁচিয়েছিলেন তিনি। সেটিই ছিল তার ক্যারিয়ারে শেষ ম্যাচ। তারপর আর দেখা যায়নি টেস্ট দলে। মাত্র ৩ টেস্ট খেলেই ইতি টানতে হয়। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটেও রয়েছে ৪টি সেঞ্চুরি। ৪৩ ম্যাচে করেছিলেন ১৮০২ রান। ব্যাটিং থেকে বোলিংয়ে বেশ ভাল ছিলেন তিনি। বাঁহাতি মিডিয়াম পেসে ৪৩ ম্যাচে শিকার ৭৩ উইকেট। সোধান তার শেষ সাক্ষাতকারে বলেছিলেন, ‘আমি ক্রিকেট খেলতে ভালবাসি। আমার প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট ১৯৬২ সাল পর্যন্ত দীর্ঘায়িত ছিল।’ রঞ্জি ট্রফিতে বারোদা এবং গুজরাটের হয়ে খেলেছেন তিনি। ক্রিকেটবিশ্ব তার মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত।

মুস্তাফিজকে ভোট দিন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আইপিএলের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় নির্বাচন করতে প্রিয় মুস্তাফিজুর রহমানকে ভোট দিন। আইপিএল কর্তৃপক্ষ অনলাইনে ভোট প্রক্রিয়ায় সেরা উদীয়মান নির্বাচন করার সুযোগ করে দিয়েছে। ‘ইমার্জিং প্লেয়ার অব দ্য সিজন’ -শিরোনামে অনলাইনে ভোটের মাধ্যমে সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় নির্বাচন প্রক্রিয়া চলছে। যেখানে তালিকায় আরও আছেন জাসপ্রিত বুমরাহ, কেন রিচার্ডসন, মুরগান, অশ্বিন ও শিবিল কৌশিক। িি.িরঢ়ষঃ২০.পড়স ঠিকানায় প্রবেশ করে ঊসবৎমরহম চষধুবৎ ড়ভ ঃযব ঝবধংড়হ অপশনে ক্লিক করতে হবে। সেখান থেকে মুস্তাফিজকে ভোট দিতে পারবেন যে কেউ। প্রায় ৯৪.১ শতাংশ ভোট পেয়ে সবার ওপরে আছেন সেনসেশনাল বাংলাদেশী পেসার। ২.৫ শতাংশ ভোটে দ্বিতীয় স্থানে ভারতীয় শিবিল কৌশিক। তৃতীয় স্থানে থাকা বুমরাহর ভোট ২.৪ শতাংশ।

পাঁচ বছরের জন্য লীগের স্বত্ব সাইফ পাওয়ারটেকের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী জুলাইয়ে মাঠে গড়াবে ২০১৫-১৬ মৌসুমের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবল। গত বছর ঘরোয়া ফুটবলের সবচেয়ে বড় এই আসরের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিল ফ্যাশন হাউজ মান্যবর। এবার লীগের পৃষ্ঠপোষকের ভূমিকা বদল হতে যাচ্ছে। দৃশ্যপটে আসছে সাইফ পাওয়ারটেক। তবে এক বছরের জন্য নয়, টানা পাঁচ বছর লীগ চালাবে এই প্রতিষ্ঠানটি। শীঘ্রই বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সঙ্গে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করতে যাচ্ছে তারা। এমনটাই জানিয়েছেন সাইফ পাওয়ারটেকের কর্ণধার তরফদার মোঃ রুহুল আমিন। গত মৌসুমে মান্যবর প্রিমিয়ার লীগের স্পন্সরশিপ বাবদ বাফুফেকে দিয়েছিল এক কোটি টাকা। এক্ষেত্রে সাইফ পাওয়ারটেক বাফুফেকে দেবে পাঁচ কোটি টাকা। পাঁচ বছরে পাঁচ কোটি টাকা হারে মোট পঁচিশ কোটিতে লীগের স্বত্ব কিনে নেবে তারা। প্রতিষ্ঠানটি প্রথমে চেয়েছিল আগামী বছর থেকে লীগের সঙ্গে যুক্ত হতে। কিন্তু চলতি বছরের শেষদিকে বাংলাদেশ সুপার লীগ (বিএসএল) থাকায় আগেভাগেই বাফুফের সঙ্গে যুক্ত হতে আগ্রহী হয়েছে তারা। কারণ সুপার লীগের প্রধান পৃষ্ঠপোষকও তারাই! এ প্রসঙ্গে তরফদার রুহুল আমিন বলেন, ‘আমাদের দেশে বর্তমানে যে লীগ হয়, সেটা তেমন আকর্ষণীয় হয় না। দর্শকরাও ঠিকমতো মাঠে আসে না। কিন্তু আমরা এই প্রথা ভাঙতে চাই। লীগটা শুধু ঢাকায় না রেখে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে দিতে চাই।’

বাংলাদেশ সুপার লীগ (বিসিএল) দেশের আটটি বিভাগে অনুষ্ঠিত হবে। সেই আদলে প্রিমিয়ার লীগ আয়োজনে ইচ্ছা সাইফ পাওয়াটেকের।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: