১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সাতক্ষীরায় বেড়িবাঁধে ধস ॥ সহস্র পরিবার পানিবন্দী


স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা ॥ বৈরী আবহাওয়ার কারণে প্রবল জোয়ারের চাপে কপোতাক্ষ নদের বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ছয়টি গ্রাম প্লাবিত হযেছে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে এক হাজার পরিবার। সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার কোলায় রবিবার ভোরে প্রতাপনগর ইউনিয়নের কোলা গ্রামের ৪নং পোল্ডারের কাছে কপোতাক্ষ নদের প্রায় দুই শ’ ফুট বেড়িবাঁধ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এতে দেড় হাজার বিঘা মৎস্যঘের ও ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। বাঁধভাঙ্গা পানিতে প্রতাপনগর ইউনিয়নের কোলা, হিজলিয়া ও শ্রীউলা ইউনিয়নের মাড়িয়ালা, হাজরাখালি, লাঙ্গলদাড়ি ও কলিমাখালি গ্রাম প্লাবিত হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা ওয়াজেদ গাজী, সঞ্জয় দাশ জানান, বাঁধটি আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। শেষ রাতে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে হঠাৎ নদীগর্ভে ধসে পড়ে। সকাল থেকে স্থানীয় দুই ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এলাকার সহস্রাধিক লোক বাঁশ ও মাটি দিয়ে বেড়িবাঁধটি সংস্কারের চেষ্টা করছেন বলে এলাকাবাসী জানান। প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাফিলাতির কারণেই এ দুর্দশা। বারবার বলা হলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড বাঁধ সংস্কারে উদ্যোগ নেয়নি।

শ্রীউলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল জানান, প্রতাপনগর ইউনিয়নের চেয়ে শ্রীউলা ইউনিয়ন বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। স্থানীয় জনগণকে সাথে নিয়ে বাঁধ সংস্কারের চেষ্টা চলছে। চলতি ভাটি গোনে বাঁধ সংস্কার করতে না পারলে পুইজালা, শ্রীউলা, আশাশুনি সদর ও নাকতাড়া গ্রাম প্লাবিত হবে বলে তারা আশঙ্কা করছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসও আবুল হোসেন জানান, তিনি ঘটনাস্থলে আছেন উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে আসার পর পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।