১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বজ্রপাতে একই পরিবারের দুজনসহ পাঁচজনের মৃত্যু


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে একই পরিবারের দুজনসহ কমপক্ষে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে নড়াইলে একই পরিবারের দুজন, দিনাজপুরে এক মহিলা শ্রমিক, ঠাকুরগাঁওয়ে এক কৃষক এবং পটুয়াখালীর দশমিনায় এক গৃহবধূর রয়েছেন। শুক্রবার ও শনিবার বজ্রপাতে এসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতার।

নড়াইলের লোহাগড়ার হলদাহ গ্রামের মোজাফফার মজুমদার ও সুজিত রায় জানান, শুক্রবার ঝড়-বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে হলদাহ গ্রামের কালু রায়ের স্ত্রী ছায়া রানী রায় (৪৫) ও ভাইপো প্রতাপ রায়ের (১৭) মৃত্যু হয়েছে। প্রতাপের বাবার নাম পরিমল রায়। ছায়া রানী রায় ও প্রতাপ রায় স্থানীয় বিলে গরু আনতে গেলে এ ঘটনা ঘটে।

দিনাজপুর ॥ বীরগঞ্জে শনিবার দুপুর দেড়টায় ক্ষেতে কাজ করার সময় এক মহিলা মারা গেছেন। এ সময় অপর এক মহিলা শ্রমিক আহত হনন। নিহত চিত্রা রানী রায় (২৫) সুন্দরীহাট গাছ গ্রামের পদ্মনাথ রায়ের স্ত্রী। আহত শ্রমিকের নাম দলা রানী রায় (২৭)। তিনি ওই গ্রামের জ্যোতিষ চন্দ্র রায়ের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার দুপুরে চিত্রা রানী রায়সহ ১৪ কৃষি শ্রমিক ভজহরি চক্রবর্তী নামে এক গৃহস্থের জমির ধান কাটছিল। দুপুর দেড়টার সময় বৃষ্টি নামে এবং একই সঙ্গে বজ্রপাত হয়। এতে চিত্রা রানী রায় এবং আরও একজন আহত হন। এদের মধ্যে চিত্রা রানীর পুরো শরীর ঝলসে যায়। তাকে চাকাই হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় দলরানী রায় অজ্ঞান হয়ে পড়েন। স্থানীয় হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

দশমিনা ॥ পটুয়াখালীর দশমিনা সদর ইউনিয়নের হাজিরহাট এলাকায় শুক্রবার রাতে শাহনাজ বেগম নামে এক গৃহবধূ বজ্রপাতে মারা যায়। বাগানে টিন আনতে গিয়ে বজ্রপাতে তিনি মারা যান।

ঠাকুরগাঁও ॥ ঠাকুরগাঁওয়ে বজ্রপাতে আবু তালেব (২৪) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টায় ভেলাজান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আবু তালেব ভেলাজান আলাদি হাট এলাকার আতিকুর রহমানের ছেলে।

এলাকাবাসী জানান, শনিবার সকাল থেকে ভেলাজান আলাদি হাট এলাকার কৃষক আবু তালেব মাঠে বোরো ধান কাটছিলেন। দুপুর ১২টার সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই আবু তালেব মারা যান।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: