২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

অস্ট্রেলিয়ার বিদায় সেমিতে ভারত


জাহিদুল আলম জয় ॥ হারলে বাদ, জিতলে টুর্নামেন্টে টিকে থাকা। বাঁচা-মরার এই মন্ত্র নিয়েই চলমান টি২০ বিশ্বকাপে অঘোষিত ‘কোয়ার্টার ফাইনালে’ মুখোমুখি হয় স্বাগতিক ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। রবিবার রাতে চ-ীগরের মোহালির পাঞ্জাব ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশন আইএস বিন্দ্রা স্টেডিয়ামে এই লড়াইয়ে শেষ হাসি হেসেছে টি২০ বিশ্বকাপের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়নরা। সুপার টেনের দুই নম্বর গ্রুপের ম্যাচে ওয়ানডে বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের সহজেই ৬ উইকেটে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ভারত।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে আসা অস্ট্রেলিয়া নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে সংগ্রহ করে ১৬০ রান। ১৬১ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে তুখোড় ফর্মে থাকা বিরাট কোহলি ও অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে সহজেই জয় পায় ভারত। ১৯.১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে (১৬১ রান) পৌঁছে যায় স্বাগতিকরা। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে ভারতের প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৩১ মার্চ বৃহস্পতিবার আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে। আর ৩০ মার্চ প্রথম সেমিতে লড়বে নিউজিল্যান্ড-ইংল্যান্ড।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা অবশ্য দারুণ করে অস্ট্রেলিয়া। উদ্বোধনী জুটিতে উসমান খাজা ও এ্যারন ফিঞ্চ ২৬ বলে ৫৪ রানের ঝড়ো জুটি গড়েন। কিন্তু পঞ্চম ওভারে ২৬ রান করে খাজা আউট হয়ে যাওয়ার পর থেকে কমতে থাকে অসিদের রানের গতি। চার নম্বর ওভার থেকে পরবর্তী ১০ ওভারে অস্ট্রেলিয়া সংগ্রহ করতে পারে মাত্র ৫১ রান। এ সময় স্টিভেন স্মিথের দল হারায় তিন উইকেট। ১৩ নম্বর ওভারে ফিঞ্চ সাজঘরে ফেরেন দলের পক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৪৩ রান করে। এর আগে ব্যক্তিগত ৬ ও ২ রান করে আউট হন ডেভিড ওয়ার্নার ও অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। পাঁচ নম্বরে ব্যাটিংয়ে আসা ম্যাক্সওয়েল ২৮ বলে ৩১ রানের ইনিংস খেলে ভারতীয় বোলারদের চাপে ফেলার চেষ্টা করেন। কিন্তু ১৭তম ওভারে তাকে আউট করে আবার অসিদের চাপে ফেলেন জাসপ্রিট বুমরা। শেষ তিন ওভারে অস্ট্রেলিয়া জড়ো করে ৮ রান। ছয় নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ১৬ বলে ১৮ রান করেন হার না মানা শেন ওয়াটসন। জেমস ফকনার ও পিটার নেভিলের ব্যাট থেকে আসে ১০ রানের ছোট দুটি ইনিংস। এর মধ্যে নেভিল এক চার ও এক ছয়ে দুই বলে করেন ১০ রান। ভারতের পক্ষে দারুণ বোলিং করেন হারডিক পান্ডিয়া। ৩৬ রানে ২ উইকেট লাভ করেন তিনি। এছাড়া পেসার আশিষ নেহরাও দারুণ বোলিং করেন। চার ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে তিনি নেন ১ উইকেট।

জয়ের জন্য ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা খুব একটা ভাল করতে পারেননি দুই ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। চতুর্থ ওভারে ধাওয়ান (১৩) ও ষষ্ঠ ওভারে রোহিত (১২) সাজঘরে ফেরেন। বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি চার নম্বরে ব্যাট করতে আসা সুরেশ রায়নাও। ১০ রান করে দলীয় ৪৯ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। এরপর চতুর্থ উইকেটে কোহলি ও যুবরাজ ৬.২ ওভারে ৪৫ রান করে ভারতকে ম্যাচে ফেরান। দলীয় ৯৪ রানে যুবরাজকে ফেরান ফকনার। এরপর অধিনায়ক ধোনিকে নিয়ে কোহলি তা-বলীল চালান অসি বোলাদের ওপর। কোহলির ৫১ বলে হার না মানা ৮২ ও ধোনির ১০ বলে অপরাজিত ১৮ রানের ইনিংসে পাঁচ বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে ভারত।

স্কোর ॥ অস্ট্রেলিয়া ॥ ২০ ওভারে ১৬০/৬ (উসমান ২৬, ফিঞ্চ ৪৩, ম্যাক্সওয়েল ৩১, ওয়াটসন ১৮*, নেভিল ১০*; পান্ডিয়া ২/৩৬, যুবরাজ ১/১৯, নেহরা ১/২০, অশ্বিন ১/৩১, বুমরা ১/৩২)

ভারত ॥ ১৯.১ ওভারে ১৬১/৪ (কোহলি ৮২*, যুবরাজ ২১, ধোনি ১৮*; ওয়াটসন ২/২৩, নাথান কালটার ১/৩৩, ফকনার ১/৩৫)

ফল ॥ ভারত ৬ উইকেটে জয়ী।

ম্যাচসেরা ॥ বিরাট কোহলি (ভারত)।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: