১৭ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

৪৬ বছরেও অজানা সাত শহীদের আত্মদান কাহিনী


স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট অফিস ॥ মহান মুক্তিযুদ্ধের ৪৬ বছরেও অজানা থেকে গেছে সাতজন শহীদের আত্মদানের কাহিনী। যাদের স্থানীয় দালালদের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় নির্মমভাবে খুন করেছিল পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী। ঘটনাটি ঘটেছিল ১৯৭১ সালের ২২ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বেলা ২টা থেকে বিকেল ৫টার মধ্যে গোলাপগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়ি ইউনিয়নের রফিপুর পালপাড়ায়। গণহত্যার স্থানটি সিলেট শহর থেকে মাত্র ১১ কিলোমিটার দূরে। সম্প্রতি বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট জেলা কমান্ডের তথ্য ও গবেষণা কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা প্রিন্সিপাল সুবল চন্দ্র পালের অনুসন্ধানে উঠে এসেছে এ কাহিনী। গ্রামের বিপিন চন্দ্র পালকে পাক সেনারা নিজের বাড়ির উঠোনে, অঙ্গদ পালকে পাশের অমরিকা পালের বাড়িতে নিয়ে এবং অমর চন্দ্র পালকে পাশের জ্ঞান চন্দ্র পালের বাড়ির উঠোনে হানাদার বাহিনী গুলি করে হত্যা করে। আর সুরেশ চন্দ্র পাল, দুর্যোধন পাল, মতিলাল পাল এবং নরোত্তম পালকে ধরে নিয়ে যায় পাকসেনারা। পরে সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের চারমাইল নামক স্থানে ইঞ্জিনিয়ারের গেটসংলগ্ন সুরমা নদীর পাড়ে নিয়ে গুলি করে হত্যার পর লাশ নদীতে ফেলে দেয়।

কালরাতের আন্তর্জাতিক

স্বীকৃতি এখন

সময়ের দাবি ॥ এমিলি

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ অধ্যাপিকা সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি এমপি বলেছেন, ২৫ মার্চ ভয়াল কাল রাতকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এখন সময়ের দাবি। অপারেশন সার্চ লাইটের নামে হানাদার বাহিনী যে নারকীয় হত্যাযজ্ঞ আর বর্বরতা চালিয়েছে, তা গোটা পৃথিবীতে বিরল। তিনি বঙ্গবন্ধুর বীরত্বের নানা ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, বাঙালীর সার্বিক মুক্তির জন্য দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে লালন করে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি শনিবার টঙ্গীবাড়ি উপজেলা মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এ কথা বলেন।