১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ইউরোপে নতুন ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি স্থাপন যুক্তরাষ্ট্রের


রোমানিয়ার দক্ষিণাঞ্চলের দিভেসেলুতে একটি ভূমিভিত্তিক ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি চালু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। নতুন এই ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি স্থাপনের লক্ষ্য হলো বহিঃশত্রুর আক্রমণ থেকে যুক্তরাষ্ট্রসহ ন্যাটোভুক্ত ইউরোপের দেশগুলোকে রক্ষা করা। খবর বিবিসির।

নতুন এই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর তৈরি স্বল্প ও মাঝারিপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা থেকে রক্ষা করা যাবে ন্যাটোভুক্ত দেশগুলোকে। তবে রাশিয়া একে তার নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে মনে করছে। যদিও ন্যাটো তা অস্বীকার করেছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর উর্ধতন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পুরো ইউরোপকেই এক ধরনের নিরাপত্তা ঢালে নিয়ে আসবে এ ব্যবস্থা। শুরু থেকেই এ কার্যক্রমের বিরোধিতা করেছে রাশিয়া। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেন, নতুন এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা চালুর ফলে রাশিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা মারাত্মক হুমকির মুখে পড়বে। এটি ইউরোপের স্থিতিশীলতাকে আরও জটিল করে তুলবে। রাশিয়ার অভিযোগ বরাবরের মতই নাকচ করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো। নতুন প্রতিরক্ষা স্টেশনটি উদ্বোধনের সময় মার্কিন উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, রুশ রকেট ঠেকানোর জন্য এই স্টেশন তৈরি করা হয়নি।

নতুন এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা চালুতে যুক্তরাষ্ট্রকে ৮০ কোটি মার্কিন ডলারের বেশি অর্থ ব্যয় করতে হয়েছে। পোল্যান্ডেও এ রকম একটি স্টেশন তৈরির কাজ চলছে। ২০১৪ সালে ইউক্রেনের ক্রিমিয়া রাশিয়ায় একীভূত হয়ে যাওয়ার পর থেকেই পশ্চিমা বিশ্ব বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কের অবনতি দেখা দেয়।