২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

গাইবান্ধায় চাঁদার টাকা না পেয়ে মন্দির ভাংচুর ॥ আটক ১


গাইবান্ধায় চাঁদার টাকা না পেয়ে মন্দির ভাংচুর ॥ আটক ১

নিজস্ব সংবাদদতা, গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার পদুমশহর ইউনিয়নের সন্যাসদহ মাঝিপাড়া গ্রামে মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানে চাঁদার টাকা না পেয়ে একদল সন্ত্রাসী সোমবার মন্দির ও প্রতিমা ভাংচুর করেছে। এসময় নামযজ্ঞ অনুষ্ঠানের কর্মকর্তাদের বেধরক মারপিট করা হয়। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে একজনকে আটক করেছে।

নামযজ্ঞ অনুষ্ঠানের আয়োজকরা জানান, সন্যাসদহ মাঝিপাড়া গ্রামে মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠান উপলক্ষে মন্দির এলাকায় মেলা বসে। মেলার দোকানদারদের কাছে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী আব্দুল আজিজ, শাহাদুল ইসলাম, আব্দুল কাদের, লাভলু মিয়াসহ কয়েকজন চাঁদা দাবী করে। এতে হরিবাসর কমিটির সভাপতি রাধা চরণ দাস, সুপদ চন্দ্র দাস, সুনীল চন্দ্র দাস সহ মেলা কমিটির অন্যান্যরা চাঁদার টাকা তুলতে বাধা দেন। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে প্রথমে তর্কবিতর্ক এবং ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে মেলা কমিটির লোকজনের উপর হামলা চালায়। এতে শোভা রাণী, রঙ্গিনী রাণী, মিনা রানী ও অঞ্জলী রাণীদেবসহ অন্তত: ৭ জন আহত হয়। সন্ত্রাসীরা এসময় মন্দির ভাংচুর, কালী ও লক্ষ্মী প্রতিমা ভেঙ্গে ফেলে। সন্ত্রাসীরা মারপিট ও ভাংচুর করে চলে যাওয়ার সময় নামযজ্ঞ অনুষ্ঠান কমিটির ক্যাশিয়ার সুনীল চন্দ্র দাসের কাছে থাকা নগদ ১ লক্ষ ২০ হাজার ৫’শ ৩৫ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এব্যাপারে পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় পুলিশ সন্ত্রাসী লাভলু মিয়ার মা লাইলী বেগমকে সন্ত্রাসীদের মদদ দেয়ার অভিযোগে আটক করেছে। বাকি আসামিদের খোঁজা হচ্ছে। এদিকে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রণজিৎ বকসী সূর্য ও যুগ্ম সম্পাদক দীপক কুমার পাল এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: