১৭ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

লক্ষ্মীপুরে বেকারির শিশু শ্রমিককে হত্যার অভিযোগ


নিজস্ব সংবাদদাতা, লক্ষ্মীপুর, ৯ মে ॥ লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে আনন্দময় পেস্ট্রি শপ বেকারিতে মোঃ আলাউদ্দিন নামে ১৩ বছরের এক শিশু শ্রমিককে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সকালে নিহত শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বেকারি মালিক নাছির উদ্দিন রনি ও মোঃ আল আমিনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত আলাউদ্দিন দত্তপাড়া ইউনিয়নের উত্তর মাগুরী গ্রামের আবুল কালাম আজাদের পুত্র।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, স্থানীয় চন্দ্রগঞ্জ থানার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের বিস্মিল্লাহ রোড এলাকায় আনন্দময় পেস্ট্রি শপ বেকারিতে আলাউদ্দিনসহ চারজন শ্রমিক ৬ মাস ধরে কাজ করত। তাকে বিভিন্ন সময়ে বেকারির মালিক ও অন্য শ্রমিকরা নির্যাতন করত বলে নিহত শিশু শ্রমিকের বাবা আবুল কালাম আজাদ অভিযোগ করেন। এদের মধ্যে মোঃ ইব্রাহীম ওরফে শাহজাহান, শামীম ও মিজান এ তিনজনের বাড়ি ভোলা জেলার চরফ্যাশনে। ঘটনার পর শিশু আলাউদ্দিনের লাশ বিল্ডিংয়ের দোতলা সিঁড়ির একটি রডের সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখে ওই ভবনের গেটে তালা ঝুলিয়ে তারা তিনজনই পালিয়ে যায়। একই অভিযোগ করেন, তার ফুফাতো বোন শাহীনুর বেগম। তিনি বলেন, বেকারিতে তিনটি শ্রমিক ছিল, তারা আলাউদ্দিনরে ওপর প্রায়ই নির্যাতন করত। ঘটনার পর থেকে উক্ত তিন শ্রমিক পলাতক রয়েছে। এ ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার জন্য তারা আত্মহত্যা বলে অপপ্রচার করে।

নিহতের স্বজনরা জানান, রবিবার রাত ৮টার দিকে ওই বেকারির শ্রমিকদের সর্দার মোঃ ইব্রাহীম ওরফে শাহজাহান মোবাইলে বেকারির মালিককে জানায়, বেকারিতে শ্রমিক আলাউদ্দিন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ কথা বলেই সে তার মোবাইল বন্ধ করে দেয়। এরপর বেকারি মালিকরা চন্দ্রগঞ্জ থানায় এসে খবর দিলে পুলিশ রাত সাড়ে ১১টায় ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে। বিকেলে নিহত শিশু আলাউদ্দিনের লাশের ময়নাতদন্ত লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে সম্পন্ন হয়েছে। এ ব্যাপারে আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, শিশুটি আত্মহত্যা করেনি। তার ওপর অন্যায় করা হয়েছে। নিহতের শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। শীঘ্রই আমরা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট যথাস্থানে পাঠিয়ে দেব। পরে লাশটি দেশের সদর উপজেলার মাগুড়ীতে নিয়ে যাওয়া হলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে। নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী দোষীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার আসম মাহতাব উদ্দিন বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, আলাউদ্দিনকে হত্যা করা হয়েছে। দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: