মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

একাত্তরের খুনীদের সমূলে উৎপাটন করতে হবে ॥ নাসিম

প্রকাশিত : ১৬ মে ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী/রাবি সংবাদদাতা ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসার পরদিন এবার আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, ১৪ দলের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ খোঁজ নিলেন দুর্বৃত্তের হামলায় নিহত রাবি শিক্ষক রেজাউল করিম সিদ্দিকীর পরিবারের।

এর আগে রবিবার দুপুরে রাবিতে আয়োজিত সংহতি ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, একাত্তরে যারা এদেশে গণহত্যা চালিয়েছিল সেই দলের খুনীরা আজও সোচ্চার। তারা সংগঠিত হয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মানুষদের একের পর এক হত্যা করে চলেছে। এই মৌলবাদী গোষ্ঠী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশের এলাকায় শক্ত ঘাঁটি গড়ে তুলেছে। সেখান থেকেই তারা এই হত্যাকা-গুলো ঘটাচ্ছে। এদেরকে সমূলে উৎপাটন করতে হবে। এজন্য প্রশাসন, ছাত্র সংগঠন এবং ১৪ দলের মধ্যে গড়ে ওঠা দূরত্ব ঘুচিয়ে একসঙ্গে এগিয়ে যেতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি মজবুত হলে মৌলবাদীরা মাথা তুলে দাঁড়ানোর সাহস পাবে না।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যাকা-ের প্রতিবাদে আয়োজিত এ সভায় তিনি আরও বলেন, অধ্যাপক রেজাউল হত্যাকা-ের বিচার বর্তমান সরকারের আমলেই হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার সব হত্যাকা-ের বিচার করছে। অনেক হত্যাকা-ের বিলম্বিত বিচারও হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের বিচার হয়েছে। এত বছর পর যখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে তখন অধ্যাপক রেজাউলের হত্যাকারীদেরও বিচার হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত এই সভায় ১৪ দলের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সভার শুরুতে নিহত শিক্ষকের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। সভায় মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, যুদ্ধাপরাধী ও বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করে আমরা আগুনে হাত দিয়েছি। তাই হাত তো আমাদের পুড়বেই। এই পরাজিত শক্তি ছোবল দিয়ে রক্ত ঝরাবেই। তবে মাঠ পর্যায়ে আমাদের প্রশাসনিক দুর্বলতা এবং রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সমন্বয়হীনতা অস্বীকার করার উপায় নেই। বাঁচতে হলে নিরপেক্ষ হয়ে বসে না থেকে ১৪ দলকে সঙ্গে নিয়ে দুর্গ গড়ে তুলতে হবে।

মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, অধ্যাপক রেজাউল হত্যাকা-ের ক্ষত না শুকাতেই বান্দরবানে ভিক্ষুকে হত্যা করা হলো। এতে বোঝা যাচ্ছে এগুলো কোন আঞ্চলিক ঘটনা নয়, জাতীয় হত্যাকা-। নির্দিষ্ট ব্যক্তিদের হত্যা করে দেশে সন্ত্রাস সৃষ্টি করা হচ্ছে।

পরে মোহাম্মদ নাসিমের নেতৃত্বে ১৪ দলের নেতৃবৃন্দ নগরীর শালবাগান এলাকায় নিহত রাবি শিক্ষক অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকীর বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাত করেন। মোহাম্মদ নাসিম রেজাউলের স্ত্রী ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাত করে দ্রুত বিচারের আশ্বাস দেন।

এরপর বিকেলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ডেন্টাল ইউনিটের একটি ভবন উদ্বোধন করেন। পরে তিনি রামেক হাসপাতালের পরিচালক, চিকিৎসক ও কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

প্রকাশিত : ১৬ মে ২০১৬

১৬/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: