মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৮ জুন ২০১৭, ১৪ আষাঢ় ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

শাহজাদপুরে কবিগুরুর ১৫৫ তম জন্মবার্ষিকীর তিন দিনব্যাপী রবীন্দ্র উৎসব

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৬, ০৬:৩৮ পি. এম.

বাবু ইসলাম, সিরাজগঞ্জ/ শাহজাদপুর সংবাদদাতা ॥ শাহজাদপুরে রবীন্দ্র কাচারী বাড়িতে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৫ তম জন্মবার্ষিকীর উদ্বোধন করে আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন- রবীন্দ্রনাথের চিন্তা, চেতনা ও মানবিকতায় যুক্ত হতে পারলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন সম্ভব। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রবীন্দ্রনাথের চিন্তা চেতনা ধারন করে বাঙ্গালী জাতিকে নতুন পথ দেখিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের সোপানে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। রবিবার সকালে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথের ১৫৫ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তিন দিন ব্যাপী আয়োজিত রবীন্দ্র উৎসবের মঞ্চে দাঁড়িয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেছেন- শাহজাদপুরে বিশ্ব ভারতী’র আদলে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের কাজ ইতোমধ্যেই শুরু করা হয়েছে। গত বছর শাহজাদপুরের পূূণ্যভূমিতে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তি স্থাপন করেছিলেন। জাতীয় সংসদেও আইন পাশ করা হযেছে। আগামী নির্বাচনের আগেই বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হবে। শাহজাদপুর হবে বাংলাদেশের শান্তি নিকেতন বলেও তিনি মন্তব্য করেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে ঈঙ্গিত করে বলেছেন- তিনি বাঙলা গান শোনেন না, রবীন্দ্র নাথের কবিতাও বুঝেন না। তিনি বোঝেন উর্দু গান । বক্তব্যের শুরুতে রবীন্দ্রনাথের কবিতা বাংলার মাটি, বাংলার জল, বাংলার বায়ু, বাংলার ফল, পুর্ণ হোক, পুর্ণ হোক, পুর্ণ হউক হে ভগভান উ এই কবিতা উচ্চারনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করেন।

কবিগুরুর ১৫৫ তম জন্মবার্ষিকীর তিন দিনব্যাপী রবীন্দ্র কাচারী বাড়ির এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে শাহজাদপুরে রবীন্দ্রভক্ত ও অনুসারীদের ঢল নেমেছিল। শুধু শাহজাদপুর নয়- আশে পাশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কয়েক হাজার রবীন্দ্রভক্ত ও অনুসারিররা উৎসবে মেতে উঠেছিল তাদের প্রিয় কবির জন্ম উৎসব পালনের জন্য।সংস্কৃতি মন্ত্রনালয় আয়োজিত ও সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সার্বিক তত্বাবধানে রবীন্দ্র উৎসবে শাহজাদপুরকে রঙিন সাজে সাজানো হয়েছিল। নির্মাণ করা হযেছিল কাচারীবাড়ির চারপাশে সুদৃশ্য তোরণ। তিনদিনব্যাপী রবীন্দ্রভক্তদের প্রাণের মেলাও বসানো হয়েছিল। মেলাকে ঘিরে মানুষের উচ্ছাসের কমতি ছিলনা। শাহজাদপুরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের সরকারের সিদ্বান্তকে এ অঞ্চলের মানুষ সাদরে গ্রহণ করে বার বার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে শ্লোগানে আকাশ বাতাস প্রকম্পিত করে তোলে।

সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. বিল্লাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর সম্মানীত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেছেন- রবীন্দ্রনাথের কবিতা, দর্শন, এবং চেতনা বাঙ্গালীর সংগ্রামে, সংকটে পথ দেখিয়েছেন। রবীন্দ্রনাথ একটি জীবন দর্শন, একটি চেতনা। মুক্তিযুদ্ধে এই চেতনা বাঙ্গালী জাতিকে নতুন করে পথ দেখিয়েছিল। সমবেত কন্ঠে ও নৃত্য পরিবেশন করে অনুষ্ঠানের শুভ সুচনা করা হয়। তিনদিন ব্যাপী এ অনুষ্ঠানের প্রথম দিনের উদ্বোধনী পর্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন হাসিবুর রহমান স্বপন এমপি, গাজি ম,ম আমজাদ হোসেন মিলন এমপি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালযের সাবেক ভিসি অধ্যাপক আব্দুল খালেক, পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ, গণমাধ্যম কর্মী, সুভাস সিংহ রায়, ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন প্রÍীয় পর্বে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৬, ০৬:৩৮ পি. এম.

০৮/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: