মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৪ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

নিষিদ্ধই থাকলেন তাসকিন

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৬
  • তাসকিনের আপীল আমলে নেয়নি আইসিসি, দেশে ফিরলেন সানি

মিথুন আশরাফ, ব্যাঙ্গালুরু থেকে ॥ শত চেষ্টার পরও তাসকিন আহমেদের বোলিং এ্যাকশন বৈধ হতে পারল না। অবৈধ থাকল। বুধবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থাই (আইসিসি) বিষয়টি নিশ্চিত করে দিয়েছে। এমনদিনে দেশে ফিরেছেন বোলিং এ্যাকশন অবৈধ থাকায় সাময়িক নিষিদ্ধ হওয়া আরেক বোলার আরাফাত সানি।

এ নিয়ে কত যুদ্ধ হলো। আইসিসির সঙ্গে বিসিবি যেন যুদ্ধই করল। তাতেও কাজ হলো না। তাসকিনকে সাময়িক নিষিদ্ধই থাকতে হলো। এখন তাসকিনকে নিষেধাজ্ঞা কাটাতে হলে বৈধ বোলিং করতে হবে এবং তার পরীক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। নয়ত নিষিদ্ধই থাকবেন তাসকিন।

বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখার সিদ্ধান্তই নিল আইসিসি। আর পুনর্বিবেচনা করার আবেদনটিও খারিজ করে দিয়েছে ক্রিকেটের এ সর্বোচ্চ সংস্থাটি। ফলে দুঃসংবাদটা অনেক বড় হয়েই আসল বাংলাদেশ দলের জন্য। আর ঠিক ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের দিন সকালেই এ খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে। পরে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিও দিয়েছে আইসিসি। যতটুকু আশা ধরে রাখা হয়েছিল টি২০ বিশ্বকাপে খেলার, তাও শেষ হয়ে গেল। রিভিউতেও কোন ইতিবাচক ফল আসেনি এই বিষয়ে। বাংলাদেশ সময় বুধবার সকাল ১০টায় এ খবরটি জানা গেল। বাংলাদেশের পেসার তাসকিনের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বিবেচনার আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছে ক্রিকেটের এ সর্বোচ্চ সংস্থাটি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড তাসকিনের বোলিং এ্যাকশন পরীক্ষার প্রক্রিয়াগত ত্রুটি তুলে ধরে মেইল করেছিল আইসিসিকে। তবে আইসিসির পক্ষ থেকে ইতিবাচক কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। পরে বিসিবি নিয়মতান্ত্রিক পথে হাঁটা শুরু করে। জুডিশিয়াল কমিশনারের কাছে রিভিউয়ের আবেদন করে বিসিবি। আর এরই পরিপ্রেক্ষিতে শুনানি শেষেও তাসকিনের বোলিংয়ে নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখেছে আইসিসি।

মঙ্গলবার বিসিবি প্রধান ব্যাঙ্গালুরুতে আইসিসির উর্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপও করেন। বাংলাদেশের নির্ভরযোগ্য দুই বোলার আরাফাত সানি এবং তাসকিন আহমেদকে অবৈধ বোলিং এ্যাকশনের জন্য নিষিদ্ধ করে আইসিসি। প্রথম পর্বে হল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের পরই অনফিল্ড আম্পায়ার এই দুই বোলারের বিপক্ষে অভিযোগ ওঠায়। পরে তারা দু’জনই চেন্নাইতে গিয়ে পরীক্ষা দিয়ে আসেন। যার ফল ১৯ মার্চ শনিবার প্রকাশ হয়। যেখানে দুইজনকেই নিষিদ্ধ করা হয়। সানির নিষেধাজ্ঞা মেনে নিলেও তাসকিনের জন্য আপীল করে বিসিবি। নিয়মানুযায়ী জুডিশিয়াল কমিশনারের কাছে রিভিউয়ের জন্য আবেদন করে বিসিবি। এরই ধারাবাহিকতায় শুনানি শেষে তাসকিন আহমেদের বোলিংয়ে নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখেছে আইসিসির জুডিশিয়াল কমিশন। জুডিশিয়াল কমিশনারের বক্তব্যে বলা হয়েছে, ‘যথাযথ শুদ্ধি প্রক্রিয়া শেষে তাসকিন যে কোন সময় তার বোলিং এ্যাকশন পরীক্ষা করানোর জন্য আইসিসির কাছে আবেদন করতে পারবেন। যেভাবে তার প্রথম পরীক্ষা নেয়া হয়েছিল ঠিক সেভাবেই তাকে আবারও পরীক্ষা দিতে হবে।’ আরও বলা হয়েছে, পরীক্ষায় বিশেষ ডেলিভারি দেয়ার সময় তাসকিনের কনুই সহনীয় পর্যায় (১৫ ডিগ্রী) অতিক্রম করে বলে তাকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করা হয়। মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত আইসিসির জুডিশিয়াল কমিশনার মাইকেল ব্যালকের সঙ্গে টেলিকনফারেন্স করে বিসিবি। বিসিবি তাসকিনের পক্ষে সেখানে তাদের যুক্তি ও তথ্য প্রমাণ উপস্থাপন করে। জুডিশিয়াল কমিশনার ব্যালক সতর্কতার সঙ্গে সব শোনেন। পরবর্তীতে বিসিবিকে লিখিত রায় জানানোর সিদ্ধান্ত নেন।

তিনি আরও বলেন, তাসকিনকে অবশ্যই তার কনুই ১৫ ডিগ্রীর মধ্যে রাখতে হবে। পরীক্ষার মাধ্যমে তাসকিন যদি তা প্রমাণ করতে পারে তাহলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে তার কোন বাধা নেই। এর আগে আইসিসির টেকনিক্যাল কমিটি, জুডিশিয়াল কমিশন এবং বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে শুনানিতে অংশ নিতে ব্যাঙ্গালুরুতে যান নাজমুল হাসান পাপন। সেখানে অনুষ্ঠিত শুনানি শেষে বুধবার সকালে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তাসকিনের নিষেধাজ্ঞা বহালের সিদ্ধান্তের কথা জানায় আইসিসি।

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৬

২৪/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: