২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আদালতে অধ্যাপক রেজাউল হত্যার দায় স্বীকার জেএমবি সদস্যের


আদালতে অধ্যাপক রেজাউল হত্যার দায় স্বীকার জেএমবি সদস্যের

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যার দায় স্বীকার করেছে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ জেএমবি’র এক সদস্য।

সোমবার বিকেলে রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে জেএমবি সদস্য মাসকাওয়াত হাসান ওরফে সাকিব ওরফে আব্দুল্লাহ। তবে তার পরিচয়ও গোপন রাখা হয়েছে। তার বাড়ি বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে এ বিষয়ে পুলিশের কোন কর্মকর্তা সরাসরি কিছু বলতে রাজি হননি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে জেএমবি সদস্য মাসকাওয়াত হাসানকে কঠোর গোপনীয়তা রক্ষা করে আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় আদালত চত্বরে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য অবস্থান নেয়। এ বিষয়ে এখনও পুলিশের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কোন তথ্য জানানো হয়নি। তবে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়ার পর বিকেল ৬টার দিকে হাসানকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের খাস কামরা থেকে বের করা হয়। পরে তাকে পুলিশের হেলমেট পরিয়ে সাদা পোশাকে থাকা গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা আদালতের হাজতখানায় নেয়। পরে সেখান থেকে হজ এজেন্সি ‘আত্তাইয়ারা ট্রাভেলস্ ইন্টারন্যাশনাল’ লেখা স্টিকারযুক্ত একটি মাইক্রোবাসে (ঢাকা মেট্রো-চ ১৩-৬০৫৩) মাসকাওয়াত হাসানকে উঠিয়ে আদালত চত্বর ত্যাগ করেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এ সময় সাংবাদিকরা ছবি তুলতে গেলেও বাধা দেয় পুলিশ।

এদিকে, মামলার তদন্ত কাজে সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, স্বীকারোক্তিতে মাসকাওয়াত বলেন, অধ্যাপক হত্যাকা-ে তিনি সরাসরি জড়িত ছিলেন। এ বিষয়ে আজ মঙ্গলবার পুলিশের পক্ষ থেকে ব্রিফিং করা হবে বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ এপ্রিল রাজশাহী নগরীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাড়ির কাছেই অধ্যাপক রেজাউল করিমকে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: