২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ঐক্যবদ্ধ না হলে হত্যার মিছিল থামবে না


রাবি সংবাদদাতা ॥ অধ্যাপক রেজাউলের মতো সৎ ও নিষ্ঠাবান মানুষকে হত্যার মাধ্যমে খুনীরা আমাদের সবাইকে হুমকির মুখে রেখেছে। এর বিরুদ্ধে সোচ্চার না হলে একদিন আমরাও হত্যাকা-ের শিকার হব। তাই শুধু সরকারের দিকে তাকিয়ে না থেকে সামাজিকভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শক্তি সঞ্চার করতে হবে। এছাড়া হত্যার এ মিছিল থামবে না।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যাকা-ের বিচার দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন। অধ্যাপক সিদ্দিকী হত্যার ২০তম দিন বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে রাবি শিক্ষক সমিতি।

মানববন্ধনে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ শহীদুল্লাহ বলেন, দেশের জন্য নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষকদের এভাবে হত্যা করা হলে জাতি মেধাশূন্য হয়ে পড়বে। তাই এ আন্দোলনে নাগরিক সমাজকেও এগিয়ে আসতে হবে।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেনÑ সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ফয়জার রহমান, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক আনসার উদ্দীন, দর্শন বিভাগের অধ্যাপক এসএম আবু বকর, বাংলা বিভাগের প্রভাষক গৌতম গোস্বামী, ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের প্রভাষক দিলীপ কুমার সরকার প্রমুুখ। এ সময় রাবি উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মু. এন্তাজুল হক, প্রক্টর অধ্যাপক মজিবুল হক আজাদ খানসহ দুই শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে যোগ দেন ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। পরে তারা একটি মৌনমিছিল নিয়ে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে মুকুল মঞ্চে এসে সমাবেশে মিলিত হয়।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ এপ্রিল সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রাজশাহী নগরীর শালবাগান এলাকায় বাসা থেকে মাত্র ১৫০ গজ দূরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

কাপ্তাই হ্রদে মাছ আহরণে নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গামাটি, ১২ মে ॥ দেশের সর্ববৃহৎ কৃত্রিম হ্রদ কাপ্তাই হ্রদে মা নিধন বন্ধ ও মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন নিশ্চিত করার জন্য বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে পরবর্তী ৩ মাসের জন্য সকল প্রকার মাছ আহরণের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। পাশাপাশি হ্রদ হতে সকল প্রকার জাক অপসারণসহ মাছ ধরা বন্ধ মৌসুমে কাপ্তাই হ্রদে নৌপুলিশ মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কাপ্তাই হ্রদের মাছ আহরণের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ বিষয়ক এক সভায় এ সিদ্ধান্তের আলোকে জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন এ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন। সভায় জানানো হয় ৭২৫ বর্গকিলোমিটারের আয়তনের কাপ্তাই হ্রদের বিভিন্ন প্রজাতির মা মাছগুলোর মধ্যে ইতোমধ্যে ডিম আসতে শুরু করেছে এবং মাছের প্রজননও শুরু হয়েছে, তাই মাছের প্রজনন নিশ্চিত কল্পে বিগত বছরগুলোর ন্যায় এ বছর ও কাপ্তাই হ্রদে সকল প্রকার মাছ আহরণ বন্ধ করার জন্য গত সোমবার এ সংক্রান্ত সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।