২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে অবৈধ স্থাপনা অপসারণের নির্দেশ


স্টাফ রিপোর্টার ॥ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে অবৈধ স্থাপনা আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। তবে পাশে থাকা কবরটি সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। জনস্বার্থে করা এক রিট আবেদনে জারি করা রুল নিষ্পত্তি করে বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মোঃ সাইদুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এ রায় দেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও ইতিহাসবিদ অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষায় জনস্বার্থে রিটটি করেন। রিটের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এ্যাডভোকেট মনজিল মোরশেদ। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী এ্যাটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস। শহীদ মিনারের পাশে অবৈধভাবে ও দখলদারিত্বের মাধ্যমে বিভিন্ন স্থাপনা তৈরি করে শহীদ মিনারের মর্যাদাহানি করা হচ্ছে- ২০১২ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি একটি জাতীয় দৈনিকে এমন সংবাদ প্রকাশিত হয়। সেই সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে জনস্বার্থে রিটটি দায়ের করেন অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন।

রায়ের পর আইনজীবী মনজিল মোরশেদ জনকণ্ঠকে বলেন, এটি একটি সুখবর। এই রায়ের মাধ্যমে মর্যাদা রক্ষার জন্য পদক্ষেপ নেয়া হলো। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, নির্বাহী প্রকৌশলী (সিভিল ডিভিশন), ঢাকার জেলা প্রশাসক ও শাহবাগ থানার ওসিকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কবরটি ছাড়া অবৈধ সব স্থাপনা ভেঙ্গে অপসারণ করতে নির্দেশ দিয়েছে। কবরটি মর্যাদার সঙ্গে সংরক্ষণ করতে হবে। শহীদ মিনারের পবিত্রতা ও মর্যাদা রক্ষায় আদালত এ রায় দিয়েছে। রাষ্ট্র ভাষা এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। আমি আশা করব আদালতের রায় দ্রুত বাস্তবায়ন হবে।

পরে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এই রিটের ভিত্তিতে একই বছর ২২ ফেব্রুয়ারি একটি রুল জারি করে। ওইদিন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে থাকা অবৈধ স্থাপনা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে উচ্ছেদের নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট।