২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হরতাল ডেকে মাঠে ছিল না জামায়াত-শিবির


স্টাফ রিপোর্টার ॥ আদালতের রায়ের প্রতিবাদ জানিয়ে যুদ্ধাপরাধী মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির দাবিতে ডাকা হরতালে সাড়া দেয়নি তার দল জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। দলটির কোন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের রাজপথে বা অন্য কোন কর্মসূচী পালন করতে দেখা যায়নি। যুদ্ধাপরাধীর জন্য ডাকা হরতাল প্রত্যাখ্যান করেছেন সর্বস্তরের মানুষ, ফলে জনজীবনে এর কোন প্রভাব পড়েনি। হরতাল হয়নি রাজধানী থেকে শুরু করে কোন বিভাগীয় শহরেই। কোন প্রভাব পড়েনি খোদ নিজামীর জন্মস্থান পাবনাতেই। এদিকে জামায়াত-শিবির মাঠে না থাকলেও আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলের নেতাকর্মী এবং যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে সোচ্চার গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা রাজধানীতে হরতালবিরোধী মিছিল-সমাবেশে করেছেন।

হরতালের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেন সরকারদলীয় সমর্থকরা। ধানম-ি, বাড্ডা, কাওরানবাজার, শাহবাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় প্রেসক্লাবে ও পল্টন এলাকায় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের তৎপরতা লক্ষ্য করা গেছে। এসব স্থানে তারা মিছিল ও সমাবেশ করেছে। শাহবাগে গণজাগরণ মঞ্চ হরতালবিরোধী অবস্থান কর্মসূচী পালন করছে। শাহবাগ প্রজন্ম চত্বরে বেলা ১১টা থেকে জামায়াতের হরতালের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন গণজাগরণ মঞ্চের নেতাকর্মীরা।

এদিকে হরতালের প্রতিবাদে আয়োজিত এক সমাবেশে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে জামায়াতের হরতাল আহ্বানের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক সমাবেশে তিনি বলেন, বিচারপতিদের নিয়ে কথা বললে আদালত অবমাননা হয়, মন্ত্রী-এমপিদেরও আদালতে তলব করা হয়। তাহলে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে জামায়াত যে হরতালের আহ্বান করেছে, তা কি আদালত অবমাননা নয়? সর্বোচ্চ আদালতকে সব ক্ষেত্রে সমান প্রতিক্রিয়া দেখানোরও আহ্বান জানান সাবেক মন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের ডাকা এ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জোটের সভাপতি চিত্রনায়ক ফারুক। আরও বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক ফালগুনী হামিদ, জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ফয়েজ উদ্দিন মিয়া, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সম্পাদক হাবিবুর রহমান। এর আগে সকাল সাড়ে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে হরতালবিরোধী মিছিল করে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ। সেখানে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে বিদেশী কয়েকটি রাষ্ট্রের সহযোগিতায় বিএনপি-জামায়াত এখনও ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: