২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

জয়পুরহাট মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি বার্ষিক নির্বাচন ২ মাসের স্থগিতাদেশ


নিজস্ব সংবাদদাতা, জয়পুরহাট ॥ জয়পুরহাট মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক সাধারণ নির্বাচনে ব্যালট বাক্স ছিনতাই ও পুড়িয়ে দেওয়া এবং ভাংচুর ঘটনার প্রেক্ষিতে ৫ মার্চ অনুষ্ঠেয় নির্বাচন স্থগিত ঘোষনা করার পর ২৭ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য সাধারন নির্বাচনের উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে নির্বাচনের সভাপতি প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন চৌধুরী হাইকোর্টে রিট করায় হাইকোর্ট নির্বাচনের উপর ২ মাসের স্থগিতাদেশ দেয়। হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান এবং কৃষ্ণা দেবনাথ সমন্বয়ে গঠিত দ্বৈত বেঞ্চ এই আদেশ প্রদান করেন। এই স্থগিতাদেশের কারণে এখন আর ওই তারিখে নির্বাচন হচ্ছে না। রিট আবেদনে জাহাঙ্গীর চৌধুরী উল্লেখ করেন গত ১৮ ফেব্রুয়ারী তারিখে জয়পুরহাট জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠনের জন্য নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হলে তিনি উক্ত নির্বাচনের সভাপতি পদের জন্য মনোনয়নপত্র ক্রয় করে জমা প্রদান করেন। ৫ মার্চ নির্বাচনের দিন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী তার ভড়াডুবি দেখে ভাড়া করা সন্ত্রাসীদের দিয়ে নির্বাচনের পোলিং বুথ দখল করে ব্যালট বক্স লুন্ঠন করে এবং তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ কারণে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করে। পরে উল্টো তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ফৌজদারী মামলা দায়ের করা হয়। বর্তমানে কার্যনির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুল হাফিজ সরদার ষড়যন্ত্র করে তাকে শো-কোজ নোটিশ না দিয়ে তার সদস্য পদ বাতিল করে এবং ২৭ মার্চ পুনরায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। এই নির্বাচন এর রিটার্নিং অফিসার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আবু হাসনাত মোঃ শহিদুল হক জানান হাইকোর্টের আদেশের পরিপ্রেক্ষিতে ভোট স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে এবং নির্বাচন সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম বন্ধের আদেশ দিয়েছেন। রিটার্নিং অফিসার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আবু হাসনাত মোঃ শহিদুল হক ও জাহাঙ্গীর হোসেন চৌধুরী জানান ২৩ মার্চ বিকেলে নির্বাচন স্থগিতের আদেশ জারি হলেও বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তারা হাইকোর্টের আদেশের বিষয়টি জানতে পারে এবং হাইকোর্টের আদেশের প্রেক্ষিতে রিটার্নিং অফিসার ২৭ মার্চ নির্বাচন এবং নির্বাচন অন্যান্য কার্যক্রম ২ মাসের জন্য স্থগিত ঘোষনা করেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: