মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ আগস্ট ২০১৭, ৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

রাবির আরেক শিক্ষককে হত্যার হুমকি

প্রকাশিত : ১০ মে ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী/ রাবি সংবাদদাতা ॥ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে কুপিয়ে হত্যার ১৬ দিনের মাথায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষককে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাহবুব আলম প্রদীপকে তার ব্যক্তিগত মোবাইলে এ হুমকি দেয়া হয়। এ ঘটনায় তিনি নগরীর মতিহার থানায় জিডি করেছেন।

মতিহার থানার ওসি হুমায়ুন কবীর জানান, রবিবার সন্ধ্যায় ওই শিক্ষক থানায় এসে জিডি করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। হুমকিপ্রাপ্ত শিক্ষক মাহবুব আলম প্রদীপ বলেন, ‘অজ্ঞাতনামা +৮১৭৭৪৭৯ নম্বর থেকে তার মোবাইলে কল আসে। তিনি রিসিভ করলে অপরপ্রান্ত থেকে বলা হয়, ‘তোর জীবন শেষ, অনেক বেড়ে গেছিস, ওয়েট কর’। এরপর কে বলছেন জানতে চাইলে আবার একই কথা বলে ফোন কেটে দেয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মজিবুল হক আজাদ খান বলেন, ‘ওই শিক্ষককে থানায় জিডি করতে বলেছি। পুলিশকেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। এর আগে ২ মে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, সংসদ সদস্য রাজনৈতিক নেতা, সাংবাদিকসহ ১০ বিশিষ্টজনকে হত্যার হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানো হয় নাটোর প্রেসক্লাবে।

রাবিতে আন্দোলন অব্যাহত ॥ এদিকে রাবির ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যার বিচার দাবিতে ১৭তম দিনের মতো আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। সোমবার বেলা ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে শিক্ষক সমিতি। এতে অংশ নিয়ে রাবির ভিসি অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বলেন, আমাদের এ হত্যাকা-ের শেষ দেখতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। একের পর এক হত্যা, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের হুমকি দেয়া হচ্ছে। তাই বিশ্ববিদ্যালয়কে বাঁচাতে হলে অধ্যাপক রেজাউল হত্যার বিচার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে। বিচারহীনতা ও ভয়ের সংস্কৃতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। যৌক্তিক পরিণতি না দেখা পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন থামবে না-এটা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের বক্তব্য।

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান, ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ইসমাইল হোসেন, শিক্ষক সমিতি সভাপতি অধ্যাপক শহীদুল্লাহ্, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাহ্ আজম, আইন বিভাগের অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধান ও বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মানিকুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। মানববন্ধন শেষে একটি মৌন মিছিল বের করে ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে শহীদুল্লাহ্ কলা ভবনের সামনে ‘মুকুল প্রতিবাদ ও সংহতি মঞ্চ’-এ (অধ্যাপক রেজাউলের ডাক নাম মুকুল) গিয়ে সমাবেশ করে। সেখানে বক্তব্য রাখেন বিভাগের সভাপতি মাসউদ আখতার ও বিভাগের শিক্ষার্থী ভাষা।

প্রকাশিত : ১০ মে ২০১৬

১০/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: