মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

গাইবান্ধায় মৃৎ শিল্পীরা সমস্যা কবলিত

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৬, ০৪:০৬ পি. এম.
গাইবান্ধায় মৃৎ শিল্পীরা সমস্যা কবলিত

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধার কুম্ভকার পরিবারগুলো মাটির নানা সোপিচ, বাসনপত্রের মধ্যে কলস, হাঁড়ি, মাটির ব্যাংক, বাটনা, সরা, থালা, পাতকুয়ার পাটসহ বিভিন্ন খেলনা তৈরী করে এখনও তাদের জীবন জীবিকা নির্বাহ করছে। কিন্তু সম্প্রতি প্লাষ্টিক, সিলভারের বাসনপত্র ও খেলনার চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় সংগত কারণেই মাটির এসমস্ত জিনিসপত্রের চাহিদা ব্যাপক হারে কমেছে। ফলে তাদের পরিবার-পরিজন নিয়ে এই পৈত্রিক পেশায় টিকিয়ে থাকা এখন দুঃসাধ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বাঙ্গালির নিজস্ব কৃষ্টি ও গ্রাম বাংলার হাজার বছরের ঐতিহ্যের সাথে জড়িয়ে আছে চারু, কারু ও মৃৎ শিল্প। এই মৃৎ শিল্পের সাথে জীবন জীবিকাকে জড়িয়ে এখনও গাইবান্ধার বিভিন্ন অঞ্চলে বিরুদ্ধ পরিবেশেও নিজ পেশাকে আঁকড়ে টিকে আছে কতিপয় কুম্ভকার পরিবার।

সেজন্য মাটির নানা সোপিচ, বাসনপত্র এবং খেলনা তৈরি ও রং দেয়ায় তাদের উন্নত প্রযুক্তি এবং রং ব্যবহারের কৌশল বিষয়ে সরকারী উদ্যোগে প্রশিক্ষিত করার উপর গুরুত্বারোপ করে কুম্ভকাররা বলেন। এতে তারা মাটি দিয়ে অনেক উন্নতমানের এবং আকর্ষণীয় জিনিস তৈরী করতে পারতেন। এতে যেমন গ্রামীণ এই আদি শিল্পকর্মটি এবং তাদের কারিগররা স্বকীয় বৈশিষ্টে জীবন জীবিকায় টিকে থাকতে পারতো।

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৬, ০৪:০৬ পি. এম.

১৫/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: