মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

প্রাণের ভয়ে বাড়ি ছেড়ে যাচ্ছেন নৌকার সমর্থকরা

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০১৬, ০৫:৫৯ পি. এম.

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল ॥ বাউফলের নওমালা ইউনিয়নের নৌকা মার্কার কর্মী সমর্থকরা আতংকের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। অনেকে কর্মী সমর্থকরা ইতিমধ্যে প্রাণের ভয়ে এলাকা ছেড়েছেন। এ অবস্থার প্রেক্ষিতে জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আসম ফিরোজ গত দুই দিন ধরে ওই ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে ঘুরে হামলা ও নির্যাতনের শিকার নৌকার কর্মী সমর্থকদের খোঁজ খবর নিয়েছেন এবং তাদেরকে ধের্য্য সহকারে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। এসময় চীফ হুইপকে কাছে পেয়ে কর্মী সমর্থকরা কান্নায় ভেঙ্গে পরেন। চীফ হুইপ নিজেও বাড়ি ঘরে ভাংচুরের দৃশ্য ও কর্মী সমর্থকদের শরীরের নির্যাতনে দগদগে চিহৃ দেখে নিজেও চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি।

উল্লেখ, প্রথম দাপের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর থেকে বাউফলের মেয়র জিয়াউল হক জুয়েল গ্রুপের কতিথ শ্রমকি লীগের লীগের আহবায়ক ও ঘোড়া মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাদা হাওলাদারের সন্ত্রাসীরা বিএনপি-জামায়াতের ছত্রছায়ায় নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাডভোকেট কামাল বিশ্বাসের সমর্থকদের ৪১টি বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট করে। কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে প্রায় শতাধিক নেতাকর্মীকে। ঘোড়া মার্কার সন্ত্রাসীদের হামলার হাত থেকে রক্ষা পায়নি শিশু ও নারীরা। বাড়িঘর ছাড়াও ভাংচুর করা হয় থালা, বাসন, কলস, লবনে বাটি । ভাংচুর করা হয়েছে, রান্নাঘর, লেট্রিন, মুরগির ঘর ও কবরস্থান। এসব ঘটনায় মামলা হলেও পুলিশ কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেননি। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে চীফ হুইপ আসম ফিরোজ নওমালা ইউনিয়নের ভাংরা গ্রামে যখন নির্যাতিত নৌকার সমর্থকদের পাশে গিয়ে সমবেদনা যানাচ্ছিলেন, ঠিক তখন নগরের হাট বাজারের ঘোড়ারর সমর্থক সোহাগ গাজীর নেতৃত্বে ৮-১০ জন সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্য রাস্তায় আবদুর রহমান (২২) নামের এক নৌকার সমর্থককে ইট দিয়ে পিটিয়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশ থেতলে দিয়েছেন। এ ঘটনার পর নৌকার ও ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ সভাপতি রত্তন আলী মৃধার ছেলে আলমগীরসহ বেশ কয়েকজন সমর্থক প্রাণের ভয়ে এলাকা ছেড়েছেন।

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০১৬, ০৫:৫৯ পি. এম.

২৫/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: