২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

যুদ্ধাপরাধের ১০ মামলা আপীল বিভাগে চূড়ান্ত নিষ্পত্তির অপেক্ষায়


যুদ্ধাপরাধের ১০ মামলা আপীল বিভাগে চূড়ান্ত নিষ্পত্তির অপেক্ষায়

বিকাশ দত্ত ॥ ট্রাইব্যুনালের দেয়া দ-ের বিরুদ্ধে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগে চূড়ান্ত নিষ্পত্তির অপেক্ষায় আরও ১০টি মামলা রয়েছে। জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামী, সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ, দুই সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ কামারুজ্জামান, কাদের মোল্লা ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরীর মৃত্যুদ- কার্যকর করা হয়েছে। গোলাম আযম, আব্দুল আলীম এই দুইজন মৃত্যুবরণ করায় আপীল বিভাগ তাদের মামলা অকার্যকর ঘোষণা করেছেন। অন্যদিকে দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে আপীল বিভাগ দ- কমিয়ে আমৃত্যু কারাদ- প্রদান করেছেন। ১০ জন আসামি পলাতক থাকায় ট্রাইব্যুনালের দেয়া দ- বহাল রয়েছে। ট্রাইব্যুনালে ২৩টি মামলায় ৩৩ জনকে দ- দেয়া হয়। এর মধ্যে ২২ জনের মৃত্যুদ-, একজনের যাবজ্জীবন, একজনের ৯০ বছরের কারাদ- এবং ১০ জনকে আমৃত্যু কারাদ- প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৫টি মামলা আপীল দায়ের করা হয়।

এদিকে অতিরিক্ত এ্যাটনি জেনারেল মুরাদ রেজা আশা করছেন, এ বছরের মধ্যে বেশ কয়েকটি মামলার নিষ্পত্তি হবে। মামলাগুলোর মধ্যে মীর কাশেম আলীর পূর্ণাঙ্গ রায়সহ, মোঃ মোবারক হোসেন, সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারসহ বেশ কিছু মামলার শুনানি হবে বলে আশা করছেন। আপীল বিভাগে নিষ্পত্তির জন্য ১০ মামলার মধ্যে রয়েছে জামায়াতের নির্বাহী কমিটির সদস্য মীর কাশেম আলী, আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত মোঃ মোবারক হোসেন, জাতীয় পার্টির সাবেক মন্ত্রী সৈয়দ মোঃ কায়সার, জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলাম, জামায়াতের নায়েবে আমির আব্দুস সুবহান, জাতীয় পার্টির সাবেক নেতা আব্দুল জব্বার, জামায়াতের নেতা আব্দুস সুবহান, শিবগঞ্জের মুসলিম লীগ নেতা মাহিদুর রহমান এবং আফসার হোসেন চুটু, ফোরকান মল্লিক, কসাই সিরাজ মাস্টার ও এ্যাডভোকেট সামসুদ্দিন আহম্মেদ (এখনও আপীল করেনি)।

ইতোমধ্যে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে আপীল চূড়ান্ত নিষ্পত্তি শেষে জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামী, সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ, দুই সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আলী আব্দুল কাদের মোল্লা, মুহাম্মদ কামারুজ্জামান ও বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদ- কার্যকর করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল জামায়াতের সাবেক আমির গোলাম আযমকে ৯০ বছরের কারাদ- ও আব্দুল আলীমকে আমৃত্যু কারাদ- প্রদান করেন। এই দুই আসামি অসুস্থ অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে আপীল বিভাগ তাদের আপীল অকার্যকর ঘোষণা করেছেন। জামায়াতের নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে ট্রাইব্যুনাল মৃত্যুদ- প্রদান করলেও সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগে তাকে আমৃত্যু কারাদ- প্রদান করেন। সরকার ও আসামি পক্ষ উভয়ই রিভিউ করেছে।

অন্যদিকে ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক দ-প্রাপ্ত ১০ আসামি পলাতক রয়েছেন। পলাতক থাকার কারণে তারা আপীল করতে পারেনি। কাজেই তাদের দ- বহাল রয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: