২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

নাটকের দর্শক বাড়াতে চ্যানেলগুলোকেই উদ্যোগ নিতে হবে ॥ এম আর মিজান


এম আর মিজান। পুরো নাম মিজানুর রহমান মিজান। বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে অত্যন্ত জনপ্রিয় একজন চিত্রগ্রাহক ও পরিচালক। সাম্প্রতি ব্যস্ত আছেন মাছরাঙা চ্যানেলের ধারাবাহিক ‘নগর আলো’ নাটকের নির্মাণের কাজ নিয়ে। সাজিন আহমেদ বাবু রচিত নাটকটি সপ্তাহে প্রতি মঙ্গল এবং বুধবার রাত ৮টায় মাছরাঙা চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। এ নাটক এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে কথা হয়।

মাছরাঙায় আপনার নির্দেশিত ‘নগর আলো’ নাটকটি প্রচার হচ্ছে দর্শকদের কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

এম আর মিজান : মোটামুটি ভালই সাড়া পাচ্ছি। অনেকেই প্রশংসা করেছেন। শিল্পীরাও যথাসাধ্য ভাল অভিনয় করেছেন। বিশেষ করে মোশাররফ করিম, জেনি, তারিক স্বপন, ফারুক আহমেদের অভিনয় দর্শকরা উপভোগ করছেন। নগর জীবনে ব্যাচেলরদের নিয়ে নাটকের কাহিনী গড়ে উঠেছে। আর এ নাটকে ভাষাগত দিকেরও একটা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। তাই দর্শকরা নাটকটি পছন্দ করছেন বলে আমি মনে করি।

আপনার নির্দেশিত উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো কি কি ?

এম আর মিজান : আমার নির্দেশিত এক ঘণ্টার নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘চোরের ভবিষ্যৎ’, মাছরাঙায় ‘মানিক জোড়’, এশিয়ান ‘প্রেম ভাইরাস’ ও গাজীটিভিতে ‘অতিথি’, আর ধারাবাহিক নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে আরটিভিতে ‘রান’, গাজিটিভিতে ‘নায়িকা সংবাদ’, ‘দি বিচ ক্লাব’, ‘নগর আলো’। এছাড়া দুটি নতুন ধারাবাহিক নাটকের স্ক্রিপ্টের কাজ চলছে।

বর্তমান সময়ে নাটকের দর্শক কেন কম হচ্ছে বলে আপনি মনে করেন।

এম আর মিজান : চাহিদা অনুযায়ী নাটকের সময়ের চেয়ে বিজ্ঞাপন বেশি হওয়ায় দর্শক বিরক্ত হচ্ছে। এছাড়া চ্যানেলে নাটকের প্রমোশন খুব কম হয়। সর্বোপরি নাটকের বাজেট অত্যন্ত কম। তাই ভালমানের নাটক নির্মাণও সম্ভব হচ্ছে। বেশিরভাগ সময়ই পরিচালকদের নতুন শিল্পীদের নিয়ে কাজ করতে হয়। তবে আমি মনে করি নাটকের দর্শক বাড়াতে বা ধরে রাখতে চ্যানেলগুলোকেই উদ্যোগ নিতে হবে।

চিত্রগ্রাহক হিসেবে আপনি প্রথম কার সঙ্গে কাজ করেন?

এম আর মিজান : প্রয়াত আজমল হকের সঙ্গে সহকারী ১৯৯৩ সাল থেকে কাজ শুরু করি। প্রথম দিকে ‘দাঙ্গা; ‘ত্রাস’ চলচ্চিত্রে কাজের সুযোগ হয়।

এ পর্যন্ত কাদের সঙ্গে চিত্রগ্রাহক হিসেবে কাজ করেছেন?

এম আর মিজান : আমজাদ হোসেন এবং সোহেল আরমান আমাকে নাটকে কাজের সুযোগ দিয়েছেন। এছাড়া গাজী রাকায়েত, অরুন চৌধুরী, আরিফ খান, মোহন খান, মাসুদ সেজান, চয়নিকা চৌধুরীসহ অনেকের সঙ্গেই কাজ করেছি।

চিত্রগ্রাহক হিসেবে কতগুলো নাটকে ও চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন?

এম আর মিজান : সবমিলে প্রায় ৫০০টি নাটকে চিত্রগ্রাহক হিসেবে কাজ করেছি। চলচ্চিত্রেও কাজ করেছি তবে ঠিক সেভাবে নয়। বিচ্ছিন্নভাবে বিভিন্ন পরিচালকের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা হয়েছে।

চলচ্চিত্র পরিচালনার কোন ইচ্ছে আছে?

এম আর মিজান : হ্যাঁ ইচ্ছে তো অবশ্যই আছে। বলতে পারেন ইতোমধ্যে কাজ শুরুও করে দিয়েছি। আমার বাড়ি যেহেতু কুষ্টিয়া তাই লালনকে নিয়ে ব্যতিক্রমী একটি চলচ্চিত্র নির্মাণের পরিকল্পনা করছি। এর প্রাথমিক কাজ চলছে।

তরুণদের উদ্দেশ্যে বিশেষ করে নতুন শিল্পীদের জন্য আপনার বক্তব্য কি?

এম আর মিজান : দেশী বিদেশী ভাল ভাল নাটক ও চলচ্চিত্র নিয়মিত দেখতে হবে। পড়াশোনা করতে হবে। কারণ আমি মনে করি শিল্পীদের জন্য পড়াশোনার কোন বিকল্প নেই।

-সাজু আহমেদ