২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কোহলি-এবি তা-বে উড়ে গেল গুজরাট


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ঝড়টা উঠল ব্যাঙ্গালুরুর এম চিন্মাস্বামীতে, আর তাতে উড়ে গেল গুজরাট! আইপিএলে কাল এমন ‘বিস্ময়কর’ ঘটনার জন্ম দিলেন সময়ের দুই আলোচিত ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি ও এবি ডি ভিলিয়ার্স। কোহলি ৫৫ বলে ১০৯, এবি ৫২ বলে অপরাজিত ১২৯Ñ দু’জনে মিলে ২২৯, স্বীকৃত টি২০ ম্যাচে জুটিতে যা সর্বোচ্চ রানের নতুন রেকর্ড। সৌজন্যে আইপিএল ইতিহাসে রেকর্ড দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৪৮ রানের (৩ উইকেট, ২০ ওভার) ইনিংস গড়ে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু জিতল ১৪৪ রানের বড় ব্যবধানে। রানের হিসাবে আইপিএল ইতিহাসের বড় জয় এটিই। পাহাড় ডিঙ্গাতে গিয়ে ১৮.৪ ওভারে ১০৪ রানে অলআউট গুজরাট লায়ন্স।

আইপিএলে এমনিতে দুরন্ত ব্যাটিং করে চলেছেন কোহলি। চিন্মাস্বামীতে কাল ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়কের সঙ্গে ঝড় তুললেন ডি ভিলিয়ার্সও। ৪৩ বলেই তিন অঙ্কের দেখা পেয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্রুততম সেঞ্চুরির মালিক। আইপিএলে যা পঞ্চম দ্রুততম। ভারত টেস্ট অধিনায়কের বল লাগে ১১টি বেশি, ৫৪। দু’জনে মিলে দ্বিতীয় উইকেটে যোগ করেন ২২৯ রান। আগের রেকর্ডটিও ছিল তাদেরই দখলে, গতবার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে করেছিলেন ২১৩! এর আগে টি২০তে এক ইনিংসে দুই সেঞ্চুরির ঘটনা ঘটেছে মাত্র একবারই, ২০১১’র কাউন্টিতে মিডলসেক্সের বিপক্ষে করেছিলেন গ্লুস্টাশায়ারের কেভিন ও ব্রায়েন ও হাসিম আমলা। অথচ ম্যাচের শুরুতে ওপেনিংয়ে যথারীতি ব্যর্থ ‘দানব’ ক্রিস গেইল। টি২০ বিশ্বকাপে সেই যে প্রথম ম্যাচে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন, এরপর থেকে আর দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি তিনি! তিনে নামা ডি ভিলিয়ার্স শুরু থেকেই ঝড় তোলেন। মুখোমুখি তৃতীয় বলে ছক্কা দিয়ে শুরু, এরপর গুজরাট বোলারদের ওপর দিয়ে রীতিমতো রোলার চালিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত ৫২ বলে অপরাজিত ১২৯। তাতে চারের (১০) চেয়ে ছক্কাই (১২) বেশি! সেই তুলনায় কোহলি দেখে শুনে শুরু করেন। ইনিংস যত গড়িয়েছে, তত রুদ্রমূর্তি ধারণ করেছেন তিনি। এক পর্যায়ে ৪০ বলে ৫১, এরপর যেদিকে মেরেছেন বল বাউন্ডারি ছাড়িয়েছে। সেঞ্চুরি পূরণের পথে পরের ৫৩ রান করেছেন মাত্র ১৩ বলে! ১০৯ রানের ইনিংসে চার ৫ ও ছক্কা ৮টি। ব্যাঙ্গালুরুকে ২৪৮ রানের পাহাড়ে চড়িয়েছেন দুই তারকা। আইপিএলে এটি দলীয় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের নজির। সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটাও তাদেরই দখলে, ২০১৩ সালে পুনের বিপক্ষে ২৬৩/৫! মনে আছে? এবারের ‘ফ্লপ’ গেইল ওই ম্যাচে ১৭৫ রানের অতিমানবীয় ইনিংস খেলেছিলেন।

স্কোর ॥ ব্যাঙ্গালুরু ২৪৮/৩ (২০ ওভার; ডি ভিলিয়ার্স ১২৯*, কোহলি ১০৯, গেইল ৬, ওয়াটসন ০; প্রবীন কুমার ২/৪৫, কুলকার্নি ১/৩৩)

গুজরাট ১০৪/১০ (১৮.৪ ওভার; ফিঞ্চ ৩৭, জাদেজা ২১, ম্যাককুলাম ১১, ডোয়াইন স্মিথ ৭; জর্ডান ৪/১১, চাহাল ৩/১৯, বেবি ২/৪)

ফল ॥ ব্যাঙ্গালুরু ১৪৪ রানে জয়ী

ম্যাচসেরা ॥ ডি ভিলিয়ার্স (ব্যাঙ্গালুরু)।

ম্যানইউতে খেলতে চান বোল্ট!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্লাবটির দারুণ ভক্ত তিনি। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জন্য সব সময়ই অনুভব করেন অন্যরকম এক টান। কিন্তু এবার মৌসুমে তেমন সুবিধা করতে পারেনি ম্যানইউ। পয়েন্ট তালিকায় পঞ্চম স্থানে আছে লুইস ভ্যান গালের দলটি। ভাল কিছু করতে না পারার কারণে ভ্যান গালকে সরিয়ে দেয়ার কথাও উঠেছিল। কিন্তু ডাচ এ কোচের ভাগ্যটা এখনও নির্ধারণ হয়নি। তবে নরওয়ের এক টেলিভিশনে সাক্ষাতকার দেয়ার সময় বিশ্বের দ্রুততম গতিমানব উসাইন বোল্ট জানিয়েছিলেন ম্যানইউ’র হয়ে খেলা তার স্বপ্ন। কিন্তু সেটা ভ্যান গাল কোচ থাকলে কোনভাবেই চান না বলেও জানিয়েছেন। তিনি ভ্যান গালের তীব্র সমালোচনা করে দাবি জানান যে, ডাচ এ কোচ ফুটবলারদের সঠিকভাবে ব্যবহার করছেন না। এ সময় তিনি আগামী রিও ডি জেনিরো অলিম্পিকেও ১০০ ও ২০০ মিটার স্প্রিন্টে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব অক্ষুণœ রাখার প্রত্যয় জানান। আর একটিমাত্র ম্যাচ আছে।

এরপরই শেষ হয়ে যাবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের চলতি মৌসুম। চলতি লীগে ৩৭ ম্যাচ খেলে মাত্র ১৮ জয় তুলে নিতে পেরেছে ম্যানইউ। হেরেছে ১০ ম্যাচ। অন্যতম প্রতিপক্ষ ম্যানচেস্টার সিটিও এগিয়ে আছে তাদের চেয়ে ২ পয়েন্ট বেশি নিয়ে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: