মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ আগস্ট ২০১৭, ৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ভারতে গেল প্রথম পণ্যবাহী জাহাজ

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ কোস্টাল শিপিং এগ্রিমেন্টের আওতায় অবশেষে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে কন্টেনার নিয়ে ভারতের উদ্দেশে যাত্রা করেছে প্রথম পণ্যবাহী জাহাজ এমভি হারবার-১। বুধবার বেলা ১১টার দিকে ছেড়ে যাওয়া জাহাজটি পৌঁছবে ভারতের কৃষ্ণ পতনম বন্দরে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকালে দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল এ চুক্তি। যুগান্তকারী এ কার্যক্রম শুরু হওয়ায় প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে ব্যবসা বাণিজ্য ও পণ্য পরিবহনে গতি সঞ্চার হবে বলে আশা করছেন আমদানি ও রফতানিকারকগণ।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের পরিবহন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, এমভি হারবার-১ নামের জাহাজটি ১২০টি খালি কন্টেনার নিয়ে ভারতের উদ্দেশে যাত্রা করে। যাওয়ার সময় সমুদ্র উপকূলীয় জলসীমা দিয়ে গেলেও ফিরবে নারায়ণগঞ্জের পানগাঁও হয়ে। আসার সময় বহন করবে ভারতীয় পণ্য।

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান গত ১৫ মার্চ দুই দেশের মধ্যে পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল উদ্বোধন করেছিলেন। সে অনুযায়ী ১৭ মার্চ ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল প্রথম জাহাজটি। কিন্তু সরকারী ও সাপ্তাহিকসহ একটানা তিন দিন ছুটি পড়ে যাওয়ায় প্রত্যাশিত কন্টেনার না পাওয়ায় জাহাজটি ছাড়তে বিলম্ব হয়।

চট্টগ্রাম বন্দর সূত্রে জানা যায়, স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া পণ্যবাহী জাহাজ ভারতের ৭টি বন্দরে ভিড়তে পারবে। ভারতের এ বন্দরগুলো হচ্ছে- কলকাতা, হলদিয়া, বিশাখা, কৃষ্ণ পতনম, চেন্নাই, প্যারাদ্বীপ ও কাকিনাডা।

বাংলাদেশ-ভারত কোস্টাল নৌ-পথের জন্য হারবার-১ নামের জাহাজটি নির্মাণ করেছে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড। ১৭৬ টিইইউএস কন্টেনার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন এ জাহাজটি ইতালির রিনা ক্লাসের তত্ত্বাবধানে নির্মিত হয়। নির্মাতা প্রতিষ্ঠান গত ১৮ অক্টোবর জাহাজটি হস্তান্তর করে।

চীনে ট্রানজিট পেল নেপাল

দক্ষিণ এশিয়ায় বাণিজ্য প্রসারে আরও একধাপ এগিয়ে গেল নেপাল। বাংলাদেশ ও ভারতের পর চীনে ট্রানজিট পেল দেশটি। এর ফলে এখন থেকে সমুদ্রপথে চীনের সঙ্গে বাণিজ্য করতে পারবে নেপাল। আর নির্ভরতা কমাতে পারবে ভারতের ওপর। সোমবার বেইজিংয়ে চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কিকিয়াং ও নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলির মধ্যে এ সংক্রান্ত চুক্তি হয়। ভারত সীমান্ত দিয়ে পণ্য আনা-নেয়ায় যখন দেশটির ওপর অদৃশ্য অবরোধ চলে; ঠিক সেই মুহূর্তে এমন চুক্তির সিদ্ধান্ত নেয় নেপাল। বাংলাদেশ ও ভারতের সঙ্গে ট্রানজিট চুক্তি রয়েছে স্থল বেষ্টিত এ দেশটির। বর্তমানে চীনের সঙ্গেও বাণিজ্য প্রসারে যুক্ত হলো। এই চুক্তির ফলে এখন থেকে চীনের বন্দর ব্যবহার করতে পারবে নেপাল। এতে করে প্রতিবেশী দেশ ভারতের ওপর নির্ভরতা কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। অবশ্য, নেপালের সীমানা থেকে কলকাতার চেয়ে চীনের তিয়ানজিন বন্দরের দূরত্বই বেশি। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার

সরকারী ক্রয়ে নাগরিক সম্পৃক্ততা বাড়াতে সিলেটে কর্মশালা

সরকারী ক্রয়ে সামাজিক জবাবদিহিতা ও নাগরিক সম্পৃক্ততা সৃষ্টির উপায় নির্ধারণের লক্ষ্যে আজ বৃহস্পতিবার সিলেটে অনুষ্ঠিত হচ্ছে কর্মশালা। শাহজালাল উপশহর সিলেটের রোজভিউ হোটেলে এ কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের অধীন সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিট (সিপিটিইউ) কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন পাবলিক প্রকিউরমেন্ট রিফর্ম প্রজেক্ট-২ এর আওতায় কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গভার্নেন্স এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বিআইজিডি) সামাজিক জবাবদিহিতা পরামর্শক হিসেবে সিপিটিইউ’র পক্ষে বিভাগীয় পর্যায়ের এ কর্মশালা আয়োজনসহ সরকারী ক্রয়ে নাগরিক সম্পৃক্ততা সৃষ্টির কৌশল প্রণয়ন ও তা বাস্তবায়ন পরীক্ষার কাজ করছে। সিলেটের এ কর্মশালায় এ বিভাগের সরকারী ক্রয়কারী কর্মকর্তা, টেন্ডারার, সুশীল সমাজ, মিডিয়া, এনজিও এবং স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করছেন। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৬

২৪/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: