১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

তনুর লাশ কবর থেকে তোলার আদেশ আদালতের


তনুর লাশ কবর থেকে তোলার আদেশ আদালতের

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা, ২৮ মার্চ ॥ দেশব্যাপী বহুল আলোচিত কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারী কলেজের ছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর চাঞ্চল্যকর হত্যাকা-ের মোটিভ উদঘাটনে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ, সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত ও পুনঃময়নাতদন্তের জন্য লাশ কবর থেকে উত্তোলনের আদেশ দিয়েছে আদালত। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ওসি একেএম মঞ্জুরুল আলমের আবেদনের প্রেক্ষিতে সোমবার বিকেলে কুমিল্লার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম জয়নাব তনুর লাশ কবর থেকে উত্তোলনের এ আদেশ দেন। আদালতের আদেশে কুমিল্লার জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে তনুর লাশ কবর থেকে উত্তোলনের জন্য একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের জন্য বলা হয়েছে। এদিকে তনু হত্যাকা-ের ৮ দিন অতিবাহিত হলেও হত্যাকারীরা শনাক্ত কিংবা গ্রেফতার না হওয়ায় প্রতিদিনের মতো সোমবারও কুমিল্লা মহানগরসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদী ছাত্র জনতার প্রতিবাদ-বিক্ষোভ ও মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচী অব্যাহত ছিল।

জানা যায়, কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু হত্যার পর তার পিতা কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের অফিস সহায়ক ইয়ার হোসেন বাদী হয়ে গত ২১ মার্চ অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। শুরুতে মামলাটি তদন্ত করেন কোতোয়ালি মডেল থানাধীন ক্যান্টনমেন্ট পুলিশ ফাঁড়ির এসআই সাইফুল ইসলাম। পরে মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য গত ২৫ মার্চ রাতে জেলা গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) হস্তান্তর করা হয়। মামলাটি ডিবিতে হস্তান্তরের পর গতকাল সোমবার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি একেএম মঞ্জুরুল আলম কুমিল্লার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে ভিকিটিম সোহাগী জাহান তনুর মৃতদেহে আসামি কর্তৃক সৃষ্ট জখম শনাক্ত, মৃতদেহ থেকে ডিএনএ নমুনা-আলামত সংগ্রহ করে বিশেষজ্ঞ দ্বারা পরীক্ষা ও সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুতসহ মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে কবর থেকে পুনরায় তনুর লাশ উত্তোলনের জন্য আদালতে এ আবেদন করেন। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত কবর থেকে তনুর লাশ উত্তোলনের অনুমতি দেয়। এছাড়াও হত্যাকা-ের সময় তনুর পরিধেয় বস্ত্র ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে বলে জানা গেছে।

এদিকে ঘটনার ৯ দিন অতিবাহিত হলেও সোমবার পর্যন্ত তনু হত্যার কোন রহস্য উদঘাটন, আসামি শনাক্তকরণ কিংবা গ্রেফতার না হওয়ায় অন্যদিনের মতো সোমবারও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারী কলেজের ডিগ্রী শাখা, চৌদ্দগ্রাম, মুরাদনগর, দেবিদ্বারসহ জেলার কয়েকটি উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ মানববন্ধন করেছে। সূত্র মতে তনু হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ, র‌্যাবের পাশাপাশি একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা মাঠে কাজ করছে। তনুর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের কল লিস্টের সূত্র ধরেও তদন্ত কাজ এগোচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। উল্লেখ্য, গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের অদূরে পাওয়ার হাউস এলাকার কালা ট্যাংকি সংলগ্ন জঙ্গল থেকে কলেজছাত্রী তনুর লাশ লাশ উদ্ধার করা হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: