২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

রায় বাতিল চেয়ে রাষ্ট্র পক্ষের আপীল


 রায় বাতিল চেয়ে রাষ্ট্র পক্ষের আপীল

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিচারক অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে আনা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে যে রায় হাইকোর্ট দিয়েছে, তা স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। অন্যদিকে বিচারক অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে আনা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীকে হাইকোর্ট অবৈধ ঘোষণার পর এ নিয়ে সংসদ সদস্যরা যে বক্তব্য দিয়েছেন, তাতে সংসদ ও আদালত মুখোমুখি হয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন না আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে যে রায় হাইকোর্ট দিয়েছে, তা স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। রবিবার সুপ্রীমকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদন জমা দেয়া হয় জানিয়ে ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু বলেন, ‘আজ সোমবার চেম্বার আদালতে শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হতে পারে।’ সুপ্রীমকোর্টের ৯ আইনজীবীর করা একটি রিট আবেদনে দেয়া রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী, বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোঃ আশরাফুল কামালের বিশেষ বেঞ্চ বৃহস্পতিবার সংখ্যাগরিষ্ঠের মতের ভিত্তিতে ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে। সংসদের মাধ্যমে বিচারক অপসারণ প্রক্রিয়াকে ‘ইতিহাসের একটি দুর্ঘটনা’ বলা হয় ওই রায়ে।

আইনমন্ত্রী ॥ বিচারক অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে আনা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীকে হাইকোর্ট অবৈধ ঘোষণার পর এ নিয়ে সংসদ সদস্যরা যে বক্তব্য দিয়েছেন তাতে সংসদ ও আদালত মুখোমুখি হয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন না আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। রবিবার সকালে বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবনে সাব রেজিস্ট্রারদের বিশেষ প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

আইনমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক আরও বলেন, ‘গণতন্ত্রের বিকাশে’ রাষ্ট্রের তিন স্তম্ভের মধ্যে বিতর্ক হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। ‘একটা গণতন্ত্রের রুট গ্রো করতে চাইলে এই রকম সমস্যা-বিতর্ক রাষ্ট্রের তিনটা স্তম্ভের মধ্যে হয়, এটা স্বাভাবিক।’ উচ্চ আদালতের বিচারক অপসারণের ক্ষমতা সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে ২০১৪ সালে সরকার সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আনে। এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের রায়ে ওই সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করা হয়। সংসদের মাধ্যমে বিচারক অপসারণ প্রক্রিয়াকে ‘ইতিহাসের একটি দুর্ঘটনা’ বলা হয় ওই রায়ে।

ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে হাইকোর্টের দেয়া রায় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই রায় হওয়ার পর সংসদ সদস্যরা আবেগের বশবর্তী হয়ে হয়ত সংসদের ভেতরে কিছু কথা বলেছেন। তাদের এই কথায় কারও কারও আঘাত লাগতে পারে। কিন্তু এটা আদালত অবমাননা নয়। কারণ, সংসদের ভেতরে যেসব কথাবার্তা হয় তা আদালত অবমাননার ভেতরে পড়ে না। ‘আদালতের রায় এবং এ নিয়ে সংসদের ভেতরে প্রতিক্রিয়া দেশের গণতন্ত্রের প্রতি হুমকি কি-না এমন এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী জানান, এটিতে তিনি হুমকিস্বরূপ মনে করেন না।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: