১৭ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পিএসজি থেকে ইব্রার রাজকীয় বিদায়


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কিংবদন্তির মতোই ফ্রেঞ্চ লীগের শেষ ম্যাচ খেললেন জ¬াতান ইব্রাহিমোভিচ। প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) জার্সিতে জোড়া গোল করে দলকে বড় জয় উপহার দেয়ার পাশাপাশি নিজেকে নিয়ে গেলেন রেকর্ড বুকে। সুইডিশ এই তারকা ফুটবলারই এখন ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানের এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলদাতার মালিক। শনিবার নান্টেসের বিপক্ষে লীগের শেষ ম্যাচে জোড়া গোল করার পাশাপাশি সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন আরও দুই গোল। এর ফলেই পিএসজি ৪-০ ব্যবধানে রীতিমতো উড়িয়ে দেয় নান্টেসকে। লীগের শেষ ম্যাচে জোড়া গোলের সৌজন্যে চলতি মৌসুমে তার মোট গোল ৩৮। ইব্রার আগে ১৯৭৭-৭৮ মৌসুমে সর্বোচ্চ ৩৭ গোল করে রেকর্ডটা নিজের করে রেখেছিলেন কার্লোস বিয়ানচি। এদিন ম্যাচের ১০ মিনিটের সময় দর্শকরা দাঁড়িয়ে ইব্রাকে সম্মান জানায়। কেননা পিএসজির এই সুইডিশ স্ট্রাইকারের জার্সি নাম্বারও যে ১০।

দীর্ঘ চার বছর পিএসজিতে কাটানোর পর বিদায় বেলায় আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ইব্রাহিমোভিচ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি খুবই আবেগাপ্লুত। চার বছর একত্রে থেকে অসংখ্য শিরোপা জয়ের পর আজকের দিনটা আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ধন্যবাদ ‘ইব্রাকাডাব্রা’ এই চার বছর আমার হৃদয়ে থাকবে।’ এ সময় ইব্রাহিমোভিচ পিএসজি শিরোপা জয়ের এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখবে বলেও মন্তব্য করেছেন, ‘ইব্রা ছাড়া এটা খুবই কঠিন হবে তবে অসম্ভব নয়।’ পিএসজি ছাড়ার পর এখন নতুন করে আলোচনার বিষয় হচ্ছে সুইডিশ অধিনায়কের নতুন ঠিকানা কোথায়? তবে নিজের পরবর্তী ক্লাব চূড়ান্ত হয়ে গেছে বলেই দাবি করছেন ইব্রা। যদিওবা মুখ খোলেননি তিনি। আগামী মৌসুমে কোন্ ক্লাবের জার্সি গায়ে জড়াবেন তা নিজে জানলেও তাদের কাছে প্রকাশ করতে অস্বীকার করেছেন ৩৪ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ড। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, আমেরিকান মেজর লীগ সকার (এমএলএস) ক্লাব এলএ গ্যালাক্সিতে ইব্রাহিমোভিচের সম্ভাব্য নতুন গন্তব্য হওয়ার গুঞ্জন আগে থেকেই চলছে। নতুন করে তার সাবেক ক্লাব এসি মিলানে ফেরারও গুজব রটে। তবে ইব্রা বললেন, ‘আগামী মৌসুমে কোথায় যাব তা আমি জানি। কিন্তু এ মুহূর্তে প্রকাশ করতে পারব না।’ আগামী শনিবার ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনালে অলিম্পিক মার্শেইয়ের মুখোমুখি হবে পিএসজি। সেটাই হবে পিএসজির জার্সিতে তার শেষ ম্যাচ।

এদিকে গোলে সহায়তা করার ক্ষেত্রে এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া কতটা ‘ভয়ঙ্কর’ তা নিশ্চয়ই বলার অপেক্ষা রাখে না! পিএসজির হয়ে প্রথম মৌসুমেই তারই একটি জ্বলন্ত দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার। ফ্রেঞ্চ লীগে এক মৌসুমে ১৮টি এ্যাসিস্ট করার নতুন রেকর্ড গড়েছেন সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ তারকা। নান্টেসের বিপক্ষে মৌসুমের শেষ লীগ ম্যাচে জয়ের রাতে এমন কীর্তি গড়েন ডি মারিয়া। ইব্রাহিমোভিচের জোড়া গোলের প্রথমটি ও লুকাস মৌরার গোল উদযাপনের নেপথ্য কারিগর ছিলেন তিনি। এর আগে ২০১০-১১ মৌসুমে এফসি সোচাক্সের জার্সি গায়ে সতীর্থদের দিয়ে ১৭টি গোল করিয়েছিলেন ফ্রেঞ্চ মিডফিল্ডার মারভিন মার্টিন। পাঁচ বছরের মাথায় ডি মারিয়ার হাত ধরে মার্টিনের কীর্তিটি এখন অতীত। রিয়াল মাদ্রিদে চার বছর কাটানোর পর গত মৌসুমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেন ডি মারিয়া।

কিন্তু রেড ডেভিলসদের হয়ে মাত্র এক মৌসুম খেলেই পিএসজিতে পাড়ি জমান ফুটবল বিশ্বের অন্যতম সেরা এ এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার। পিএসজির জার্সি গায়ে ইতোমধ্যেই লীগ, লীগ কাপের শিরোপা জিতেছেন। ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনালে অলিম্পিক মার্শেইকে হারাতে পারলেই ‘ঘরোয়া ট্রেবল’ জয়ের উল্লাসে মাতবেন কাভানি-মারিয়ারা।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: