২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

আইএসের বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার করছে যুক্তরাষ্ট্র


মধ্যপ্রাচ্যে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে কয়েক মাসে অপ্রত্যাশিত অগ্রগতি অর্জিত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র লড়াইয়ে কয়েক শ’ স্পেশাল অপারেশন ও মেরিন সৈন্য পাঠাচ্ছে। মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন, তাদের আরও বৃহত্তর পর্যায়ে জড়িত হওয়া ছাড়া আইএস বিরোধী লড়াইয়ে জয়ী হওয়া সম্ভব নয়। খবর ওয়াশিংটন পোস্ট অনলাইনের।

অন্যদিকে, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে অগ্রগতির ভবিষ্যতকে জটিল করে তুলছে যে, সকল সম্ভাব্য বাধা, সেগুলোর মধ্যে রয়েছে বাগদাদে বিশৃঙ্খলা, সিরিয়ায় নাজুক অস্ত্রবিরতি ও তুরস্কে রাজনৈতিক গোলযোগ। প্রেসিডেন্ট ওবামা ২০১৪ সালে ইরাক ও সিরিয়ায় বিস্তৃত এলাকা নিয়ন্ত্রণকারী চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে প্রথমবারের মতো মার্কিনবিমান হামলা চালানোর নির্দেশ দিলে মার্কিন কর্মকর্তারা বিজয় অর্জনের জন্য ৩ থেকে ৫ বছর সময় লাগবে বলে তখন যে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন তা এখন কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। কর্মকর্তারা বলেছেন, অস্থিরতার সঙ্গে লড়াই শুরু করার পর বিশেষ করে গত ছ’ মাসে যে অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে তাতে তারা সন্তুষ্ট। ইরাকে উত্তরাঞ্চলীয় শহর বাইজি অক্টোবরে পুনর্দখলের পর বিশাল এলাকায় আইএসের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ে। এ সবকিছু আশার সঞ্চার করছে যে, জঙ্গীরা পরাজিত হওয়ার কাছাকাছি চলে এসেছে। এক মার্কিন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, আমরা যা চাই তার চেয়ে কিছুটা বেশি প্রাপ্তি এসেছে সত্যিকারভাবে। লড়াই এমন একটা পর্যায়ে প্রবেশ করেছে যাকে নতুন ও সম্ভাব্য কঠিন পর্যায় বলে অভিহিত করেছেন পেন্টাগনের কর্মকর্তারা। মার্কিন সামরিক বাহিনী লড়াইয়ের গতি বৃদ্ধির জন্য তাদের সম্পৃক্ততা জোরদার করবে।

সম্পর্কিত: