মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

অধ্যাপক রেজাউলের খুনীদের শীঘ্রই হাজির করা হবে

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৬
অধ্যাপক রেজাউলের খুনীদের শীঘ্রই হাজির করা হবে

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী/রাবি সংবাদদাতা ॥ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যাকা-ের ২৪ দিন পর ক্যাম্পাসে এসে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শীঘ্রই হাজির করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। শিক্ষক রেজাউল করিম হত্যাকা- নিয়ে শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এ ঘোষণা দেন তিনি। এ সময় তিনি বলেন, শিক্ষক রেজাউল করিম হত্যা মামলার তদন্তের খুব কাছাকাছি পৌঁছেছে পুলিশ। আসামিদেরও তাই দ্রুতই আদালতে হাজির করা হবে। এ মামলা নিয়ে পুলিশ সব ধরনের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, রাজশাহী-৩ আসনের এমপি আয়েন উদ্দিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) মিজানউদ্দিন, উপ-উপাচার্য প্রোভিসি সারোয়ার জাহান, পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহিদুল্লাহ, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি ফরিদ উদ্দিন প্রমুখ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বাংলাদেশের মানুষ জঙ্গীবাদ পছন্দ করে না। রাজশাহীকে জঙ্গীবাদের আস্তানা গড়তে দেয়া হবে না। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ গোটা মহনগরীতে দৃশ্যমান পুলিশ টহলের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে রাজশাহীবাসী নিশ্চিত হতে পারেন-পুলিশ প্রশাসন আপনাদের পাশে আছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিহত শিক্ষকের মেয়ে শতভীকে উদ্দেশ করে বলেন, আমাকে প্রায়ই নিহত পরিবারের মুখোমুখি হতে হয়। তিনি যেভাবে আবেদন-নিবেদন করলেন, তাকে অভয় দেয়ার ভাষা আমার নেই। শুধু এটুকুই বলতে চাই আপনি অবশ্যই আপনার বাবা হত্যার বিচার দেখতে পাবেন। আপনার সামনে খুনীদের বের করে শাস্তি নিশ্চিত করবই।

আসাদুজ্জামান খান শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, আপনাদের কাছে বিশেষ অনুরোধ, আপনারা আন্দোলন তুলে নিয়ে ক্লাসে ফিরে যান। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে অনুরোধ, শিক্ষক সমিতির কাছে অনুরোধ ও শিক্ষার্থীদের কাছে অনুরোধ আপনারা নিশ্চিন্তে ক্লাসে ফিরে যান। আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি। অবশ্যই এ হত্যাকারীদের বিচার করব।

সমাবেশে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, দেশের সবচেয়ে বড় পরিবার হলো শিক্ষা পরিবার। সেই পরিবারের অভিভাবক শিক্ষক হত্যার বিচার না হলে শিক্ষার পরিবেশ স্বাভাবিক রাখা সম্ভব নয়। শিক্ষা পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে আমি জড়িতদের গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে সাতটি দাবি রাখতে চাই। আর এ দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা আশ্বস্ত হতে পারছি না। সমাবেশে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, পুলিশের কাজ অপরাধীকে গ্রেফতার করে কাঠগড়ায় পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া। কিন্তু বিচার প্রক্রিয়া দ্রুত করতে পরের ধাপে যারা আছেন আপনাদের দাবি তাদের কাছেও পৌঁছাতে হবে। আপনারা ভীত হবেন না তাহলে দুষ্কৃতকারীরা বিজয়ী হবে।

রাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোঃ শহীদুল্লাহর সভপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহিদুল্লাহ বলেন, পুলিশ মামলার তদন্ত কাজের অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। খুব শীঘ্রই আসামিদের আদালতে হাজির করা হবে। শিক্ষক হত্যার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনতে সব চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পদক অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল, রাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আজম শান্তনু, ইংরেজী বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মাসউদ আখতার ও নিহত অধ্যাপক রেজাউলের মেয়ে রিজওয়ানা হাসিন শতভী বক্তব্য রাখেন। এতে প্রায় দুই হাজার শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নগরীর শালবাগান এলাকায় নিহত শিক্ষকের বাড়ি পরিদর্শন করেন। এ সময় তার পরিবারকে সান্ত¡না দিয়ে দ্রুত বিচারের আশ্বাস দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ এপ্রিল সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রাজশাহী নগরীর শালবাগান এলাকায় বাসা থেকে মাত্র ১৫০ গজ দূরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এরপর থেকে বিচার দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৬

১৫/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: