১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আজ জয়ের প্রত্যাশাই থাকবে ॥ নান্নু


আজ জয়ের প্রত্যাশাই থাকবে ॥ নান্নু

টি২০ বিশ^কাপের মূল পর্বে টানা দুই ম্যাচ হেরে বাংলাদেশের অবস্থা এখন অনেকটাই নড়বড়ে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারের আগেই অবশ্য অন্য কারণে দলের মনোবল শূন্যের কোটায় গিয়ে ঠেকেছিল। বিশ্বকাপের মতো আসরে একসঙ্গে দলের দুজন গুরুত্বপূর্ণ বোলার তাসকিন ও আরাফাত সানি নিষিদ্ধ হয়েছেন। তারপরও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টাইগাররা ভাল ক্রিকেট খেলেছে বলেই বিশ্বাস সাবেক অধিনায়ক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর। মঙ্গলবার জনকণ্ঠের সঙ্গে আলাপচারিতায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচকম-লীর অন্যতম এই সদস্য টুর্নামেন্টে টাইগারদের ঘুরে দাঁড়ানোর আশার কথাই ব্যক্ত করলেন। সাক্ষাতকার- তোফায়েল আহমেদ

প্রশ্ন ॥ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারটাকে কিভাবে দেখছেন?

নান্নু ॥ ইডেনে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের পরই আমাদের দলের ওপর ধাক্কাটা আসে। একসঙ্গে দুজন প্লেয়ারকে বাদ পড়তে হয়। আমার মনে হয় সেই ধাক্কা সামলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে যথেষ্ট দৃঢ় মানসিকতার পরিচয় দিতে পেরেছে ছেলেরা। ব্যাটিংটা আরেকটু ভাল হলে হয়ত অজিদের বেশি চাপে ফেলা যেত। তবে সর্বোপরি ম্যাচ নিয়ে আমি সন্তুষ্ট। বাংলাদেশ যথেষ্ট ভাল ক্রিকেটই খেলেছে।

প্রশ্ন ॥ ম্যাচটা কি জিততে পারতাম না ...

নান্নু ॥ এভাবে বলা আসলে কঠিন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আমরা আগে থেকেই ম্যাচ জিতে যাব এই মানসিকায় এখনও আমরা পৌঁছাতে পারিনি। তবে এটা ঠিক গত ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে আরও চাপের মধ্যে আমরা ফেলতে পারতাম। সেটা হয়নি মূলত রান কিছু কম হয়ে যাওয়ায়। তাছাড়া আমাদের যে দুজন প্লেয়ারকে বাদ পড়তে হয়েছে তারা থাকলেও আমরা অনেকটা এগিয়ে থাকতাম এই ম্যাচে। কারণ এত বড় একটা টুর্নামেন্টের মাঝে টিমের কম্বিনেশন পরিবর্তন হয়ে যাওয়া যে কোন দলের জন্যই অনেক বড় ক্ষতি। তারপর আবার তামিম ইকবাল খেলতে পারেননি। তিনটা প্লেয়ার একাদশ থেকে চলে গেলে মানসিকভাবে সব দলের ওপরই থাক্কা লাগে। সেই বিবেচনায় ছেলেরা যতটুকু ওভারকাম করতে পেরেছে তার জন্য তারা বাহবা পাওয়ার যোগ্য।

প্রশ্ন ॥ ১৫৬ রান করার পরও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটা আমরা হারলাম কোথায় সমস্যা মনে হয়?

নান্নু ॥ যেটা বললাম- আমাদের কিছু রান কম হয়ে গিয়েছিল। ১৭০ বা এর অধিক রান করতে পারলে ওদের আমরা হারাতে পারতাম। তারপরও ১৫৬ পুঁজি নিয়েও হয়ত জেতা যেত। কিন্তু বোলিং আমাদের ভাল হয়নি। ফিল্ডিংয়েও ক্যাচ পড়েছে, বাউন্ডারি লাইনে বেশ কিছু মিস ফিল্ডিংও হয়েছে। তবুও আমরা কাছাকাছি গিয়ে হেরেছি।

প্রশ্ন ॥ ম্যাচে অধিনায়ক মাশরাফিকে আমরা একেবারেই নির্লিপ্ত দেখেছি। বাইরে থেকে কি মনে হয় তিনি সেই ধাক্কাটা সামলে ওঠতে পারেননি?

নান্নু ॥ পরিস্থিতিই তো এমন একটা জায়গায় আমাদের দাঁড় করিয়েছে। কিন্তু আমরা যখন বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছি তখন ধাক্কা সামলে খেলতে তো হবেই। মাশরাফি অনেক পেশাদার একজন প্লেয়ার। আমার মনে হয় এই দিকটা সামলানোর ক্ষমতা ওর আছে। তাছাড়া ওভার অল টিম যেভাবে খেলেছে তাতে তো ভালই খেলেছে।

প্রশ্ন ॥ প্রথম দুই ম্যাচ হেরে এখন আমরা অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছি। তারপরও টিম এখান থেকে কিভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পারে?

নান্নু ॥ এখন আমরা যে জায়গায় আছি এখান থেকে সেমিফাইনালে খেলা খুবই কষ্টকর হবে। নেট রান রেটের দিক দিয়েও আমরা পিছিয়ে পড়েছি। তারপরও আমার কাছে মনে আগামীকালের (আজ) ম্যাচটিসহ পরের ম্যাচটিতে যদি আমরা ভাল ক্রিকেট খেলতে পারি, দুটি জয় আনতে পারি, তখন একটা সমীকরণে মধ্যে আমরা চলে আসব। পরের ম্যাচটি আমাদের ভারতের সঙ্গে ব্যাঙ্গালুরুতে। ভারত ওদের হোম কন্ডিশনে অনেক শক্তিশালী একটি টিম। সেই হিসেবে আগাম বলা কঠিন আমরা কেমন খেলব। তারপরও আশা করব যেন টিম ভাল ক্রিকেট খেলতে পারে।

প্রশ্ন ॥ আজ ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে টিমে কোন পরিবর্তন প্রয়োজন?

নান্নু ॥ ব্যাঙ্গালুরুর উইকেটের অবস্থা এবং আমাদের স্পিনাররা যেভাবে বল করছে সেই বিবেচনায় এখানে ব্যাটসম্যানদের আটকানো খুবই কষ্টকর হবে। পেসারদেরও অনেক প্ল্যান করে বল করতে হয়। একমাত্র মুস্তাফিজ ছাড়া গত ম্যাচে কেউ কিন্তু তেমন ভাল বল করেনি। সেই হিসেবে অনেক প্ল্যান করে ম্যাচটা খেলতে হবে আমাদের। কারণ ভারত ওদের মাঠে একেবারে মুখস্তভাবে ক্রিকেট খেলে। ভালমতো প্ল্যান না করতে পারলে ওদের সঙ্গে পারাটা কষ্টকর হবে।

প্রশ্ন ॥ সৌম্য সরকারের ব্যর্থতা আর নাসির হোসেনের সুযোগ না পাওয়া প্রসঙ্গে আপনার অভিমত?

নান্নু ॥ সৌম্য সরকারের খুব বাজে সময় যাচ্ছে এখন। কারণ সে সব সময়ই ফ্ল্যাট ট্র্যাকে খুব ভাল খেলে। এখন এই টুর্নামেন্টে আমরা উল্টো দেখছি। আমরা নিজেরাও ওর বিষয়ে বেশ চিন্তিত। কারণ ওর সটস নির্বাচনও খুব খারাপ হচ্ছে। সব বলই মারার চেষ্টা করছে। পরিকল্পনা করে খেলছে এটা ওর ব্যাটিং দেখে মনে হচ্ছে না। বিশ্বকাপের মঞ্চে তো আর সহজেই রান পাওয়া যায় না। সেই বিবেচনায় মানসিকভাবে ওর একটু পরিবর্তন দরকার। টিম ম্যানেজম্যান্ট ভাল পরামর্শ দিলে আমার মনে হয় সে অবশ্যই কামব্যাক করতে পারবে। নাসির হোসেনের বিষয়ে দেশে বসে আমাদের পক্ষে বলাটা কঠিন। এটা ম্যানেজমেন্টের ওপর পুরোপুরি নির্ভরশীল। সে ওখানে কি অবস্থায় আছে বা প্র্যাকটিস কেমন করছে, কিংবা ওর উপর টিম ম্যানেজম্যান্ট কতটুকু সন্তুষ্ট। এসব কিছু একমাত্র টিম ম্যানেজমেন্টের হাতেই নির্ভর করে।

প্রশ্ন ॥ সবকিছু ভুলে আজ ঘুরে দাঁড়াবে বাংলাদেশ এটাই প্রত্যাশা?

নান্নু ॥ অবশ্যই। যে দুটি ম্যাচ আমাদের বাকি আছে সেগুলোতে ভাল করলে একটা সমীকরণের মধ্যে হয়ত আমরা চলে আসব। প্রত্যাশা তাই ভাল কিছুরই।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: