মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ভারত-অস্ট্রেলিয়া ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচ আজ

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৬, ১১:২৬ পি. এম.

শাকিল আহমেদ মিরাজ ॥ টি২০ বিশ্বকাপে ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে আজ মুখোমুখি হচ্ছে দুই শক্তিধর প্রতিপক্ষ ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। সুপার টেনে ‘গ্রুপ অব ডেথ’ গ্রুপ-২এ টানা তিন জয়ে সবার আগে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে নিউজিল্যান্ড। বিপরীতে সমান হারে আসর থেকে ছিটকে যায় বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। তিন খেলায় দুটি করে জয়ে শেষ চারে কিউদের সঙ্গী হিসেবে রেসে টিকে আছে অস্ট্রেলিয়া ৃও ভারত। সেই তারাই আজ মুখোমুখি। নির্ঝঞ্ঝাট সমীকরণÑ যারা জিতবে, তারাই দ্বিতীয় দল হিসেবে সেমিতে পৌঁছে যাবে, হারলে বিদায়। অবশ্য বৃষ্টি বা অন্য কোন কারণে ম্যাচ পরিত্যক্ত হলে সিকে ছিঁড়বে অসিদের। কারণ মহেন্দ্র সিং ধোনিদের (-০.৫৪৬) চেয়ে নেট রান রেটে এগিয়ে স্টিভেন স্মিথের অস্ট্রেলিয়া (+০.৪৪০)।

একদিকে হট-ফেবারিট স্বাগতিক শিবির, অন্যদিকে ওয়ানডের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। ভারত ‘বনাম’ অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ ঘিরে ক্রিকেট বিশ্বের আগ্রহ তুঙ্গে। মোহালির আজকের ম্যাচটা কার্যত ‘কোয়ার্টার ফাইনালে’ রূপ নিয়েছে। উদ্বোধনী দিনেই নিউজিল্যান্ডের কাছে অপ্রত্যাশিতভাবে ৪৭ রানের বড় ব্যবধানে হেরে বসে ভারত। পরে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের বিপক্ষে কষ্টের জয়ে আশা বাঁচিয়ে রাখে ধোনির দল। ব্যাঙ্গালুরুতে তো টাইগার থাবায় মরতে মরতেও বেঁচে যায় ক্রিকেটের মোড়লরা, পায় ১ রানের নাটকীয় জয়! অন্যদিকে অসিদের অবস্থাও ধোনিদের মতোই। চেনা প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ডের কাছে হার দিয়ে শুরু করা স্মিথ-বাহিনী বাংলাদেশ ও পাকিস্তানকে হারিয়ে শেষ চারের আশা জিইয়ে রাখে। টাইগারদের কাছে অবশ্য প্রায় হারতে (৩ উইকেটের জয়) বসেছিল তারা! মূলত কিউইদের কাছে হেরে ফেবারিটের তকমা খোয়ায় ভারত। বাংলাদেশ ম্যাচটা তো সেটিকে আরও সত্যি করে তোলে!

আশা বাঁচিয়ে রাখলেও নেট রান রেটে খুব বেশি উন্নতি না হওয়ায় অসিদের বিপক্ষে ধোনিদের আজ জিততেই হবে। স্মিথদের বাড়তি সুবিধা, শুক্রবার এই মোহালিতেই পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ে মানসিকভাবে কিছুটা হলেও এগিয়ে থাকবে তারা। ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্রের খবর, আজও বাংলাদেশ ম্যাচের স্কোয়াড অপরিবর্তিত থাকবে। বিশেষত বাংলাদেশের বিপক্ষে নাটকীয় সেই জয়ের দিন জাসপ্রিত বুমরাহ, হার্দিক পান্ডিয়ার মতো তরুণরা যেভাবে খেলেছেন, তাতে নতুন প্রজন্মের মধ্যে চাপ সামলানোর মানসিকতাই ফুটে উঠেছে। তবে শেখর ধাওয়ান, সুরেশ রায়না, রোহিত শর্মার ফর্ম ধোনিকে চিন্তায় রেখেছে। এদের মধ্যে যে কোন দুজন ফর্মে ফিরলে ভারতের জন্য কাজটা সহজ হয়ে যাবে। বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত ভারতীয় ওপেনিং জুটি সফল হতে পারেনি। নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান তো বটেই, বাংলাদেশের বিপক্ষেও রোহিত-ধাওয়ানরা নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি।

তবু ওপেনিং নিয়ে চিন্তিত নন সৌরভ গাঙ্গুলি। সাবেক ভারত অধিনায়ক আশাবাদী আজই ওরা ঘুরে দাঁড়াবে। কলকাতা দাদা বাবু বলেন, ‘ক্রিকেটে এমনটা হয়েই থাকে। অনেক সময় ওপেনাররা রান পায় না। আমি আশাবাদী মোহালিতেই ওরা ফর্মে ফিরবে। আর নিজের দিনে রোহিত-ধাওয়ানরা কি করতে পারে সেটিও সবার জানা। ভারত-অস্ট্রেলিয়া দুটিই শক্তিশালী দল। ম্যাচটা ডু অর ডাই। আশীষ নেহরা, জাসপ্রিত বুমরা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে নিয়ে আমাদের বোলিং ভাল হচ্ছে। টপ-অর্ডারে কোহলিকে নিয়ে কিছু বলার নেই। ওপেনাররা জ্বলে উঠলে ভারতের জন্য কাজটা সহজ হয়ে যাবে। আমি আশাবাদী।’ রোহিত, ধাওয়ান, কোহলি, যুবরাজ সিং, ধোনিদের নিয়ে অবশ্যই ভারতের ব্যাটিং বিশ্বসেরা। আছেন সুরেশ রায়না, পান্ডিয়ার মতো হার্ডহিটার। পান্ডিয়া, রায়না, রবীন্দ্র জাদেজা, যুবরাজ সিংকে নিয়ে অলরাউন্ডারেরও ঘাটতি নেই।

তবে কাজটা মাঠে করতে হবে। বিশেষত প্রতিপক্ষ যখন ‘অদম্য’ মানসিকতার অস্ট্রেলিয়া, যারা হারার আগে হারতে জানে না। ব্যাটিংয়ে অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ দুর্দান্ত। আগের ম্যাচেই যিনি ম্যাচজয়ী এক ইনিংস উপহার দিয়েছেন। ক্যারিয়ারসেরা ৫ উইকেট নিয়ে একাই পাকিস্তানকে দুমড়ে মুচড়ে দেন ওয়ানডে বিশ্বকাপ ফাইনালের ‘নায়ক’ জেমস ফকনার। আছেন ক্যারিয়ারের শেষ টুর্নামেন্ট খেলা শেন ওয়াটসন, ফর্মে উসমান খাজা। তবে এ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নারের ফর্মহীনতা অসিদের ভাবাচ্ছে। বল হাতে পেস আক্রমণে কাল্টার-নাইলের সঙ্গী ফকনার ও ওয়াটসন। স্পিনে ম্যাক্সওয়েল-এ্যাডাম জাম্পা। সুতরাং লড়াইটা জমবে বেশ। কঠিন চাপের মধ্যে সেরাটা দেয়ার ক্ষমতা অসিদের রয়েছে। অধিনায়ক স্মিথ সতীর্থদের কাছ থেকে সেটাই চাইছেন।

পরিসংখ্যানে অবশ্য এগিয়ে ভারত। ২০০৭ থেকে এ পর্যন্ত ১২ টি২০তে মুখোমুখি হয়ে ধোনিদের জয় ৮টিতে। গত জানুয়ারিতে সিডনির শেষ দেখায় জিতেছিল ভারতই।

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৬, ১১:২৬ পি. এম.

২৭/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলা



শীর্ষ সংবাদ: