১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

বরখাস্ত হচ্ছেন আফ্রিদি!


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টি২০ বিশ্বকাপ শেষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানাবেন- এমন ইঙ্গিত শহীদ আফ্রিদি আগেই দিয়ে রেখেছিলেন। এশিয়া কাপের লীগ পর্ব থেকে বিদায় নেয়ার পর সোচ্চার হয়ে উঠেছিল দেশটির গণমাধ্যম। প্রবল চাপের মুখে তখনও বড় তারকাকে সমর্থন দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। পিসিবি জানিয়েছিল, পরিস্থিতি যাই হোক, টি২০ বিশ্বকাপে আফ্রিদিই নেতৃত্ব দেবেন। ভারত ও নিউজিল্যান্ডের কাছে হার পাকিস্তানকে কার্যত বিশ্বকাপের সেমির রেস থেকে ছিটকে দিয়েছে। সেই পিসিবিই এখন অধিনায়ক আফ্রিদি ও কোচ ওয়াকার ইউনুসকে বরখাস্ত করতে যাচ্ছে! এই অবস্থায় শেষ ম্যাচ (আগামীকাল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে) জিতে ঘুরে দাঁড়ালেও ব্যতিক্রম হবে না। পিসিবির শীর্ষ কর্তারা না কি এমনটাই বলেছেন। বিশ্বস্ত সূত্রের বরাত দিয়ে বরখাস্তের খবর প্রকাশ করছে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম। তবে পিসিবি প্রধান শাহরিয়ার খান চাইছেন, প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী নেতৃত্ব ছেড়ে আফ্রিদি সাধারণ ক্রিকেটার হিসেবে খেলা চালিয়ে যাক।

‘এটা একেবারে পরিষ্কার, আফ্রিদির নিজের ফর্ম এবং নেতৃত্ব নিয়ে পিসিবি মোটেই সন্তুষ্ট নয়। তাই প্রয়োজনে বিশ্বকাপের পর তাকে বরখাস্তের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ভাবা হচ্ছে। কেবল অধিনায়ক নয়, এমন কি সাধারণ খেলোয়াড় হিসেবেও তাকে দলের সঙ্গে রাখতে চায় না বোর্ড!’ নাম প্রকাশ না করে পিসিবির বিশ্বস্ত এক কর্তার উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম। সেখানে বলা হয়, ‘গণমাধ্যমে আফ্রিদির দেয়া বক্তব্যে বোর্ডের বেশিরভাগ সদস্যই অখুশি।’ সূত্রটি আরও জানিয়েছে, টি২০ বিশ্বকাপের পর বর্তমান নির্বাচক কমিটি বাতিল করা হবে। এমন কি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শেষ ম্যাচে জিতে সেমিফাইনালে খেললে, বা শিরোপা জিতলেও এর ব্যত্যয় হবে না! যার অর্থ, হারুন রশীদের নেতৃত্বাধীন বর্তমান নির্বাচক কমিটিকে বিদায় নিতেই হচ্ছে। এশিয়া কাপে ভরাডুবির কারণ খুঁজতে গঠিত তদন্ত কমিটি এরই মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক করেছে। সেখানে নেতৃত্ব, দল নির্বাচন ও টিম ম্যানেজমেন্টের ওপর তীব্র অসন্তোষ ফুটে ওঠে।

এশিয়া কাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও স্বাগতিক বাংলাদেশের কাছে হেরে বিদায় নেয় পাকিস্তান। বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে হারিয়ে শুরু করলেও ইডেনে বহুল আলোচিত ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে পাত্তাই পায়নি আফ্রিদির দল। আর পরশু নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখার ম্যাচে ২২ রানে হারে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিরা। ফের সরগরম পাকিস্তান। তদন্ত কমিটির সদস্যরা প্রধান নির্বাচক রশীদ এবং অপর দুই সহযোগীকে পৃথকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। সংবাদে প্রকাশ, ‘সেখানে কতিপয় সদস্য গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে প্রধান নির্বাচক রশীদের বিরুদ্ধে চরম স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ আনেন।’ পিসিবি তাই সিরিয়াসলি নতুন অধিনায়ক, নির্বাচক ও কোচ দেয়ার কথা ভাবছে। আগামী ইংল্যান্ড সফরের আগেই কোচ ওয়াকারের সঙ্গে বর্তমান চুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে। সেটি আর বাড়ানোর সম্ভাবনা নেই। অপর আরেকটি সূত্রের বক্তব্য, অন্তত ইংল্যান্ড সফর পর্যন্ত ওয়াকারের মেয়াদ বাড়ানোর একটা সাময়িক পরিকল্পনা ছিল।

তবে পরিস্থিতি যা, তাতে এখন সেটিও হওয়ার সম্ভাবনা নেই। বিদেশী কাউকে না পাওয়া পর্যন্ত তার পরিবর্তে আরেক সাবেক পেসার আকিভ জাবেদকে প্রধান কোচ করা হতে পারে। আফ্রিদির কথা-বার্তা বলার ধরন নিয়ে পিসিবি আগে থেকেই নাখোশ। বিশেষ করে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে প্রায়শ বিব্রতকর বক্তব্য দিয়ে আলোচনায় তিনি। টি২০ বিশ্বকাপের শুরুতেও ‘পাকিস্তানের চেয়ে ভারতেই বেশি ভালবাসা পাই’- এমন কথা বলে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন ৩৬ বছর বয়সী তুখোড় এই তারকা। সংবাদ মাধ্যম ও বোর্ডের ওই সূত্র যাই বলুক, আফ্রিদির জন্য স্বস্তির খবর, স্বয়ং পিসিবি প্রধান শাহরিয়ার তাকে বরখাস্ত করতে চান না। বরং তিনি চাইছেন আফ্রিদি নিজে থেকে নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়ে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী অবসর নিক, অথবা সাধারণ সদস্য হিসেবে খেলা চালিয়ে যাক।