২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

চ্যাম্পিয়ন বার্সা না রিয়াল ফয়সালা আজ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উত্তেজনার পারদটা এখন তুঙ্গে। অনেকদিন পর স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা নির্ধারণ হতে যাচ্ছে দুই প্রধানের শেষ ম্যাচের মধ্য দিয়ে। আজ রাতে শিরোপা রেসে থাকা রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সিলোনা ভিন্ন ভিন্ন ম্যাচে মাঠে নামছে। এই ম্যাচ দুটির মধ্যই দিয়েই নিশ্চিত হবে কোন দলের শোকেস যাচ্ছে ২০১৫-১৬ মৌসুমের ট্রফি।

বার্সা ও রিয়াল দু’দলকেই খেলতে হবে প্রতিপক্ষের মাঠে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সিলোনাকে আতিথ্য দেবে গ্রানাডা। আর রিয়াল মাদ্রিদকে বরণ করে নেবে ডিপোর্টিভো লা করুনা। দুটি ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায়। ম্যাচটি বার্সা জিতলে চ্যাম্পিয়ন হবে তারাই। তবে ড্র কিংবা হারলে সুযোগ থাকবে রিয়ালের। আর এ কারণেই শেষ ম্যাচটি নিয়ে বিরাজ করছে উত্তেজনা। দু’দলের পক্ষ থেকে ঘুষ দেয়া নেয়ার অভিযোগ পাল্টা অভিযোগও উঠেছে। জোর গুঞ্জন, অর্থ দিয়ে নাকি গ্রানাডাকে ‘ম্যানেজ’ করেছে কাতালানরা! আগের ম্যাচে হেরে শিরোপা রেস থেকে ছিটকে পড়েছে এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। এরপরও মৌসুমে নিজেদের শেষ ম্যাচে তারা মাঠে নামছে সেল্টা ডি ভিগোর বিপক্ষে। বর্তমানে ৩৭ ম্যাচ শেষে ৮৮ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে বার্সা। ৮৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে রিয়াল ও ৮৫ পয়েন্ট নিয়ে তিনে এ্যাটলেটিকো। জিতলেই চ্যাম্পিয়ন। এ কারণে সুবর্ণ সুযোগটি কাজে লাগতে বদ্ধপরিকর লুইস এনরিকের দল। দুর্ঘটনা এড়াতেও তাই সতর্ক কাতালানরা। অথচ এক সময় রিয়ালের চেয়ে ১২ পয়েন্ট এগিয়ে থাকা বার্সা অদম্য গতিতে শিরোপা ধরে রাখার পথে এগিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু গত মাসে টানা তিন ম্যাচ হারে লুইস এনরিকের দল। তবে এরপর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে টানা চার ম্যাচ জেতেন মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা। সব ম্যাচেই প্রতিপক্ষকে গোলবন্যায় ভাসিয়ে তারা।

বার্সা ডিফেন্ডার জ্যাভিয়ের মাশ্চেরানো বলেন, আমরা একটি দল এবং আমরা সবাই জানি, এটা আমাদের ওপর নির্ভর করে। গত কয়েক সপ্তাহে আমরা যেমন অন্য দলগুলোর বিপক্ষে খেলেছি, এটাও তেমনই একটি কঠিন ম্যাচ হবে। তিনি আরও বলেন, ভুলের কোন জায়গা নেই এবং এটা বোঝায়, কোন রকমের দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য সম্ভাব্য সেরা উপায়ে ম্যাচটি খেলতে চেষ্টা করব আমরা। প্রতিপক্ষ গ্রানাডা সম্পর্কে তিনি বলেন, নিরাপত্তা নিশ্চিত করে ফেলায় কিছুটা নিরুদ্বেগ একটি দলের বিপক্ষে খেলব আমরা। কোচ লুইস এনরিকে বলেন, আমরা শিরোপা ছাড়া কিছুই ভাবছি না। অনেকেই অনেক কিছু বলছে। কিন্তু আমাদের মনযোগ খেলায়। জিতে সবকিছুর জবাব দিতে চাই।

টানা দ্বিতীয়বারের মতো লা লিগার শিরোপা জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী পিচিটি ট্রফি জিততে যাওয়া লুইস সুয়ারেজও। গ্রানাডার বিপক্ষে ক্লিন শিটই (গোল হজম না করা) বার্সার প্রথম অগ্রাধিকার থাকবে জানিয়ে সুয়ারেজ বলেন, ক্লিন শিট ধরে রাখাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গ্রানাডা নিজেদের মাঠে মানরক্ষার জন্য জিততে চাইবে। তবে ম্যাচ জেতার জন্য আমাদের যথেষ্ট সক্ষমতা আছে। আমরা জানি, কিছু কঠিন সময় অপেক্ষা করছে, যেমনটা সবসময়ই লীগের এই পর্যায়ে হয়ে থাকে। উরুগুইয়ান তারকা আরও বলেন, আমরা দুটি শিরোপা জিততে পারি (লীগ ও সেভিয়ার বিপক্ষে কোপা ডেল’রে ফাইনাল) অথবা হারতেও পারি। আমার চোখে বার্সাই বিশ্বের সেরা দল এবং জানি এর জন্য চাপ আসে। কিন্তু আমাদের নিজেদের ওপর পূর্ণ আস্থা আছে।

শেষ ম্যাচে মিরাক্যালের আশা করছে রিয়ালও। দলটির কোচ জিনেদিন জিদানের বিশ্বাস, গ্রানাডা বার্সাকে আটকে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। আর সেটা হলে নিজেদের ম্যাচ জিতলে বাজিমাত করবে রিয়ালই। এ প্রসঙ্গে জিদান বলেন, আমাদের ভাল সুযোগ আছে। আশা করছি গ্রানাডা তাদের (বার্সা) আটকে দিতে পারবে। আর আমরাও আমাদের কাজটা ঠিকমতো করতে পারব।

শেষদিনের নাটকে বার্সা-রিয়াল দুই দলের বিপক্ষেই পাল্টাপাল্টি রেফারিকে কেনার অভিযোগ উঠছে। সেই সঙ্গে আছে ঘুষ আদান-প্রদানের বিষয়টাও। এ নিয়ে এখন সরব আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। অভিযোগ উঠেছে বার্সা-রিয়াল দুই দলই প্রতিদ্বন্দ্বীর পথ আটকাতে অন্য দলের প্রতিপক্ষকে কাঁড়ি কাঁড়ি অর্থের প্রলোভন দেখাচ্ছে। স্প্যানিশ ফুটবলে এভাবে উপহার দেয়া নেয়ার প্রথা বেশ পুরোনোই। প্রতি মৌসুমে একেবারে শেষদিকে এসে শিরোপা দৌড়ে টিকে থাকা দলগুলো নতুন এই খেলায় মেতে ওঠে প্রতিপক্ষকে উজ্জীবিত করতে। এবারও নাকি তাই হচ্ছে! উজ্জীবিত করতে অর্থের লোভ দেখানো হচ্ছে। গোপন এ প্রথা সবার নজরে প্রথম আসে ২০০৭ মৌসুমে। সেবার লা লিগার শিরোপা নির্ধারিত হয়েছিল শেষদিনে। সেবারও রিয়াল মাদ্রিদ বার্সিলোনাকে রুখে দেয়ার জন্য অর্থ পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছিল। এবার শোনা যাচ্ছে, কাতালানরা নাকি গ্রানাডাকে ছেড়ে খেলতে টাকার লোভ দেখিয়েছেন। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত কি হয়!

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: