১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

চীনে কয়লা খনিতে দুর্ঘটনায় ১৯ জনের মৃত্যু


চীনের একটি কয়লা খনিতে বৃহস্পতিবার এক ভয়াবহ দুর্ঘটনায় অন্তত ১৯ জন প্রাণ হারিয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া একথা জানিয়েছে। চলতি বছর এ পর্যন্ত এ ধরনের যে কয়টি দুর্ঘটনা ঘটেছে তার মধ্যে এটাই সবচেয়ে ভয়াবহ বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর এএফপির।

সিনহুয়া আরও জানায়, বুধবার রাতে চীনের উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ শানঝির এক কয়লা খনিতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খনিটির মালিক হচ্ছে শানঝি দোতং কয়লা খনি গ্রুপ। প্রাদেশিক কমিউনিস্ট ইয়ুথ লীগ এক সামাজিক মাধ্যমে জানিয়েছে, ঘটনার সময় ওই খনিতে ১২৯ শ্রমিক কাজ করছিল। এদের মধ্যে ১১০ জন সেখান থেকে বেরিয়ে এসেছে। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত চলছে। চীন বিশ্বের বৃহত্তম কয়লা উৎপাদনকারী দেশ। দেশটির খনিগুলোতে প্রায়ই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে।

পালমিরার উপকণ্ঠে সিরীয় সরকারী বাহিনী

সিরিয়ার সরকারী বাহিনী ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গীদের হটিয়ে দেশটির প্রাচীন নগরী পালমিরার উপকণ্ঠে পৌঁছে গেছে। কর্মকর্তা ও মানবাধিকার কর্মীরা একথা জানিয়েছেন। নগরীটি ইসলামিক স্টেট (আইএস) দখল করেছিল। খবর এএফপির।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, সরকারী সৈন্য ও তাদের মিত্র মিলিশিয়া বাহিনীর সদস্যরা পাহাড়গুলোর নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। এসব পাহাড় থেকে শহরটি দেখা যায়। জাতিসংঘের সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো প্রাচীন এই শহরটিকে বিশ্ব ঐতিহ্য নগরী হিসেবে ঘোষণা করেছে। গত বছরের মে মাসে ইসলামপন্থী জিহাদী সংগঠন আইএস পালমিরার ধ্বংসাবশেষ ও পার্শ্ববর্তী আধুনিক নগরী দখল করে নেয়। আইএস জিহাদীরা দুটি ২ হাজার বছরের পুরনো মন্দির, বিশেষভাবে নির্মিত ধনুক আকৃতির খিলান ও কয়েকটি সমাধিস্তম্ভ ধ্বংস করে। এই ঘটনায় বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় ওঠে। জিহাদি সংগঠনটি সিরিয়ার পার্শ্ববর্তী দেশ ইরাকের ইসলামপূর্র্ব যুগের বেশ কিছু বিশ্বের খ্যাতি সম্পন্ন স্থান ধ্বংস করে। আইএস জিহাদীরা এই সব স্থানকে পৌত্তলিকতার চিহ্ন মনে করে। ইউনেস্কো এই ঘটনাকে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে আখ্যায়িত করে নিন্দা জানিয়েছে।

৯৫ বছর পর মার্কিন নৌবাহিনীর নিখোঁজ জাহাজের সন্ধান

যুক্তরাষ্ট্রে ৯৫ বছর আগে ৫৬ জন আরোহী নিয়ে নিখোঁজ হওয়া তাদের নৌবাহিনীর একটি জাহাজ সানফ্রান্সিসকো উপকূলের অদূরে পাওয়া গেছে। এরফলে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর ইতিহাসের সবচেয়ে রহস্যজনক ঘটনার অবসান ঘটল। বুধবার কর্তৃপক্ষ একথা জানায়। নেভি ও ন্যাশনাল ওসানিক এ্যাটমোসফিয়ার এ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এনওএএ) এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ইউএসএস কোনেসটোগা শান্তির সময়ে নিখোঁজ হওয়া মার্কিন নৌবাহিনীর সর্বশেষ জাহাজ। -এএফপি