২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গেছে দেড় একর বনভূমি


স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট/নিজস্ব সংবাদদাতা, মংলা থেকে ॥ পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের নাংলী ফরেস্ট ক্যাম্পসংলগ্ন গহীন অরণ্যে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। রবিবার রাতে বনজীবীরা আগুন দেখতে পেয়ে বনকর্মীদের খবর দেন। সোমবার সকাল থেকে সুন্দরবন বিভাগ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ফায়ার অব লাইন স্থাপন করে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেন। এদিন বিকেলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও প্রায় দেড় একর বনভূমি পুড়ে গেছে। এ ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

ঘটনাস্থলে থাকা ফায়ার সার্ভিসের মোরেলগঞ্জ স্টেশন অফিসার স্বপন কুমার ভক্ত এদিন দুপুরে জনকণ্ঠকে জানান, বর্তমানে আগুন অনেকটাই নিভে গেলেও কিছু কিছু জায়গায় আগুনের ফুলকি রয়েছে। তবে আগুন যেন ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য বনের ভেতরে ফায়ার লাইন (নালা) কাটা হয়েছে। কিভাবে আগুন লেগেছে সে বিষয়ে নিশ্চিত করে তিনি বলতে পারেননি। তবে বনজীবীদের ফেলা জ্বলন্ত কিছু থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম জানান, ঘটনা তদন্তে সুন্দরবন চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক বেলায়েত হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন- সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের স্টেশন কর্মকর্তা গাজী মতিয়ার রহমান ও ধানসাগর স্টেশন কর্মকর্তা সুলতান মাহমদ।

ধানসাগর স্টেশনের বন সংরক্ষক সুলতান মাহমুদ জানান, রবিবার রাত থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। সোমবার সকালে তা আরও ছড়িয়ে পড়ে। চাঁদপাই রেঞ্জ কর্মকর্তা এসিএফ বেলায়েত হোসেন জানান, জেলেদের অসতর্কতাবশত ফেলা বিড়ি কিংবা সিগারেটের আগুন থেকেই এই রেঞ্জের নাংলী এলাকায় গহীন অরণ্যে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। আগুন লাগার পর রাতেই সুন্দরবন বিভাগের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিভানোর চেষ্টা করে। তবে দুর্গম পথ ও রাতের অন্ধকারে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারলেও সকাল থেকে ফায়ার অব লাইন কেটে আগুন নিভানোর কাজ শুরু করা হয়। তাঁর ভাষায়, আগুনে সুন্দরবনের প্রায় এক একর বনভূমি পুড়ে গেছে। যেখানে আগুন লেগেছে সেখানে এর আগেও আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনা স্থলে বড় ধরনের কোন গাছপালা নেই, আছে শুধু বলা, লতাগুল্ম জাতীয় গাছপালা।

সুন্দরবনের শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জের উত্তর ও উত্তর-পূর্বাংশের নিচু এলাকায় বসন্তের শেষ ও গ্রীষ্ম শুরুর মধু আহরণ মৌসুমে এর আগেও বিভিন্ন সময়ে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তীব্র বাতাসের কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় তা নিয়ন্ত্রণ করাও কঠিন হয়। ২০১৪ সালে চাঁদপাই রেঞ্জের গুলিশাখালী ক্যাম্পসংলগ্ন পয়ষট্টিছিলা এলাকায় বনে আগুন লেগে অন্তত পাঁচ একর বনভূমি পুড়ে যায়। ২০১১ সালে ধানসাগর স্টেশনের নাংলী ক্যাম্প এলাকায় দুই একর বনভূমি আগুনে পুড়ে যায়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: