মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

গাইবান্ধায় ৩০টিরও বেশি টর্চার সেল

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৬

সে সময় মহকুমা শহরের অন্যতম টর্চার সেল ও বধ্যভূমি ছিল স্টেডিয়াম (তৎকালীন হেলালপার্ক) সংলগ্ন নির্মাণাধীন গুদাম। বর্বর পাকিস্তানী বাহিনী হেলালপার্ক প্যাভিলিয়নে ক্যাম্প স্থাপন করে পাশে নির্মানাধীন গুদাম ঘরকে নির্যাতন সেল হিসেবে ব্যবহার করে। প্রতি রাতেই নিরীহ লোকজন ধরে এনে পাক হানাদার বাহিনী নৃশংসভাবে তাদের হত্যা করে মাটি চাপা দিত। মেয়েদের ধরে এনে দিনের বেলা বেঁধে রাখা হতো। আর রাতে তাদের ওপর চলত নির্যাতন। এক সময় তারা নির্যাতন আর বর্বরতায় মরণাপন্ন হয়ে পড়লে গুলি করে নয়ত বেয়োনেট দিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করা হতো। মুক্তিযোদ্ধাদের আটক করে অমানসিক নির্যাতনের পর তাদের হত্যা করে সেখানে পুঁতে রাখা হয়। এছাড়া স্টেডিয়ামের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে হেলালপার্ক সংলগ্ন লাইনের ধারে নারী-পুরুষকে গুলি অথবা বেয়োনেট চার্জ করে হত্যার পর মাটি চাপা দিয়ে পুঁতে রাখা হয়। এছাড়া পলাশবাড়ি সড়ক ও জনপথ বিভাগের রেস্ট হাউসের পেছনের গুদাম, সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশন, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের পাখেয়া গ্রাম ও বোনারপাড়া লোকোশেড, সুজাল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ ও দলদলিয়াসহ গাইবান্ধা জেলায় ৩০টিরও বেশি টর্চার সেল এবং বধ্যভূমির সন্ধান পাওয়া গেছে। -আবু জাফর সাবু, গাইবান্ধা থেকে

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৬

২৬/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ:
রোহিঙ্গা সমস্যার সৃষ্টি মিয়ানমারের ॥ সমাধান ওদের হাতে || বাবার ফেরার অপেক্ষায় পিতৃহারা অবোধ রোহিঙ্গা শিশুরা || বছরে রফতানি আয় বাড়ছে ৩ থেকে ৪ বিলিয়ন ডলার || চালের বাজারে স্বস্তি প্রতিদিন দাম কমছে || বিদ্যুতের পাইকারি দর ১১.৭৮ ভাগ বৃদ্ধির সুপারিশ || মিয়ানমারে গণহত্যা বন্ধ নির্ভর করছে নিরাপত্তা পরিষদের ওপর || রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্বাস্থ্য সেবায় ২৫ কোটি ডলার চেয়েছে বাংলাদেশ || আরও মোবাইল ব্যাংকিং কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক || অপকৌশলে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা, বিপুল অর্থ আদায় || জেলে মাদক ও মোবাইল ফোন ব্যবহার ॥ সারাদেশে দুই শতাধিক কারারক্ষী গোয়েন্দা নজরদারিতে ||