২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

মুস্তাফিজকে পেতে আত্মবিশ্বাসী সাসেক্স


মুস্তাফিজকে পেতে আত্মবিশ্বাসী সাসেক্স

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্ব ক্রিকেটে আগ্রহের কেন্দ্রে এখন একজনই ক্রিকেটার। বিশ্বের যেকোন দলই এখন তাকে পেতে উন্মুখ। বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে ইতোমধ্যেই বিশ্বের জনপ্রিয় ক্রিকেট আসরগুলোর বড় বড় দলগুলো পেতে সচেষ্ট। চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল) টি২০ আসরে যা করেছেন তাতে নিজেকে সবার থেকে আলাদা করে ফেলেছেন এ পেস বিস্ময়! সে কারণেই মুস্তাফিজকে এবার সাসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব দলে ভেড়ায়। আইপিএল শেষে কিছুদিন বিশ্রামের পরই ন্যাটওয়েস্ট টি২০ ব্লাস্ট ও রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপ খেলতে ইংল্যান্ড যাওয়ার কথা তরুণ এ ‘সেøায়ার’ ও ‘কাটার’ মাস্টারের। কিন্তু মুস্তাফিজ তার নিকটাত্মীয় ও কাছের লোকদের বলেছেন টানা খেলার পরিশ্রম থেকে মুক্তি পেতে সাসেক্সে নাও যেতে পারেন। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) থেকে কোন আপত্তি নেই এবং জানানো হয়েছে বিষয়টি মুস্তাফিজের ওপরই নির্ভরশীল। সে কারণেই সাসেক্স থেকে প্রত্যয় জানানো হয়েছে মুস্তাফিজকে পাওয়ার বিষয়ে। মুস্তাফিজের যোগদানের বিষয়টি নিশ্চিত করতে না পারলেও সাসেক্স কোচ মার্ক ডেভিস জানিয়েছেন দলের সবাই উন্মুখ হয়ে আছে বিশ্বের সেরা বোলারকে পেতে।

বিশ্ব ক্রিকেটে সবচেয়ে আকর্ষণীয় ঘরোয়া আসর ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেট। ক্রিকেটের জন্মলগ্ন থেকেই কাউন্টিতে খেলার স্বপ্ন দেখেন যেকোন দেশের ক্রিকেটার। কিন্তু বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সেই সুযোগ খুব কম ক্রিকেটারেরই হয়েছে। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান প্রথম বাংলাদেশী ক্রিকেটার হিসেবে ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেট খেলেন। পরবর্তীতে ওপেনার তামিম ইকবালও সুযোগ করে নেন। কিন্তু সেজন্য তাদের দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে নিজেদের সামর্থ্যরে প্রমাণ দিতে হয়েছে। কিন্তু সেটা মাত্র এক বছরেই করে ফেলেছেন মুস্তাফিজ। গত বছর ৯ ওয়ানডে খেলে ২৬ উইকেট নিয়ে সেরা নবাগত ক্রিকেটার হয়েছেন। ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বিচারে হয়েছেন বর্ষসেরা। আর টি২০ ক্রিকেটের মতো বড় স্কোরের ফরমেটেও দারুণ মিতব্যয়িতার জন্য বিস্ময় সৃষ্টি করেছেন এ বাঁহাতি। মূল অস্ত্র ‘সেøায়ার’ এবং ‘কাটার’ দিয়ে তিনি প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের দমন করে চলেছেন। এ কারণেই গত মার্চে ইংলিশ কাউন্টি ক্লাব সাসেক্স তাকে দলের দ্বিতীয় বিদেশী খেলোয়াড় হিসেবে দলে ভেড়ায়।

কিন্তু টানা ম্যাচ খেলার মধ্যেই আছেন তরুণ এ ক্রিকেটার। বিশেষ করে চলমান আইপিএলে কোন বিশ্রামই পাননি। ইতোমধ্যেই ১১ ম্যাচ খেলেছেন। আরও খেলতে হবে। তাই বিশ্রামের কথা চিন্তা করে নিকটাত্মীয়দের মুস্তাফিজ কাউন্টিতে না খেলার কথা বলেছেন এমনটাই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে গত কয়েকদিন। তবে মার্চে সাসেক্স মুস্তাফিজকে নেয়ার বিষয়টি ঘোষণার পর থেকেই ইনজুরি সমস্যায় পড়েছেন তিনি। সে কারণে খেলতে পারেননি এশিয়া কাপ টি২০ টুর্নামেন্টের শেষ কয়েকটা ম্যাচ ও টি২০ বিশ্বকাপের প্রথমদিকের ম্যাচগুলো। এরও আগে সাইড স্ট্রেইনের ঝামেলায় খেলতে পারেননি পাকিস্তান সুপার লীগ (পিএসএল) টি২০ আসর। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) আয়োজনে প্রথম সংস্করণ ছিল ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক এ আসরটি। কিন্তু সামান্য ইনজুরি সমস্যা যেমন ছিল তেমনি অধিক চাপ থেকে মুক্ত রাখতে বিসিবিও চায়নি এ তরুণকে বিদেশী কোন ঘরোয়া আসর খেলতে দিতে। মুস্তাফিজের মেধা, শক্তি-সামর্থ্য ও ফিটনেস ঠিক রাখতেই এমন চিন্তা বিসিবির। তবে আইপিএল খেলার জন্য মুস্তাফিজকে ছাড় দেয়া হয়েছে। বিসিবি জানিয়েছে সাসেক্স থেকে যে চুক্তির প্রস্তাব এসেছে সেটার সঙ্গে তারা সম্মত। এ বিষয়টি নিয়ে বিসিবি ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান কিছুদিন আগে বলেন, ‘সিদ্ধান্তটা এখনও ঝুলে আছে মুস্তাফিজের কারণে। ওর ওপরই নির্ভর করছে যে সে এ মৌসুমে কাউন্টিতে অংশ নেবে কি না। এটা সম্পূর্ণই ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। আমরা শুধু পরামর্শটাই দিতে পারি।’ সাসেক্স থেকে মুস্তাফিজকে পাওয়ার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী কথাই শোনা গেছে। যদিও মুস্তাফিজের দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ আইপিএলের নকআউটে খেলার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকার কারণে এমনিতেও ইংল্যান্ডে যেতে যেতে চলতি মাস শেষই হয়ে যাবে। সাসেক্স কোচ মার্ক ডেভিস এ বিষয়ে বলেন, ‘আমরা এখনও বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারছি না। কিন্তু আমি আত্মবিশ্বাসী যে তিনি এরপরও আমাদের সঙ্গে যোগ দেবেন। এই মুহূর্তে সম্ভবত তিনিই বিশ্বের সেরা বোলার। সে কারণে তার আসা নিয়ে আমরা উন্মুখ হয়েই আছি। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই হয় তো আমরা এ বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারব।’

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: