২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

বিস্ফোরণে প্রকম্পিত বেলজিয়াম, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৪


বিস্ফোরণে প্রকম্পিত বেলজিয়াম, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৪

অনলাইন ডেস্ক॥ দফায় দফায় আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে শান্তির দেশ বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে অবস্থিত ব্রাসেলস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও নগরীর মেট্টোরেল স্টেশন।আত্মঘাতী এসব বিস্ফোরণে প্রাথমিকভাবে ১৭ জন নিহত হওয়ার কথা বলা হলেও পরে নিহতের সংখ্যা ৩৪ জনে গিয়ে উন্নীত হয়েছে। বেলজিয়ামের বরাত দিয়ে সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, অন্তত তিন দফা বিস্ফোরণে সর্বশেষ ৩৪ জন নিহত এবং ১৩০ জন আহত হওয়ার কথা জানা গেছে। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থাই আশঙ্কাজনক।স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগেলোতে নিহতের সংখ্যা কেউ ২৮ আবার কেউ ৩৪ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।বিস্ফোরণের পর বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, যে বিস্ফোরণ ঘটে গেছে সেটি সন্ত্রাসী হামলা বলে মনে হচ্ছে।ব্রাসেলস মেট্ট্রো কর্তৃপক্ষ মেট্টো রেল স্টেশনে বোমা বিস্ফোরণে ১৪ জন এবং বিমানবন্দরে ২০ নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছেন।তবে বিমানবন্দর এবং মেট্টোরেল স্টেশনের বোমা হামলায় হতাহতদের জানা যায়নি এখেনো।সংবাদ বিশ্লেষণে বলা হচ্ছে, প্যারিস হামলায় একজন সন্দেহভাজনকে ধরে প্যারিসের হাতে তুলে দেয়ার প্রতিশোধে নেয়ার জন্য জঙ্গি গোষ্ঠী পরিকল্পিত উপায়ে এই হামলা চালিয়েছে।প্যারিস হামলার প্রধান সন্দেহভাজন সালাহ আবদেসালাম ব্রাসেলসে পুলিশি অভিযানে গ্রেপ্তার হওয়ার চার দিনের মাথায় এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল। গত বছরের নভেম্বরে ফ্রান্সের প্যারিসে ওই সন্ত্রাসী হামলায় ১৩০ জন নিহত হয়। বিস্ফোরণের পর বেলজিয়াম সরকার দেশে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে।

আজ মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৮টার দিকে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। আমেরিকান এয়ারলাইন্সের চেক-ইন ডেস্কের দিক থেকেই বিস্ফোরণ দুটির শকওয়েভ ছুটে আসে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

বোমা বিস্ফোরণের পর বিমানবন্দরে যাত্রীসহ সবার মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সবাই এদিক-সেদিক ছোটাছুটি করতে থাকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা একটি ছবিতে ওই বিমানবন্দরের একটি ভবন থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, বোমা বিস্ফোরণের আগ মুহূর্তে তাঁরা বিমানবন্দরের ভেতরে আরবিতে চিৎকার করে কিছু বলতে শুনেছেন।

দেশটির বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ টুইটার বার্তায় বলেছে, ‘বিমানবন্দরে দুটি বিস্ফোরণ ঘটেছে। ভবনগুলো খালি করা হচ্ছে। বিমানবন্দর এলাকায় আসবেন না। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বিমানবন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।’

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জান জামবোন বলেছেন, দেশটিতে সন্ত্রাসী হামলার সতর্কতা সর্বোচ্চ মান চারে উন্নীত করা হয়েছে।

বিস্ফোরণের ঘটনার পরপরই পার্শ্ববর্তী ফ্রান্স, জার্মানি, নেদারল্যান্ডস ও ব্রিটেনের বিমানবন্দরগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

বিস্ফোরণের পর পরই বেলজিয়াম ফেডারেল পুলিশ নিহতের সংখ্যা ১৭ বলে উল্লেখ করে। বিস্ফোরণের পর বিমান ওঠা-নামাসহ গণপরিবহন বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

বিমানবন্দরের দুদফা বিস্ফোরণ ছাড়াও ব্রাসেলসে ইউরোপীয় ইয়নিয়নের কার্যালয়ের কাছে একটি মেট্রো স্টেশনেও তৃতীয় বিস্ফোরণটি ঘটে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিগুলোয় দেখা যায়, বিস্ফোরণের ফলে টার্মিনালের জানালার কাঁচগুলো টুকরো টুকরো হয়ে চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে। বিমানবন্দরের টার্মিনাল ভবন থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়।

বিস্ফোরণের বিষয়টি নিশ্চিত করে ব্রাসেলস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বিমানবন্দর এলাকা এড়িয়ে যেতে বলেছে। সেই সঙ্গে বিমানবন্দরটিতে অবতরন করবে এমন বেশ কয়েকটি বিমানকে দিক পরিবর্তন করানো হয়েছে। আপাতত বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

গত ১৮ মার্চ প্যারিস হামলার মূল সন্দেহভাজন সালেহ আব্দেসলামকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করে বেলজিয়াম পুলিশ। এরই চারদিনের মাথায় এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটলো।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: