২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

অগ্নিবীণার ‘সংলাপের বিলাপ’ মঞ্চস্থ


অগ্নিবীণার ‘সংলাপের বিলাপ’ মঞ্চস্থ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নাটকটির মূল উপজীব্য পঁচাত্তর- পরবর্তী রাজনৈতিক পটভূমি পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশের মানুষের সামাজিক রাজনৈতিক মূল্যবোধের বিবর্তনকে ঘিরে। রাজনৈতিক কলুষতা, সামাজিক অনাচার, মাদকের আগ্রাসন, তারুণ্যকে বিপদগামী করা, সাম্প্রদায়িক বিভাজন তৈরি প্রভৃতি ঘটনাকে ঘিরেই নাটক ‘সংলাপের বিলাপ’। এ বিলাপ দ্বৈত অর্থে। একদিকে উচ্চকিত আবার অন্য অর্থে লুপ্ত। প্রকৃত সত্য, সহজ ও সবসময় সাবলীল তার গতি। সে সত্যকে ঘিরে উচ্চকিত কিংবা লুপ্ততার প্রশ্ন ওঠাটাই একটা সঙ্কট। আমার নাটকে দর্শক জীবন সঙ্কটের সেই রূপটা দেখে নিজেরাই বুঝে নেবেন, সমাধানের দায়িত্ব আমাদের সবার ওপর ন্যস্ত। খেটে খাওয়া সব শ্রেণী-পেশার মানুষের উপস্থিতি নাটকটিকে ঘিরে, আবার নাটকটি সবার জন্য। নাট্যসংগঠন অগ্নিবীণার প্রযোজনায় নাটকটির বিশেষ মঞ্চায়ন হয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে শনিবার সন্ধ্যায়। নাটকটি লিখেছেন শফিউল্লাহ শফি এবং পরিকল্পনা ও নির্দেশনা এবং বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্তরঞ্জন দাস। নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে আরও যারা অভিনয় করেছেন তারা হলেন-ফরিদ খান তুষার, সেতু, ঝর্ণা, রতন মাহান্ত প্রমুখ।

মুন্সীগঞ্জে ‘বেদের মেয়ে’ মঞ্চস্থ ॥ মুন্সীগঞ্জে থিয়েটার সার্কেলের ‘বেদের মেয়ে’ নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে। পল্লী কবি জসিম উদ্্দীনের এই নাটক শনিবার রাতে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মঞ্চস্থ হয়। নাটকটির নির্দেশনা দেন নাট্যকার জাহাঙ্গীর আলম ঢালী। এই নাটক দেখতে রাত সোয়া ১১টা অবদি মনমুগ্ধ হয়ে দর্শক অবস্থান করে। এর আগে একই স্থানে মঞ্চস্থ হয় ‘লাশ নিয়ে ব্যবসা’। হুমায়ুন ফরিদের রচনা ও নির্দেশনায় মুন্সীগঞ্জ থিয়েটার পরিবেশিত এই নাটকটি চলে রাত ১০টা পর্যন্ত। জেলা প্রশাসন আয়োজিত শহরের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এত রাতেও দর্শকদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যণীয়। এর আগে আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল হাসান বাদল। আলোচনায় অংশ নেন পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, সরকারী হরগঙ্গা কলেজের অধ্যক্ষ ড. মীর মাহফুজুল হক, এডিসি মোঃ হারুন-অর-রশীদ, সাবেক মেয়র এ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান, পিপি এ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মতিউল ইসলাম হিরু ও প্রেসক্লাব সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল। অনুষ্ঠানে ‘মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সরকারী হরগঙ্গা কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ রাসেল কবির। এছাড়া অনুষ্ঠানে আবৃত্তি, সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন জেলা ও সদর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীরা।