মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ক্রেতা শূণ্য অবস্থায় এমারেল্ড ওয়েলের সর্বোচ্চ লেনদেন

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৬, ০৬:০৯ পি. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ এমারেল্ড অয়েল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) গেফতারের প্রভাব পড়েছে এই কোম্পানির শেয়ার লেনদেনে। কোম্পানিটির এমডি সৈয়দ হাছিবুল গণি গালিবের গ্রেফতারের পর সোমবার দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে কোম্পানির শেয়ারের বড় দর পতন হয়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) শেয়ারটির দাম কমে সার্কিট ব্রেকার স্পর্শ করে। অর্থাৎ ক্রেতার ঘরে কোন আদেশ ছিল না। তবে ক্রেতার ঘরে কোন আদেশ না দেখা গেলেও দিনটিতে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইর ওয়েবসাইটে দেখা গেছে, লেনদেন শেষ হওয়ার আগেও কোম্পানিটির ৩৫ হাজার ৪২১ টি শেয়ার কেনার বিক্রির দেখাচ্ছিল কিন্তু ক্রেতার ঘরে কোনো শেয়ার কেনার প্রস্তাব ছিল না। ক্রেতা শূণ্যের আগে সর্বশেষ লেনদেনটি হয় ৫৬ টাকা ৫ পয়সা দরে। রবিবার এই শেয়ারের সমাপনী দর ছিল ৬২ টাকা ৭০ পয়সা। দিনভর এমন চিত্র দেখা গেছে। তবে এর মধ্যেই আবার বিপুল সংখ্যক শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে এ কোম্পানির।

প্রসঙ্গত, বেসিক ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগের এক মামলায় এমারেল্ড অয়েল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ হাছিবুল গণি গালিবকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার দিবাগত রাতে নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বেসিক ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, ব্যাংকটির দিলকুশা শাখা থেকে ৬১ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিল পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের কোম্পানি এমারেল্ড অয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। এর মধ্যে ৩২ কোটি টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। বাকি টাকা পরিশোধ করা হয়নি। এমারেল্ড অয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের কাছ থেকে সুদসহ আরও ৭৪ কোটি টাকা পাবে বেসিক ব্যাংক। এদিকে ২২ কোটি ১০ লাখ টাকা মূল্যের শেয়ার কেনা-বেচার মধ্য দিয়ে সোমবার দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে এমারেল্ড অয়েল। এদিন ডিএসইতে কোম্পানিটির ৩৭ লাখ ৬২ হাজার শেয়ার কেনাবেচা হয়।

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৬, ০৬:০৯ পি. এম.

২৮/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: