১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আজ দিল্লীর এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে (আইপএল) আজ রয়েছে একটি খেলা। বিশাখাপত্তমে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে আটটায় মুখোমুখি হবে রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টস ও দিল্লী ডেয়ারডেভিলস। ১২ খেলায় মাত্র ৩ জয়ের বিপরীতে ৯ হারে ইতোমধ্যে শেষ চারের দৌড় থেকে ছিটকে গেছে মহেন্দ্র সিং ধোনির পুনে। পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে তারা। অন্যদিকে ১১ খেলায় অংশ নিয়ে ৬ জয়ে পঞ্চম স্থানে জহির খানের দিল্লী। সেরা চারের পথে ডেয়ারডেভিলসদের জন্য ম্যাচটা আরেক সিঁড়ি এগোনোর সুযোগ। সেই সামর্থ্য তাদের রয়েছে। টুর্নামেন্টের শুরুর দিকে বেশ কিছুদিন শীর্ষে ছিল জহিরের দল। শেষ দিকে এসে কিছুটা ছন্দপতন হয়।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের কাছে আগের ম্যাচটাতেও বড় ব্যবধানে হেরেছে দিল্লী। এই বিশাখাপত্তমেই মুম্বাইর ২০৬ রানের চ্যালেঞ্জ টপকাতে গিয়ে ১২৬ রানে অলআউট হয়ে ৮০ রানে হারের লজ্জায় ডোবে তারা। ঘুরে দাঁড়িয়ে এগিয়ে যাওয়ার সামর্থ্য ডেভিলসদের রয়েছে। ব্যাট হাতে কুইন্টন ডি কক, মায়াঙ্ক আগারওয়াল, সাঞ্জু স্যামসনের সঙ্গে করুন নায়ার আর তরুণ ঋষভ পান্থ আছেন। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে দৃশ্যপট বদলে দেয়ার সামর্থ্য রাখেন জেপি ডুমিনি ও ক্রিস মরিস। বোলিংয়ে সেনাপতি জহিরের সঙ্গে দুর্দান্ত স্পিনার অমিত মিশ্র। আছেন ইমরান তাহির আর মরিস। সর্বোপরি জহিরের নেতৃত্বে অনেকটা গোছানো ক্রিকেট খেলছে দিল্লী। আজ তাদের আরও একবার একসঙ্গে জ্বলে উঠতে হবে। প্রতিপক্ষের দুর্দশা ডেভিলসদের খানিকটা উজ্জীবিতই করবে!

ফিক্সিংয়ের দায়ে দুই মৌসুমের জন্য নিষিদ্ধ আইপিএলের অন্যতম সফল দল চেন্নাই সুপার কিংস। চেন্নাইর অপর নাম তো মহেন্দ্র সিং ধোনিই। সেই ধোনিকে অধিনায়ক করে এবার নতুন দল হিসেবে আবির্ভূত পুনে। ভারতকে দু’দুটি বিশ্বকাপ জেতানো সেনাপতিকে ঘিরে আগ্রহের কমতি ছিল না। কিন্তু মাঠের নৈপুণ্যে হতাশ করে তার দল। ১২ ম্যাচে ৯ হারই তার প্রমাণ। ভাগ্যও সুপারজায়ান্টসদের সঙ্গে নেই। একের পর এক ইনজুরিতে বিধ্বস্ত ধোনি-বাহিনী। শুরুটা কেভিন পিটারসেনকে দিয়ে। পেশীতে টান পড়ায় ছিটকে যান ইংলিশ তারকা। এরপর আঙ্গুল ভাঙ্গে প্রোটিয়া ফ্যাফ ডুপ্লেসিসের। ইনজুরিতে পড়েন কার্যকর অলরাউন্ডার মিচেল মার্শও। সর্বশেষ কবজির চোটে আইপিএল শেষ হয়ে যায় স্টিভেন স্মিথের। অবস্থা অতটা গুরুতর ছিল না, আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর সামনে রেখে অধিনায়ককে নিয়ে কোনরকম ঝুঁকি নেয়নি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। এমন চারজনের শূন্যতা পূরণে ধোনিকে হিমশিম খেতে হয়। বিকল্প হিসেবে যোগ দেন উসমান খাজা ও আরেক অস্ট্রেলিয়ান জর্জ বেইলি। তাতেও ভাগ্য বদলায়নি। কেউই শূন্যতা পূরণ করতে পারেননি। পিটারসেন, মার্শ, ডুপ্লেসিস, স্মিথ ঝরে যাওয়ায় প্রত্যেকেই যে ছিলেন ম্যাচ-উইনার। এমন দুরবস্থায় ফের ধোনির নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এক সময়ের সতীর্থ ও আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্স সেনাপতি গৌতম গাম্ভীর বলেছেন, ‘অধিনায়ক নয়, একটা দলের সাফল্যে খেলোয়াড়ই গুরুত্বপূর্ণ। অধিনায়ক হিসেবে ধোনি ইতোমধ্যে তার স্ট্যামিনা হারিয়েছেন।’ গ্রেট সৌরভ গাঙ্গুলির মতে, ধোনিকে ভারত জাতীয় দলের (ওয়ানডে-টি২০) অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া উচিত। তাতে ভারতের ভাল হবে মনে করেন তিনি!

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: