২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

নারায়ণগঞ্জে সিনহা গার্মেন্টেসে অগ্নিকান্ড ॥ সংবাদ সংগ্রহে গণমাধ্যমকর্মীদের বাধা


নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ ॥ নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরে সিনহা অ্যান্ড ওপেক্স গ্রুপের একটি গার্মেন্টেসে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এত সুতা, মালামাল ও মেশিনারিজ পুড়ে গেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিট দেড়ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এদিকে সংবাদ সংগ্রহ করতে গণমাধ্যমকর্মীরা (ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া) ঘটনাস্থলে গেলে বাধা দিয়ে তাদের উপর চড়াও হয়েছে মালিকপক্ষের লোকজন। এতে সাংবাদিকরা ক্ষুব্ধ হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার দুপুর দেড় টায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, শুক্রবার দেড়টা দিকে সিনহা অ্যান্ড ওপেক্স গ্রুপের একটি গার্মেন্টেসের রোপ উইভিং সেকশনের আগুনের সুত্রপাত ঘটে। মুর্হুতের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে নিরাপত্তাকর্মীরা কারখানায় প্রবেশ ও বাহিরসহ বিভিন্ন গেইটে তালা বন্ধ করে দেয়। আগুনের খবর পেয়ে ডেমরার ২টি, হাজীগঞ্জের ২টি, মন্ডলপাড়ার ৩টি ও ফায়ার সার্ভিস ঢাকা হেডকোয়ার্টাসের ১টিসহ মোট ৮টি ইউনিট দেড়ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এদিকে আগুন লাগার খবর পেয়ে গণমাধ্যমকর্মীরা ঘটনাস্থল (কারখানার মূল ফটকে) গেলে বাধা দিয়ে তাদের উপর চড়াও হয়েছে মালিকপক্ষের লোকজন। দীর্ঘ দুই ঘন্টা পর উর্ধ্বতন কর্তপক্ষের হস্তক্ষেপে গণমাধ্যমকর্মীদের ভেতরে প্রবেশ করতে দেন। এদিকে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বেসরকারী একটি টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিক এই ঘটনায় লাইভ দেয়ার সময় তাকে কারখানার পরিচালক পদের এক কর্মকর্তা তার উপর উত্তেজিত হয়ে যান এবং তাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেন।

ফায়ার সার্ভিসকর্মী মাসুদ জানান, কারখানার বিভিন্ন গেইটে তালা বন্ধ করে রাখায় আমাদের আগুন নেভাতে বেগ পেতে হয়। এছাড়া প্রয়োজনে কারখানার বাইরে আমাদের পাম্পের লোকজনকেও কোন নির্দেশনা দিতে পারছিলাম না। কীভাবে আগুন লেগেছে সে বিষয়ে তিনি বলেন, শুক্রবার কারখানাটি বন্ধ ছিল। শর্ট সার্কিটের স্পার্ক থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে তিনি জানান।

সিনহা গার্মেন্টসের প্রশাসন ও মানব সম্পদ বিভাগ ব্যবস্থাপক মো: হুমায়ুন কবির জানান, আগুনে কারখানার বিপুল পরিমাণ সুতা, মেশিনারিজসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে গেছে। তবে আগুনে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আগুনে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা তাৎক্ষনিকভাবে জানাতে পারেনি তিনি। সাংবাদিকদের প্রবেশে বাধা ও তাদের উপর চড়াওয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, আসলে এই ধরণের কোন নির্দেশনা আমাদের ছিল না। ভুলবোঝাবুঝি থেকে এই ঘটনা ঘটেছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: