২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আজারেঙ্কার ফেরা


যেন ফুরিয়েই গিয়েছিলেন ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা। গত দুই মৌসুমে চোট আর নিষ্প্র্রভতার কারণে টেনিস কোর্টে খুঁজেই পাওয়া যায়নি তাকে। তবে আবারও স্বরূপে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান এই তারকা। ইন্ডিয়ান ওয়েলসই তার বড় প্রমাণ। ক্যালিফোর্নিয়ার এই টুর্নামেন্টে ক্যারিয়ারের ১৯তম শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলেন বেলারুশ সুন্দরী। তাও আবার বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান তারকা সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন তিনি। রবিবার টুর্নামেন্টের ফাইনালে ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা ৬-৪ এবং ৬-৪ সেটে রীতিমতো উড়িয়েই দেন আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তিকে।

বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের বর্তমান শীর্ষ তারকা সেরেনা উইলিয়ামস। আর সাবেক এক নাম্বার খেলোয়াড় ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা। দুই তারকার জন্যই ইন্ডিয়ান ওয়েলস ছিল শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের লড়াই। শেষ পর্যন্ত জয় হলো আজারেঙ্কার। বিশ্বের এক নাম্বার খেলোয়াড় সেরেনা উইলিয়ামসকে পরাজিত করে দ্বিতীয়বারের মতো ইন্ডিয়ান ওয়েলসের শিরোপা জিতেছেন বেলারুশ সুন্দরী। সেরেনা উইলিয়ামসের বিপক্ষে জিততে আজারেঙ্কার সময় লাগে ১ ঘণ্টা ২৮ মিনিট। ২১টি গ্র্যান্ডসøাম জয়ী সেরেনার বিপক্ষে এই ম্যাচে আজারেঙ্কা এস মেরেছেন পাঁচটি। অন্যদিকে সেরেনা তার স্বভাবের বাইরে গিয়ে ৩৩টি আনফোর্সড এররের পাশাপাশি পাঁচটি ডাবল ফল্ট করেছেন। এই ম্যাচে আজারেঙ্কাকে হারাতে পারলে অনন্য এক রেকর্ড গড়তে পারতেন সেরেনা। ইতিহাসের প্রথম প্রমীলা খেলোয়াড় হিসেবে তিনবার ইন্ডিয়ান ওয়েলসের শিরোপা জিততে পারতেন তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পরাজয় মানতে হলো তাকে। দুটি গ্র্যান্ডসøাম জয়ী ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কার বিপক্ষে এমন পরাজয়ে হতাশ সেরেনা। তবে দীর্ঘ ১৫ বছর পর আবার বিএনপি পরিবাস ওপেনের ফাইনালে কিছুটা চাপের মধ্যেও ছিলেন তিনি। এ বিষয়ে ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে কৃঞ্চকলি বলেন, ‘অবশ্যই এটা আমার সেরা ম্যাচ নয়, গেম পরিবকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারিনি। সম্ভবত চাপের সাথে পেরে উঠিনি। ম্যাচ শেষে কোচ প্যাট্রিক মোরাটোগ্লুর সাথেও আলাপ করেছি। সেও বলেছে কখনই সে আমাকে এতটা ফ্ল্যাট খেলতে দেখেনি।’ গত মৌসুমটা দুর্দান্ত কেটেছে সেরেনার। প্রতিপক্ষের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। বছরের প্রথম তিন গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের সবকটিতেই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন এই আমেরিকান। ক্যালেন্ডার সøাম জয়ের দ্বারপ্রান্তেও পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু গত মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনের সেমিফাইনালেই থেমে যায় তার জয়রথ। ইতালিয়ান তারকা রবার্টা ভিঞ্চি তাকে হারিয়ে দেন। এরপর চলতি বছরের প্রথম মেজর টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে হার মানেন জার্মানির প্রতিভাবান তারকা এ্যাঞ্জেলিক কারবারের কাছে। টানা দুই মেজর টুর্নামেন্টে পরাজয়ের পর এবার বেলারুশ সুন্দরী ভিক্টোরিয়ার কাছে আরেকটি ফাইনালে লজ্জাজনকভাবে হারেন সেরেনা উইলিয়ামস। ৩৪ বছর বয়সী সেরেনা উইলিয়ামসের জন্য যা দুর্ভাগ্যই বলতে হবে।

বিশ্ব টেনিসে অভিজ্ঞ তারকার নাম আজারেঙ্কা। যদিওবা মাত্র দুটি গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জয়ের স্বাদ পেয়েছেন তিনি। তার দুটিই আবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে। ২০১২-১৩ মৌসুমে টানা দুটি মেজর শিরোপা জিতেছিলেন তিনি। আর সেটাই ছিল তার ক্যারিয়ারের স্বর্ণালি সময়। কিন্তু সেই সময়টা বেশি দিন ধরে রাখতে পারেননি বেলারুশিয়ান। এরপর থেকেই ইনজুরিতে পড়েন আজারেঙ্কা। ইনজুরির সঙ্গে লড়াই করা সাবেক এই নাম্বার ওয়ান খেলোয়াড় যেন আবারও স্বরূপে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন। তার প্রমাণই এই বিএনপি পরিবাস ওপেন। কয়েক বছর যাবতই যে কোন টুর্নামেন্টের ফাইনাল বা অন্য কোন ম্যাচে সেরেনার শক্তিমত্তার সঙ্গে পেরে ওঠেননি এই টেনিস তারকা। কিন্তু রবিবার ইন্ডিয়ান ওয়েলসের ফাইনালের শুরু থেকেই সেরেনাকে খুব একটা প্রস্তুত মনে হয়নি। চারবারের মুখোমুখি লড়াইয়ে এবারই কোন টুর্নামেন্টের ফাইনালে আজারেঙ্কার কাছে পরাজিত হলেন সেরেনা। দুই সেটের শুরুতেই দুটি ব্রেক পয়েন্ট নিয়ে আজারেঙ্কা নিজেকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যান। এর আগে ২০১২ সালে প্রথমবারের মতো ১.০২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের এই শিরোপা জিতেছিল আজারেঙ্কা। এবার দ্বিতীয়বারের মতো বিএনপি পরিবাস ওপেনের শিরোপা নিজের শোকেসে তুললেন তিনি। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে ২৬ বছর বয়সী এই তারকা বলেন, ‘এই জয়ের অনুভূতিটা দারুণ। মনে হয়, পরিশ্রমের ফল পাচ্ছি। গত মৌসুমটা ভালো কাটেনি আমার। তবে ফর্মে ফেরার জন্য আমি সব ধরনের চেষ্টাই করছি। এই জয় আমার কাছে বিশেষ কিছু। সেরেনার বিপক্ষে ম্যাচে আমি আক্রমণাত্বক খেলেছি। সবসময়ই যেভাবে খেলে থাকি ঠিক সেই খেলাটাই খেলার চেষ্টা করেছি।’

টেনিসের অন্যতম সেরা ইভেন্ট ইন্ডিয়ান ওয়েলস। বিশ্বের সেরা সেরা সব প্রমীলা খেলোয়াড়রাই পারফর্ম করেন এখানে।