২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

সোফিয়া কনফারেন্সের রোল মডেল শেখ হাসিনা


সোফিয়া কনফারেন্সের রোল মডেল শেখ হাসিনা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ লন্ডন হয়ে আগামী ১৮ মে (বুধবার) বুলগেরিয়ার রাজধানী সোফিয়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১৮ থেকে ২০ মে সোফিয়ায় অনুষ্ঠেয় গ্লোবাল উইমেন লিডার্স ফোরামের ‘কাউন্সিল অব উইমেন ইন বিজনেস ইন বুলগেরিয়া’ কনফারেন্সে গেস্ট অব অনার ও কি-নোট স্পিকার হিসেবে তিনি বক্তব্য রাখবেন। লন্ডনে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানাতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে প্রবাসীরা। লন্ডনের রাস্তায় প্রধানমন্ত্রীর ছবিসংবলিত ব্যানার শোভা পাচ্ছে।

নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশকে রোল মডেল বিবেচনা করেই সারাবিশ্বের বিভিন্ন সেক্টরে কর্মরত হাইপ্রোফাইল নারীদের এই সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গেস্ট অব অনার করা হয়েছে। খবর বাংলানিউজ ও সংবাদদাতার।

১৮ মে স্থানীয় সময় বিকেলে কনফারেন্সের উদ্বোধনী অধিবেশনে মূল বক্তাও (কি-নোট স্পীকার) থাকবেন তিনি। গ্লোবাল উইমেন লিডার্স ফোরাম সূত্র জানায়, নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। আর সে কারণেই দেশটির প্রধানমন্ত্রীকে সম্মানিত অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

কনফারেন্সে রাজনীতি, ব্যবসা, এনজিওসহ বিভিন্ন সেক্টর থেকে অংশ নিতে যাওয়া প্রতিনিধিরা উদ্বোধনী অধিবেশনেই শেখ হাসিনার কাছ থেকে শুনবেন সেই গল্প, যাতে থাকবে নারীর ক্ষমতায়নের চলমান অভিযাত্রায় বাংলাদেশের অভিজ্ঞতার কথা। গ্লোবাল উইমেন লিডার্স ফোরাম সোফিয়ায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীসহ বিশ্বের শীর্ষ নারীদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত। ফোরামের একজন কর্মকর্তা বলেন, গ্লোবাল উইমেন লিডার্স ফোরাম ব্যবসা, রাজনীতি এবং সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সেক্টরের নারী নেত্রীদের ঐক্যবদ্ধ করতেই এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে।

তিনি জানান, তিন দিনব্যাপী ওই কনফারেন্সে অংশগ্রহণকারীরা নারীর ক্ষমতায়ন ও লিঙ্গ সমতার বর্তমান অবস্থা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীর ভূমিকা কিভাবে আরও দৃঢ় করা যায় সে পথ খুঁজবেন। নেতৃস্থানীয় নারী রাজনীতিক, উদ্যোক্তা, সরকারী কর্মকর্তা ও এনজিও প্রতিনিধিরা নারীর ক্ষমতায়নে সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করবেন তিন দিনের বিভিন্ন অধিবেশনে। ভবিষ্যত প্রজন্মের নারী নেতৃত্ব তৈরিতে রোল মডেল খোঁজাই এ কনফারেন্সের সামগ্রিক লক্ষ্য বলেই জানান গ্লোবাল উইমেন লিডার্স ফোরামের ওই কর্মকর্তা। গ্লোবাল উইমেন লিডার্স ফোরামের ডকুমেন্টে কনফারেন্স অতিথিদের পরিচয় দিতে গিয়ে বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় শেখ হাসিনার দীর্ঘ সংগ্রামের কথা তুলে ধরা হয়েছে।

তিনবারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন মন্তব্য করে মৌলবাদ ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থানের কথা তুলে ধরা হয়েছে তার পরিচিতিতে। এতে গুরুত্ব পেয়েছে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গঠনের কথাও।

এছাড়াও মানুষের ভোট, খাদ্য ও মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় শেখ হাসিনার চলমান সংগ্রামের কথা উল্লেখ রয়েছে। তুলে ধরা হয়েছে বিভিন্ন বিশ্ব সংস্থা থেকে এসবের স্বীকৃতি হিসেবে সম্মাননা পাওয়ার কথাও। এসব সংগ্রাম করতে গিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর জীবনের ওপর যে বার বার হামলা হয়েছে, যাতে তিনি পরোয়া না করেই সামনে এগিয়ে যাচ্ছেন, সে কথাও জানানো হয়েছে তার পরিচিতিতে।

প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে লন্ডনে ব্যাপক প্রস্তুতি ॥ ভিয়েনা থেকে এম নজরুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫ মে সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইটে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের উদ্দেশে রওনা হবেন। স্থানীয় সময় বিকেল ৪টা ১৫ মিনিটে লন্ডনের হিথ্রো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছবেন। সফরকালে তিনি পশ্চিম লন্ডনের একটি হোটেলে অবস্থন করবেন।

হিথ্রো বিমানবন্দর ও হোটেলের লবিতে তাঁকে স্বাগত ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানাতে প্রবাসী বাঙালীদের পক্ষ থেকে প্রস্তুতি চলছে। এই স্বাগত ও ফুলেল শুভেচ্ছার আয়োজন ব্যাপকভাবে সফল করার লক্ষ্যে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরিফ, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, সাবেক সভাপতি ও বর্তমান কমিটির উপদেষ্টা পরিষদের সভাপতি আলহাজ সামসুদ্দিন খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবুল হাসেম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নঈমুদ্দিন রিয়াজ, আনোয়ারউজ্জামান চৌধুরী, যুক্তরাজ্য প্রবাসী সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গণি, যুক্তরাজ্য মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খালেদা মোস্তাক কোরাইশী, সাধারণ সম্পাদক মুসলিমা সামস বনি, যুক্তরাজ্য যুবলীগের সভাপতি ফখরুল ইসলাম মধু, সাধারণ সম্পাদক সেলিম খান, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সভাপতি তামিম আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক সজিব ভূঁইয়াসহ নেতৃবৃন্দ সর্বাত্মকভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের সহযোগিতা করছেনÑ যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ, যুক্তরাজ্য মহিলা আওয়ামী লীগ, যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগ, যুক্তরাজ্য শ্রমিক লীগ, যুক্তরাজ্য আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগ, যুক্তরাজ্য বঙ্গবন্ধু পরিষদ, যুক্তরাজ্য প্রজন্ম লীগ, যুক্তরাজ্য কর্মজীবী লীগ, যুক্তরাজ্য বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ, যুক্তরাজ্য আমরা ক’জন মুজিব সেনাসহ প্রবাসী বাঙালীদের বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

নেত্রীকে স্বাগত-শুভেচ্ছা জানাতে সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি জার্মান প্রবাসী শ্রী অনিল দাশগুপ্ত, অস্ট্রিয়া প্রবাসী মানবাধিকারকর্মী, লেখক ও সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এম নজরুল ইসলাম, ইতালি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবদুস ছালাম ভূঁইয়া, ফ্রান্স আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক সম্পাদক মোহাম্মদ আতিকুজ্জামান বর্তমানে লন্ডনে অবস্তান করছেন। এছাড়া ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে নেতাকর্মীরা লন্ডনে পৌঁছতে শুরু করেছেন।

এদিকে, লন্ডনের বিভিন্ন রাস্তার পাশে লাইটপোস্ট এবং দেয়ালগুলোতে শোভা পাচ্ছে শেখ হাসিনার হাস্যোজ্জ্বল ছবিসংবলিত পোস্টার, ফেস্টুন ও ব্যানার। এদিকে আগামী ২১ মে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: