১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ফেসবুক এ্যাওয়ার্ড জিতলেন মাহরেজ-মার্শাল


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এবার লিচেস্টার সিটি ফুটবলারদের জয়জয়কার সবখানেই। ইতিহাস গড়ে উড়ছে ইংলিশ ক্লাবটি। নজরকাড়া সাফল্যের কারণে আগেই পেশাদার খেলোয়াড়দের ভোটে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন রিয়াদ মাহরেজ। এবার আরও একটি গৌরবময় এ্যাওয়ার্ড জিতেছেন আলজিরিয়ান মিডফিল্ডার।

মাহরেজ এবার সমর্থকদের ভোটেও সবার সেরা হয়েছেন। তবে এই সেরার তাৎপর্য বা মাহাত্ম্য অনেক বেশি। কেননা এই প্রথম সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ইংলিশ লীগ দর্শকদের ভোটে এই পুরস্কার জিতেছেন মাহরেজ। অর্থাৎ এই এ্যাওয়ার্ডটির নাম ফেসবুক এ্যাওয়ার্ড। আর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এ্যান্থনি মার্শাল জিতেছেন বর্ষসেরা তরুণ খেলোয়াড়ের পুরস্কার। অনুমিতভাবে বর্ষসেরা ক্লাবের পুরস্কার পেয়েছে লিচেস্টার সিটি। ক্লডিও রানিয়েরি হয়েছেন বর্ষসেরা কোচ।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ফেসবুক পেজে ১৯৩টি দেশের ১০ লাখের বেশি দর্শকের ভোটে মাহরেজ সেরা ফুটবলারের পুরস্কার জিতেছেন। প্রথমবার বলে আলজিরিয়ান মিডফিল্ডারের অনুভূতিটাও অন্য রকম। অনুভূতি জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, এটা আলাদা কিছু। আমার জন্য বড় একটা প্রাপ্তিও। কারণ পুরো বিশ্বের সবাই এখানে ভোট দিয়েছেন। মাহরেজ বলেন, আমি আমার সব ভক্ত-সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। সব ভক্তদের আমি ভালবাসি। আমি খুব খুশি। লিচেস্টারের রূপকথার শিরোপা এনে দেয়ার কুশীলবদের সেরা একজন মাহরেজ। চলমান মৌসুমে ১৭টি গোল করেছেন, ১১টি গোল করিয়েছেন।

ম্যানইউ ফরোয়ার্ড মার্শালও এই মৌসুমেই নাম লিখিয়েছেন ওল্ডট্র্যাফোর্ডে। সেরা তরুণ খেলোয়াড়ের পুরস্কারটাও ২০ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডকে আপ্লুত করছে। তিনি বলেন, আমাকে সেরা খেলোয়াড়ের সম্মান এনে দেয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। আমি প্রিমিয়ার লীগেই খেলে যেতে চাই, আশাকরি সামনে আরও ভাল খেলতে পারব। ইপিএলের মতো নিজ দেশ ইতালিতেও সেরা কোচের পুরস্কার জিতেছেন রানিয়েরি। ইতিহাসের অন্যতম সেরা চমকের জন্ম দেয়া রানিয়েরি ইতালির মৌসুম সেরা কোচের পুরস্কার পেয়েছেন।

মৌসুমের শুরুতে শিরোপা লড়াইয়ে ৫০০০:১ বাজির দর থাকা ‘পুঁচকে’ লিচেস্টারের দুই ম্যাচ হাতে রেখেই ইপিএলে চ্যাম্পিয়ন হওয়াটা রূপকথাকেও হার মানায়। অসাধারণ এই কীর্তির মূল কারিগর হওয়ায় রানিয়েরিকে ‘এনসো বেয়ারজত’ পুরস্কার দেয়া হয়েছে। ১৯৮২ সালে ইতালিকে বিশ্বকাপ জিতিয়েছিলেন কোচ বেয়ারজট। ২০১০ সালে তার মৃত্যুর পরের বছর থেকে তার সম্মানে সেরা কোচের এই পুরস্কার চালু হয়। ইতালির মূল কিছু ক্রীড়া পত্রিকার প্রতিনিধিদের দিয়ে গড়া বিচারকদের ভোটে এই পুরস্কার দেয়া হয়। সম্মান পেয়ে সোমবার রোমে আবারও ইপিএলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করেন রানিয়েরি। বলেন, আমরা যা করেছি, এখনও ঠিক তা আমি বুঝে উঠতে পারিনি। অবনমন এড়ানোর লক্ষ্যে আমরা শুরু করেছিলাম আর কি হয়েছে আপনারা দেখেছেন।

অসাধারণ সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ লিচেস্টার সিটি আগামী মৌসুমে খেলবে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে। এ প্রসঙ্গে রানিয়েরি বলেন, আমার বিশ্বাস, চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ড্রয়ের সময় অনেক দল আমাদের বিরুদ্ধে খেলতে চাইবে। কারণ ইউরোপে আমরা প্রথম খেলতে যাচ্ছি এবং তারা আমাদের আন্ডারডগ ভাবছে। আমরা আন্ডারডগ কিন্তু বিপজ্জনক। আন্ডারডগ দলগুলো বিপজ্জনক হতে পারে।