মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

সিরিয়ায় আগস্টের মধ্যে খসড়া সংবিধান চায় যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৬

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি বলেছেন, সিরিয়ার জন্য আগস্টের মধ্যে একটি নতুন শাসনতন্ত্রের খসড়া প্রণয়নের জন্য একমত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া। খবর বিবিসি অনলাইনের।

ক্রেমলিনে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সঙ্গে আলোচনা করার চার ঘণ্টা পর কেরি কথা বলছিলেন। তিনি বলেন, একটি রাজনৈতিক অন্তর্বর্তীকালীন ব্যবস্থার ওপর আলোচনা দ্রুততর সময়ে সারার জন্য সিরীয় সরকার ও বিদ্রোহীদের ওপর চাপ প্রয়োগ করতেও সম্মত হয়েছেন তারা। জেনেভায় সিরীয় সরকার ও বিরোধীদের মধ্যে এক পরোক্ষ শান্তি আলোচনা বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে। জাতিসংঘের দূত স্ট্যাফান ডি মিসতুরা বলেছেন, দু’পক্ষের মধ্যে আলোচনায় বেশ কিছু অভিন্ন ভিত্তি তৈরি হয়েছে বলে তিনি মনে করেন। তিনি বলেন, আলোচনা এখন এক নির্দিষ্ট সময়ের জন্য স্থগিত করা হয়েছে এবং আগামী মাসে পুনরায় তা শুরু হবে। প্রেসিডেন্ট পুতিন ১০ দিন আগে এক ঘোষণায় বলেছেন, তিনি সিরিয়া থেকে কিছু সংখ্যক রুশ সৈন্য প্রত্যাহার করছেন এবং কেরি তার এ ঘোষণার ১০ দিন পর মস্কো পৌঁছেন। কেরি বলেন, রাজনৈতিক অন্তর্বর্তী সময়ের জন্য একটি কাঠামো গঠন এবং একটি খসড়া শাসনতন্ত্র প্রণয়নের জন্য একটি নির্দিষ্ট সময়সূচী তৈরিতে সম্মত হয়েছি এবং দুটি বিষয়ই আগস্টের মধ্যে সম্পন্ন করা হবে বলে লক্ষ্যস্থির করেছি আমরা। তিনি রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছিলেন। পুতিনের সঙ্গে বৈঠকে সিরীয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের ভবিষ্যত নিয়ে কোন আলোচনা হয়েছে কিনা কেরি এ ব্যাপারে কিছু বলেননি। কিন্তু তিনি বলেন, আসাদের যথার্থ কাজটি করা উচিত এবং শান্তি আলোচনায় জড়িত হওয়া উচিত। অন্য এক সংবাদে বলা হয়, সিরীয় সরকারী বাহিনী ইসলামিক স্টেট (আইএস) অধিকৃত পালমিরা শহরে প্রবেশ করেছে। যুক্তরাষ্ট্র সমর্থক বিরোধী পক্ষ আসাদকে পদত্যাগ করতে বলছে। কিন্তু সিরীয় নেতার সহযোগী রাশিয়া বলেছে, তা কেবল সিরীয়দের সিদ্ধান্তের বিষয়। লাভরভ বলেছেন, জেনেভায় সরাসরি শান্তি আলোচনা অনুষ্ঠানের জন্য সিরীয় সরকার ও বিরোধী পক্ষের ওপর চাপ প্রয়োগ করবে যুক্তরাষ্ট্র ও সিরিয়া এ আলোচনায় একটি অন্তর্বর্তী শাসন কাঠামো গঠনের জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে। তিনি ও কেরি, দুজনই বলেছেন, তারা বৈরিতা অবসানে চেষ্টা জোরদার করবেন। তথাকথিত আইএসও প্রতিদ্বন্দ্বী গ্রুপ আল-নূসরা ফ্রন্ট এ অস্ত্রবিরতিতে অন্তর্ভুক্ত নয়। সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টিভি বৃহস্পতিবার ঘোষণা করেছে যে, সরকারী সৈন্যরা প্রাচীন শহর পালমিরায় প্রবেশ করেছে। আইএস জঙ্গীরা গত বছর পালমিরা দখল করে। সিরীয় সৈন্যরা শহরটি তাদের অধিকারে নেয়ার জন্য রুশ বিমান হামলার সমর্থন নিয়ে এ মাসের শুরুতে আক্রমণ অভিযান শুরু করে। বিভিন্ন রিপোর্টে বলা হয়েছে, রুশ বিশেষ বাহিনীর এক কর্মকর্তা শহরের কাছে লড়াইয়ে নিহত হয়েছেন। আইএস মে’তে পালমিরার বেশ কিছু ধ্বংসাবশেষ এবং পালমিরা সংলগ্ন আধুনিক শহর দখল করে নেয়। তারা শহরের দু’হাজার বছরের পুরনো দুটি মন্দির, একটি খিলান ও কয়েকটি সমাধি ধ্বংস করে দিয়েছে। তাদের এ অপকর্মে ক্ষোভের সৃষ্টি হয় বিশ্বব্যাপী।

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৬

২৬/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: