১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

‘ন্যায্য বিচারের পথে আরেকধাপ এগুলাম আমরা’


‘ন্যায্য বিচারের পথে আরেকধাপ এগুলাম আমরা’

অনলাইন ডেস্ক ॥ ১৯৭১ সালে আলবদর বাহিনীর হাতে শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরীর সন্তান আসিফ মুনীর বলছেন, কোন মৃত্যুই কাম্য নয়, কিন্তু ৪৫ বছর পর যুদ্ধাপরাধের দায়ে জামায়াতে ইসলামীর আমীর মতিউর রহমান নিজামীর মৃত্যুদণ্ডের পর মনে হচ্ছে, যে ন্যায্য বিচার শহীদ পরিবারগুলো এত বছর ধরে চেয়েছে, সে পথে আরেকধাপ এগুলাম বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে বুদ্ধিজীবীদের তুলে নিয়ে গিয়ে হত্যা করার কাজটি করেছিল আলবদর বাহিনী।

আর এই বাহিনীর প্রধান ছিলেন তৎকালীন ইসলামী ছাত্র সংঘের নেতা মতিউর রহমান নিজামী।

যুদ্ধের নয় মাসের শেষ দিকে বিশেষ করে ১৪ই ডিসেম্বর আলবদর বাহিনী শিক্ষক, সাংবাদিক, সাহিত্যিকসহ বুদ্ধিজীবীদের পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে।

তাদেরই একজন মুনীর চৌধুরী। তার সন্তান আসিফ মুনীরের বয়স ছিল তখন চার বছর, যখন মুনীর চৌধুরীকে ধরে নিয়ে গিয়েছিল।

এরপরে রাজনৈতিক নানা পট পরিবর্তনে একসময় বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ডের বিচার হবে সে আশা অনেক শহীদ পরিবারই করত না বলে জানাচ্ছেন মি. আসিফ।

তবে, তিনি মনে করেন, এখনো আরো অনেক কাজ বাকী।

বিশেষ করে বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ডে জড়িত অন্যরা, যারা বাংলাদেশের বাইরে অবস্থান করছে, বিশেষ করে চৌধুরী মুঈনুদ্দিন এবং আশরাফুজ্জামান খানকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করে, তাদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসার আহ্বান জানান মি. আসিফ।

সূত্র : বিবিসি বাংলা

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: