২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ট্রাম্প-রায়ান দ্বন্দ্বে গভীর বিভেদে রিপাবলিকান পার্টি


মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রিপাবলিকান পার্টির ভেতর বিভেদ গভীরতর হয়েছে এবং জুলাইয়ের কনভেনশন বিপর্যয়ের মুখে পড়ার উপক্রম হয়েছে। কারণ দলের প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রতিনিধি পরিষদের স্পীকার পল ডি রায়ানকে কনভেনশনের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনে বাধা দেয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিতে অস্বীকার করেছেন। এদিকে, সিনেটর জন ম্যাককেইন ট্রাম্পের প্রার্থিতা নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি সত্ত্বেও সাধারণ নির্বাচনে তাকে সমর্থন করবেন বলে জানিয়েছেন। এভাবে ম্যাককেইন প্রেসিডেন্ট পদে রিপাবলিকান পার্টির মনোনীত প্রার্থীকে সমর্থন করার প্রতিশ্রুতিতে অবিচল রইলেন। তিনি ট্রাম্পকে সমর্থন জানাতে দলের অন্যান্য নেতার প্রতিও আহ্বান জানান। খবর নিউইয়র্ক টাইমস ও ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের।

ট্রাম্পের ওই সতর্কবাণী রিপাবলিকানদের প্রতি তার সর্বশেষ কড়া বার্তা। তারা আরও সহযোগিতা ও সমঝোতামূলক মনোভাব গ্রহণ করতে তার প্রতি আহ্বান জানান। এটি দলের সম্ভাব্য মনোনীত প্রার্থী ও সর্বোচ্চ পদাধিকারীর মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধির এক নজিরবিহীন ঘটনা। রবিবার কয়েকটি টেলিভিশন সাক্ষাতকারে ট্রাম্প রায়ানের মতো দলীয় নেতাদের সঙ্গে শান্তি স্থাপনের বিষয়ে সামান্য উৎসাহই দেখান। তারা গত তিন দশক ধরে রক্ষণশীল দলকে উজ্জীবিত রেখেছে এমন ইস্যু ও ভাবধারার প্রতি তার প্রতিশ্রুতি আরও বিশ্বাসযোগ্যভাবে ব্যক্ত করতে তার প্রতি আহ্বান জানান। ট্রাম্প এবিসি’র ‘দিস উইক’ অনুষ্ঠানে বলেন, আমার যা করতে হবে তা-ই আমি করতে যাচ্ছিÑ আমার পক্ষে কোটি কোটি মানুষ রয়েছে যারা আমাকে ভোট দিয়েছে। কাজেই আমাকে আমার নীতির প্রতিও অবিচল থাকতে হবে। আর আমি রক্ষণশীল, কিন্তু ভুলে যাবেন না একে রিপাবলিকান পার্টি বলা হয়। একে কনজারভেটিভ (রক্ষণশীল) পার্টি বলা হয় না। কনভেনশনের আনুষ্ঠানিক চেয়ারম্যান রায়ান তার দলের সম্ভাব্য মনোনীত প্রার্থীকে সমর্থন করতে প্রস্তুত নন বলে উস্কানিমূলক ঘোষণা দেন। এরপর ট্রাম্প এনবিসি নিউজের সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে রায়ানকে ওই ভূমিকা পালন করা থেকে দূরে রাখবেন বলে হুমকি দেন। এদিকে সিনেটর ম্যাককেইন বলেন, যারা আমাদের রিপাবলিকান পার্টির মনোনীত প্রার্থীকে বাছাই করেছে তাদের কথা আমাদের শুনতে হবে। তাদের উপেক্ষা করা বোকামিই হবে বলে আমি মনে করি। ম্যাককেইন বলেন, ট্রাম্প এক সামর্থ্যবান নেতা হতে পারেন বলে আমি মনে করি। তবে দলকে ঐক্যবদ্ধ করার চেষ্টায় ট্রাম্পকে অনেকের কাছে যাওয়ার দরকার হবে বলে ম্যাককেইন সতর্ক করে দেন। তিনি বলেন, এটি স্পষ্ট যে, ট্রাম্পকে এগিয়ে আসতে হবে এবং অনেক ক্ষত উপশম করতে হবে। ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করলেও ম্যামকেইন বলেন, তিনি ট্রাম্পের সঙ্গে একই মঞ্চে দাঁড়াবেন বলে সম্ভাবনা নেই। গ্রীষ্মকালে নিউইয়র্কের ব্যবসায়ী ট্রাম্প যুদ্ধের বীর হিসেবে ম্যাককেইনের মর্যাদা নিয়ে সন্দেহ ব্যক্ত করলে দু’ব্যক্তির মধ্যে বাগ্যুদ্ধ হয়।