২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সোনারগাঁয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তার সমর্থকের উপর হামলা


নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ ॥ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে আসন্ন নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রচারণার সময় প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউসুফ দেওয়ান ও তার সমর্থকদের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ প্রায় ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউসুফ দেওয়ান অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী দেওয়ান উদ্দিন চুন্নুর সমর্থকরা তাদের উপর হামলা চালিয়ে আহত করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে উপজেলার চৌরাপাড়া গ্রামে।

জানা গেছে, শুক্রবার প্রতীক বরাদ্দ শেষে বিকেলে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউসুফ দেওয়ানের সমর্থকরা লাধুরচর এলাকায় প্রচারণা চালাতে যায়। এ সময় প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর সমর্থকরা তাদেরকে মারধর করে মাইক ভেঙ্গে ফেলে। এ ঘটনায় ইউসুফ দেওয়ান নোয়াগাও ইউনিয়নের চৌরাপাড়া মোড় এলাকায় শুক্রবার রাতে একটি প্রতিবাদ সভা করে। ওই প্রতিবাদ সভায় হামলা চালিয়ে ইউসুফ দেওয়ান ও তার সমর্থকদের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ করা হয়। হামলায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউসুফ দেওয়ান, তার ভাই সিব্বির আহম্মেদ দেওয়ান, হোসাইন আহম্মেদ দেওয়ান, তার ছোট ছেলে মাহমুদুর হাসান, সমর্থক শরীফ হোসেন, আমিনউদ্দিন মোল্লা ও শাহ আলমসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। পরে এলাকাবাসী ইউসুফ দেওয়াসহ ৫ জনকে আহত অবস্থায় করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও বাকীদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউসুফ দেওয়ান জানান, আওয়ামী লীগের প্রার্থী দেওয়ান উদ্দিন চুন্নুর লোকজন প্রচারণার সময় মাইক ভেঙ্গে ফেলে এবং আমার সমর্থকদের মারধর করে। এ প্রতিবাদে একটি সভা করলে তার সমর্থকরা আমাকে ও আমার সমর্থকদের উপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। এতে আমিসহ ১৫-২০ জন আহত হয়েছি।

আওয়ামীলীগের প্রার্থী দেওয়ান উদ্দিন চুন্নু সাংবাদিকদের জানান, আমার লোকজন প্রচারণা করার সময় আমার প্রতিদ্বন্ধি প্রাথী ইউসুফ দেওয়ানের লোকজনের সাথে কথাকাটাকাটি হয়। এ নিয়ে ইউসূফ দেওয়ানের লোকজন আমার লোকজনের ওপর হামলা চালানোর সময় তারা বাধা দেয়। তাদের লোকজনের আক্রমনেই তারা আহত হয়। আমার কিছু লোকজনও তাদের হামলায় আহত হয়। সোনারগাঁও থানার ওসি শাহ মোহাম্মদ মঞ্জুর কাদের পিপিএম জানান, দু’ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষই মামলা দায়ের করেছে। ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: